আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেলে জেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশগ্রহন করবো : মুন্না

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

আগামী ১৭ অক্টোবর চাঁদপুর জেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে চাঁদপুরের অনেক রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ নির্বাচন করার আগ্রহ প্রকাশ করছেন। নির্বাচনে অংশ নিতে অনেকেই তাদের কার্যক্রম হাতে নিয়েছেন। এসব রাজনৈতিক নেতার মধ্যে রয়েছেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কার্যনির্বাহী সদস্য।

আমরা মুক্তিযাদ্ধার সন্তান চাঁদপুর জেলা শাখা ও বঙ্গবন্ধু সাংকৃতিক জোট , চাঁদপুর জেলা শাখার সভাপতি চাঁদপুরের পরিচিত মুখ অ্যাড. জাফর ইকবাল মুন্না।

তিনি বলেছেন আওয়ামী লীগ দলীয় নমিনেশন দিলে আমি চেয়ারম্যান পদে জেলা পরিষদ নির্বাচন করতে চাই। তবে দলের বাইরে গিয়ে কখনোই নির্বাচন করার কোন ইচ্ছে বা আগ্রহ আমার নেই। চাঁদপুর জেলা পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার আগ্রহ নিয়ে জানতে চাইলে তিনি এক সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেন।

অ্যাড. জাফর ইকবাল মুন্না দীর্ঘ কয়েক যুগ ধরে চাঁদপুরের বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠন গুলোতে দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। তাই এবারের জেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ থেকে তাকে দলীয় মনোয়ন দিবেন বলে তিনি প্রত্যাশা করছেন।

পারিবারিক পরিচয় : এডভোকেট জাফর ইকবাল মুন্না

পিতা: সুবেদার (অব:) আবদুর রব( আটিলারী বিভাগ)

তার বাবা পাকিস্তান থেকে চাঁদপুর এসে আওয়ামী লীগ নেতাদের সাথে কথা বলে চাঁদপুরে মুক্তিযাদ্ধাদের চাঁদপুর মহিলা কলেজ মাঠে ট্রেনিং শুরু করান এবং চাঁদপুর জেলা সহ লাকসাম এবং রায়পুর উপজেলার দায়িত্ব নেন।

এছাড়া লাকসাম এবং রায়পুরে সকল যুদ্ধের নেতৃত্ব দেন। তার বাবা রব বাহিনীর নাম শুনলে হানাদার বাহিনী পালিয়ে যেতেন। যুদ্ধের শেষ সময়ে চাঁদপুরের ৭ টি ব্যাংকের চাবি তার বাবার কাছেই ছিলো। পরে দেশ স্বাধীন হওয়ার পর সরকারের কাছে তা জমা দেন।

চাঁদপুরে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ করেন এবং প্রতিষ্ঠাতা কমান্ডার ছিলেন (১৯৭২-৭৬)

পরবর্তিতে ১৯৯০ সালের পর তিনি মুক্তিযাদ্ধা সংসদের বিভিন্ন দায়িত্বে ছিলেন মৃত্যুর আগ পর্যন্ত । সারা জীবন সততার সাথে জীবন যাপন করেন। ২০০৮ সালে চাঁদপুর সরকারি হাসপাতাল চিকিৎসাধীন আবস্হায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

শেয়ার করুন: