আগুনে পুড়লো তিন বসতঘর : আতঙ্কে বৃদ্ধার মৃত্যু

মনিরা আক্তার মনি:

চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলায় আগুনে পুড়লো ৩ টি বসতঘর। এতে প্রায় ৭ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হয়েছে। আগুন লাগার খবরে আতঙ্কে এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে।

জানা যায়, রবিবার সন্ধ্যায় ৭ টার সময় মতলব উত্তর উপজেলার দূর্গাপুর ইউনিয়নের চৌমুহনী গ্রামের সরকার বাড়িতে বিধানের ঘরে বিদ্যুতের শর্টসার্কিট থেকে আগুন লেগে মুহূর্তের মধ্যে আগুনের লেলিহান শিখা পুরো ঘরে ছড়িয়ে পড়ে।

পরে পাশের ঘর তার ভাই সুমন সরকার ও বোন আলো রানীর ঘরে আগু ছড়িয়ে পড়ে। সুমন সরকারের ছেলে শ্রীকান্ত আগুন দেখে চিৎকার দিলে আশেপাশের লোকজন দৌড়ে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিলে ফায়ার সার্ভিস আসার আগেই স্থানীয়রা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

এদিকে আগুনের লেলিহান শিখা দেখে ভয়ে কিছু লোক দৌড়ে আত্ম রক্ষার চেষ্টা করে। পাশের বাড়ির মৃত কানাই শীলের স্ত্রী হরিদাসী (৯৫) ভয়ে দৌড়ে পালাবার সময় রাস্তা থেকে পুকুরের পানিতে পরে যায়। সেখানেই তার মৃত্যু হয়।

বিধানের স্ত্রী কানন বালা বলেন, আমরা পাশের ঘরে বসে টিভি দেখছিলাম। এমন সময় সুমনের ছেলে শ্রীকান্ত আগুন বলে চিৎকার দেয়। বেরিয়ে দেখি আগুন দাও দাও করে মুহূর্তের মধ্যে ৩ টি ঘরে লেগে যায়। আগুনের তাপে ঘরে প্রবেশ করা সম্ভব হয়নি। আগুন পুড়ে আমার কমপক্ষে ৩ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে।

সুমন সরকার বলেন, আমার ঘরে থাকা ফ্রিজ আলমারি ও আসবাবপত্রসহ ২ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে।

আলো রানী বলেন, স্বামীর অথ্যাচার সহ্য করতে না পেরে ২ সন্তান নিয়ে বাবার বাড়ি আশ্রয় নিয়েছি। আগুন আমার সেই আশ্রয়টুকু কেরে নিয়েছে। আমি এখন নিঃস্ব। আমার ঘর’সহ ২ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

মতলব উত্তর থানা পুলিশের ওসি মহিউদ্দিন জানান,আমরা ঘটনার স্থান পরিদর্শন করেছি। হরিদাসী বিদ্যুতের তারে আগুন লাগার খরব পেয়ে তিনি নিরাপদ স্থানে যাওয়ার সময় রাস্তা পাশে পুকুরে পানিতে পড়ে তার মৃত্যু হয়।

শেয়ার করুন: