চাঁদপুরে মা ইলিশ ধরার অপরাধে ৪৬ জেলে আটক

স্টাফ রিপোর্টার ॥

মা ইলিশ রক্ষায় চাঁদপুরের পদ্মা-মেঘনা নদীর অভয়াশ্রম এলাকায় নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ ধরার অপরাধে ৪১ জেলেকে গ্রেফতার করেছে নৌ-পুলিশ।

বৃহস্পতিবার ১৩ অক্টোবর সকাল পর্যন্ত পদ্মা-মেঘনার সদর উপজেলার রাজরাজেশ্বর, পুরাণবাজার, লক্ষিচর, চিরারচর, আনন্দবাজারসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়। এ সময় ৫টি নৌকা ও ১০ লাখ মিটার কারেন্ট জাল জব্দ করা হয়।

আটককৃতরা হলেন: মো. হযরত আলী (২১), নুর মোহাম্মদ (৪০), মোঃ সেলিম শেখ (৩০), মোঃ বাবুল শেখ (৩৫), ওসমান সরকার (৪২), নূর আলম লস্কর(২৭), ইয়াছিন লস্কর (২৪), সিরাজ বকাউল (৫৫), ইসমাইল গাজী(৫০), কাউছার ভূঁইয়া(১৯), মোঃ মিচির আলী (৪৬), রাসেল (৩২), সাজ্জাদ হোসেন (২২), রানা ইসলাম (১৯), তপন গাজী (২০), খোকন মিজী (৩৫), মোঃ সবুজ মিয়া (২৩), সুজন বেপারী (২২), মোঃ ইমরান(২২)। তবে এর মধ্যে না বালক হওয়ায় ১০ কিশোরকে মুছলেখা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়। আর বাকিদের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা দায়ের করেছে পুলিশ।

নীলকমল নৌ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মোঃ হোসেন সরকার জানান, বৃহস্পতিবার মেঘনার নদীতে নিষিদ্ধ সময় অবৈধ ভাবে মাছ নিধন অপরাধে ৫ জেলে, ৫ লক্ষ মিটার কারেন্ট ও ৮০ কেজি ইলিশ জব্দ করা হয়।

চাঁদপুর নৌ-থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.কামরুজ্জামান বলেন, মা ইলিশ রক্ষায় অভিযানে বিভিন্ন জায়গা থেকে ৪১ জেলেকে আটক করা হয়েছে। এছাড়া ৫টি নৌকা, ১০ লাখ মিটার কারেন্ট জাল ও ২৫ কেজি ইলিশ জব্দ করা হয়।

জেলেরা যাতে নদীতে মাছ শিকার করতে না পারে, সেজন্য নৌ-পুলিশের বিভিন্ন ইউনিট সার্বক্ষণিক টহল দিচ্ছে। চাঁদপুরের পদ্মা-মেঘনা নৌ-সীমানায় অভিযান অব্যাহত রয়েছে।
উল্লেখ্য, উৎপাদন বাড়াতে মা ইলিশ রক্ষায় গত ৭ তারিখ থেকে শুরু হয়ে আগামী ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত ২২ দিনব্যাপি অভিযান চলছে। এ সময় ইলিশ ধরা, পরিবহণ, মজুত ও বিক্রি নিষিদ্ধ করেছে সরকার।

শেয়ার করুন: