অল্পের জন্যে রক্ষা

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

ট্রেন চলা অবস্থায় চাঁদপুর শহরের মাতৃপীঠ স্কুল মোড়-ছায়াবানী-নতুনবাজার ব্যস্ততম সড়কের একটি রেলগেট খোলা থাকায় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে যাচ্ছিলো। রোববার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে শহরের ছায়াবানী রেলগেটে এই ঘটনা ঘটে। অল্পের জন্যে বড় ধরনের ট্রেন দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেয়েছে চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা চাঁদপুর বড় স্টেশনগামী সাগরিকা এক্সপ্রেস।

এ সময় ট্রেনটি মিশনরোড পার হয়ে রেলগেটের কাছাকাছি আসার সময় গেট খোলা পেয়ে প্রায় অর্ধশত যানবাহন ও বহু পথচারীর জটলা রেলগেট চত্বরে। ট্রেন আসছে দেখে গেট এলাকায় লোকজন চিৎকার শুরু করেন।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী চাঁদপুর শহরের উত্তর শ্রীরামদী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক শাহজাহান সিদ্দিকী তাঁর ফেসবুক পেজে লিখেন ট্রেন চালকের বুদ্ধিমত্তার কারনে সাগরিকা থেকে রক্ষা পেল পথচারীরা। ২২ মে সকাল ৭টা ৪০ মিনিটে সাগরিকা ট্রেনটি চট্টগ্রাম থেকে চাঁদপুরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসে। ট্রেনটি ১২টা ৩০ মিনিটে ছায়াবানিস্থ রেল গেইটের কাছাকাছি আসলে চালক দেখতে পায় রেল লাইনের দুই পাশের গেইট খোলা এবং পথচারীরা চলাচল করছে। চালক বুদ্ধি করে সতর্কতার উদ্দেশ্যে জোরে হুইসেল বাজায়। হঠাৎ হুইসেল শুনে পথচারীরা আতঙ্কিত হয়ে দ্রুত সটকে পড়ে।

এক ফল ব্যবসায়ী জানায়, গেইটের কাছাকাছি দূরত্বে ট্রেনটি হুইসেল দিলে তিনি দোকান থেকে লাফ দিয়ে নেমে গেইটের মাঝ বরাবর এসে তার দুই হাত দুই দিকে মেলে ধরে পথচারীদের চলাচলের গতিরোধ করার চেষ্টা করে।

এ বিষয়ে চাঁদপুর রেলওয়ে বড়স্টেশন মাস্টার মোঃ সোয়াইবুল সিকদার বলেন, সেখানকার গেইটকিপার জানিয়েছে সাগরিকা ট্রেন আসতেই ওই রেলগেটের দুই পার্শ্বে যানজট লেগে যায়। গেট কিপার রেলগেট বন্ধ করতে আপ্রাণ চেষ্টা করে। পরে ফ্লাগ উড়িয়ে চালককে সিগনাল দিয়ে সাবধানতার সাথে সাগরিকা ট্রেনটি ওই স্থানটি পার করা হয়।

শেয়ার করুন: