বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দেশের শ্রেষ্ঠ নেতা ও শ্রেষ্ঠ সম্পদ ছিলেন

কচুয়া প্রতিনিধি ॥

সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীর এমপি বলেছেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আমাদের দেশের শ্রেষ্ঠ নেতা ও শ্রেষ্ঠ সন্তান ছিলেন। বঙ্গবন্ধু স্বাধীনতা সংগ্রাম অর্জনের আগ থেকে এদেশ স্বাধীনতার স্বপ্ন দেখতেন। তিনি মানুষকে স্বাধীন ও মূল্যবোধ অর্জনে স্বপ্ন দেখিয়েছেন। শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর কন্যা,শেখ হাসিনা বাংলাদেশের কন্যা। দেশেকে ভালোবাসার বিকল্প নেই।

তিনি আরো বলেন, যারা ছাত্রলীগকে নিয়ে দ্বিধা বিভক্তির চেষ্টা করে তাদের প্রতিহত করতে হবে। বঙ্গবন্ধু যে আদর্শ রেখে গেছেন, সেই আদর্শ বাস্তবায়নের মাধ্যমে ছাত্রলীগকে দেশপ্রেমে উদ্ধুদ্ধ হয়ে এগিয়ে যেতে হবে। তিনি বুধবার ছাত্রলীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে কচুয়ার রহিমানগর শেখ মুজিবুর রহমান ডিগ্রি কলেজ শাখা ছাত্রলীগ ও ১১নং দক্ষিন গোহট ইউনিয়ন শাখা ছাত্রলীগের যৌথ আয়োজনে আনন্দ শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানের উদ্বোধক হিসেবে বক্তব্য রাখেন, কচুয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মো. তরিকুল ইসলাম মুন্সী।

রহিমানগর শেখ মুজিবুর রহমান ডিগ্রি কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সবুজ হোসাইনের সভাপতিত্বে ও গোহট দক্ষি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের মোহাম্মদ হোসাইন উদ্দিনের পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন,এনবিআরের সাবেক চেয়ারম্যান ও সচিব ও আওয়ামী লীগ নেতা আলহাজ¦ মো. গোলাম হোসেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মো. গোলাম হোসেন বলেন, আমি এক সময়ে কিছু সময়ের জন্য ছাত্রলীগের জন্য কাজ করার সুযোগ পেয়েছি। ছাত্রলীগ একটি সুসংগঠিত বঙ্গবন্ধুর আদর্শে গড়া ঐতিব্যাহী সংগঠন।

তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর তার তনয়া জননেত্রী শেখ হাসিনা এ দেশের হাল ধরে দেশকে উন্নত দেশের কাতারে নিয়ে যাচ্ছেন। প্রতিটি ক্ষেত্রেই আমি মনে করি গনতান্ত্রিক চর্চা থাকা প্রয়োজন। আমি গনতন্ত্র চর্চায় বিশ^াসী। আগামী নির্বাচনে যে নৌকার টিকেট পাবেন আমি মনে করি সকলে এক এবং অভিন্ন হয়ে কাজ না করলে হারানোর ভয় থাকবে। তাই সবাইকে সকল ভেদাভেদ ভুলে কাজ করতে হবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির আরো বক্তব্য রাখেন, কচুয়া উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি শাহজাহান শিশির, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান আমির হোসেন, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা ভুইয়া ফয়েজ উল্যাহ মানিক, সরকার জহির রায়হান প্রমুখ।

বক্তব্য রাখেন, কচুয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ইব্রাহিম খলিল বাদল, সিনিয়র সহ-সভাপতি মাহাবুবে রাব্বানি মানিক, সাধারন সম্পাদক এসএম জাকির হোসেন সবুজ, উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ন আহবায়ক মো: মেহেদী প্রমুখ। আলোচনা শেষে অতিথিবৃন্দ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কেক কাটেন। দ্বিতীয় পর্বে মনোজ্ঞ কনসার্ট অনুষ্ঠিত হয়।

শেয়ার করুন: