অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করতে গেলে কোন দলমত দেখা হবে না। : পানি সম্পদ সচিব

নিজস্ব প্রতিবেদক:

সারাদেশে নদ-নদী ও খালের অবৈধ দখল উচ্ছেদ বিষয়ে করণীয় নির্ধারণে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব এর সাথে চাঁদপুর জেলা প্রশাসক এর সাথে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৭ নভেম্বর) সকাল ১০টায় চাঁদপুর জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে মতবিনিময় সভায় পানি সম্পদ উন্নয়ন ও ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ভিডিও কনফারেন্সে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব কবির বিন আনোয়ার বলেন, বাংলাদেশ পানি বিধিমালা-২০১৮ অনুযায়ী এবং আরএস খাতিয়ান দেখে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সম্পত্তির সীমানা নির্ধারণ করা হবে। আমাদের মন্ত্রণালয়ের সাথে সীমানা নিয়ে যেসব মামলা রয়েছে সেগুলো আমাদের পক্ষেই আসছে। দেশের গনমাধ্যমেও সরকারের পক্ষে কাজ করছে।

তিনি বলেন, পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সম্পত্তিতে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করতে গেলে কোন দলমত দেখা হবে না। জেলা পর্যায়ে উচ্ছেদ অভিযান করতে গেলে জেলা প্রশাসন অবশ্যই মিডিয়ার লোকদেরকে পূর্ব থেকে অবহিত করবেন। উচ্ছেদকালে প্রশাসনের লোকজনও একটি ভিডিও ক্যামেরা সাথে রাখবেন। যদি কোন ব্যাক্তি উচ্ছেদ অভিযানে বাধা দিতে আসে তাকেও ক্যামেরা বন্ধি করে রাখবেন।

মতবিনিময় সভায় সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক মো. মাজেদুর রহমান খান বলেন, আগামী ২৩ ডিসেম্বর থেকে চাঁদপুরে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সম্পত্তিতে অবৈধ দখলদার উচ্ছেদ অভিযান শুরু হবে। উচ্ছেদ অভিযান প্রশাসন ও পানি উন্নয়ন বোর্ড যৌথভাবে পরিচালনা করবে। উচ্ছেদ অভিযান সফল করার জন্য পুলিশ প্রশাসন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, পানি উন্নয়ন বোর্ড, সাংবাদিক ও যারা অবৈধভাবে দখলে আছেন তাদেরকে আগামী ১০ নভেম্বর নোটিশের মাধ্যমে জানানো হবে। নোটি পাওয়ার পরে কোন ধরণের বাহানা চলবে না। কারণ আমরা পূর্ব থেকেই নোটিশের মাধ্যমে অবহিত করার ব্যবস্থা নিচ্ছি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোহাম্মদ শওকত ওসমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আব্দুল্লা আল মাহমুদ জামান, পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু রায়হান, চাঁদপুর জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী এস.এম. কবির, চাঁদপুর পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের উপপরিচালক ডাঃ মো. ইলিয়াছ, সহকারী কমশিনার (ভূমি) চাঁদপুর সদর অমিত চক্রবর্তী, জেলা পরিবেশ অধিদপ্তরের উপপরিচালক এ.এইচ.এম. রাসেদ, জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের প্রশিক্ষণ কর্মকর্তা নোয়াখেরুল ইসলাম, চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ড. এম.এ. গফুর, জেলা সমাজ সেবা অধিপ্তরের উপপরিচালক রজত শুভ্র সরকার প্রমূখ।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *