চাঁদপুরে উৎসবের জন্য নতুন বই নেয়া হচ্ছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে

চাঁদপুর জেলায় ২০২৩ শিক্ষা বর্ষে চাহিদার মাধ্যমিক-প্রাথমিকে ৬৩ লাখ ৫২ হাজার কপি বই এসেছে। ইতোমধ্যেই এসব বই স্ব স্ব উপজেলায় পৌঁছানোর কার্যক্রম অনেকটা শেষ। ১ জানুয়ারি উৎসবের জন্য এখন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে বই পাঠানো হচ্ছে।

প্রাপ্ত তথ্যে জানা গেছে-জেলার মাধ্যমিক-দাখিল-ইংরেজি ভার্সনে ৮ উপজেলার ২ শ ৯৩টি সরকারি-বেসরকারি মাধ্যমিক স্কুলে ২০২৩ শিক্ষা বর্ষের জন্যে ৪০ লাখ ৮১ হাজার ৮শ ৩০ কপির চাহিদা প্রেরণ করা হয়।

মাধ্যমিকর এ বই বিতরণ সম্পন্ন করার লক্ষ্যে উপজেলাগুলোর গুদামে আসবে। চাঁদপুরের ৮ উপজেলায় ২০২৩ শিক্ষাবর্ষের মাধ্যমিক স্তরের বই প্রতি উপজেলার প্রত্যেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বিতরণ করা হবে স্ব স্ব উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের মাধ্যমেই।

জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস চাঁদপুরে বই বিতরণে দায়িত্ব প্রাপ্ত একজন কর্মকর্তা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মঙ্গলবার (২৭ ডিসেম্বর) দুপুরে শহরের টেকনিক্যাল স্কুল আভ্যন্তরে সরকারি গুদাম থেকে মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ডের নতুন বই মাদ্রাসার প্রধান ও শিক্ষকদের মাঝে বিতরণ করতে দেখাগেছে। এসব বই মাদ্রাসাগুলোতে নিয়ে সংরক্ষণ করা হবে এবং ১ জানুয়ারি আনুষ্ঠানিকভাবে স্ব স্ব প্রতিষ্ঠান বিতরণ করবে বলে জানান উপস্থিত শিক্ষককরা।

এদিকে গত ২৩ ডিসেম্বর চাঁদপুর সরকারি কলেজ মাঠে মাতৃপীঠ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শতবর্ষ পূর্তি অনুষ্ঠানে আসলে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বই বিতরণ সম্পর্কে শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি বলেন, এবারও বই উৎসব নির্ধারিত সময়ে হবে। ৩১ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী বই উৎসব উদ্বোধন করবেন। আর ১ জানুয়ারী থেকে শিক্ষার্থীরা বই পাবে ইন্শাআল্লাহ।

জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানাগেছে, ২০২২ শিক্ষা বর্ষের মাঝের দিকে চাঁদপুর জেলায় মাধ্যমিক, দাখিল, ইবতেদায়ি, এসএসসি ভোকেশনাল, দাখিল ভোকেশনাল ও ইংরেজি ভার্সনের ৪০ লাখ ৮১ হাজার ৮ শ ৩০ কপি বইয়ের চাহিদা প্রেরণ করা হয়েছে ।

এদিকে ৮ উপজেলায় ১ হাজার ১ শ’ ৫৬ টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জন্য ২০২৩ শিক্ষাবর্ষে প্রাথমিক শিক্ষার্থীর বই প্রয়োজন ১২ লাখ ৭১ হাজার ৩ শ’১৬ কপি। প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের বই ইতোমধ্যেই এসেগেছে এবং সব বই উপজেলা গুদামে পৌঁছনো হয়েছে।

শেয়ার করুন: