আজ ফরিদগঞ্জে উপজেলার সর্ব বৃহৎ আই স্পোর্টস উন্মুক্ত ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল

ফরিদগঞ্জ প্রতিনিধি :

ফুলটবলের প্রতি মানুষের ভালোবাসার হৃদ্ধতা কতোটা তীক্ষ্ণ ক্রীড়ামোদী দর্শক কিংবা খেলোয়ার এমন ক্রীড়া পাগল মানুষদের জন্য ফুটবলের বড় কোন আয়োজন কতটা উৎসবের খোরাক হতে পারে এ যাবতকালে ফরিদগঞ্জ আয়োজিত আই স্পোর্টস ফুটবল টুর্নামেন্টের প্রতিটি খেলায় দুই হাজারের অধিক দর্শকের উপস্থিতি সেটারই বড় এক দৃষ্টান্ত।

ফরিদগঞ্জ উপজেলা ক্রীড়াঙ্গনের স্বপ্নদ্রষ্টা জিয়াউর রহমান আই স্পোর্টস উন্মুক্ত ফুটবল টুর্নামেন্ট ঘোষণায় পুরো উপজেলার ৩২ টি দল রেজিষ্ট্রেশন করেন অতপর নক আউট নিয়মে শুরু হয় উপজেলার সর্ববৃহত্ত ফুটবল টুর্নামেন্ট। ১৬ আগস্ট থেকে ১৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত প্রায় এক মাস জুড়ে ৩০ ম্যাচ আয়োজনের পর ১২ সেপ্টেম্বর ও ১৩ সেপ্টেম্বর টুর্নামেন্টে সেমিফাইনালে জয় লাভ করা টুনামেন্ট নিয়ে আজ (১ অক্টোবর শনিবার) বিকেলে ফরিদগঞ্জ এ আর পাইলট মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে টুর্নামেন্টের ফাইনালে মুখোমুখি হবে ‘টিম পজেটিভ’ বনাম ‘কড়ৈতলী উদয়ন যুব সংঘ’।

জমকালো এই টুর্নামেন্টের ফাইনালের আয়োজনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ফরিদগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও ফরিদগঞ্জ পৌরসভার মেয়র যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযুদ্ধা আবুল খায়ের পাটওয়ারী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিতি থাকবেন ফরিদগঞ্জ উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাসলিমুন নেছা, ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ শহীদ হোসেন, ফরিদগঞ্জ উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক নুরুন্নবী নোমান এবং আই স্পোর্টস উন্মুক্ত ফুটবল প্রধান স্পন্সর ও ফরিদগঞ্জ স্পোর্টস ক্লাবের সভাপতি আহসান হাবীব। ফরিদগঞ্জ পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের কমিশনার জাকির হোসেন গাজী ৭নং ওয়ার্ডের কমিশনার মোহাম্মদ হোসেন। ফাইনাল আয়োজন ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করবেন ফরিদগঞ্জ এ আর পাইলট মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রফিকুল আমীন কাজল। টুর্নামেন্টকে জমকালো করতে ফাইনাল আয়েজনে উপস্থিত থাকবেন দেশের ফুটবলের ক্রীড়াঙ্গনের উজ্জ্বল নক্ষত্র ফরিদগঞ্জের কৃতি সন্তান বাংলাদেশ ফুটবল দলের সাবেক অধিনায়ক ও ফরিদগঞ্জ ফুটবল একাডেমির সভাপতি রেজাউল করিম এবং বাংলাদেশ জাতীয় দলের ডিফেন্ডার ও সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের সাবেক অধিনায়ক রিয়াদুল হাসান রাফি।

ফাইনালে উঠা টিম পজিটিভ ফুটবল দলের ম্যানেজার মাহাবুব আলম সোহাগ দৈনিক মেঘনা বার্তার এই প্রতিনিধিকে জানান, টুর্নামেন্টের শুরু থেকে আমরা আমাদের টিম যথেষ্ট সুশৃঙ্খলভাবে ফুটবল খেলে ফাইনালে এসেছি। আমাদের এখনার স্থানীয় ফুটবলারদের সাথে চাঁদপুর সহ বাহিরের যেসব ফুটবলার দলে আছে সব মিলেয়ে খেলোয়াড়দের কম্বিনেশন বেশ ভালো। তাছাড়া মাঠের কন্ডিশন আমাদের খেলোয়াড়েরদের চিরচেনা তাই মাঠের খেলায় নিজেদের সেরা খেলতে পারলেই আমাদের শিরোফা অর্জন নিশ্চিত করতে পারবো।

ফাইনালে উঠা অপর দল কড়ৈতলী উদয়ন যুব সংঘ দলের টিম ম্যানেজার মোর্সেদ পরান দৈনিক মেঘণা বার্তার এই প্রতিনিধিকে জানান, যেহেতু বরাবরের মতো পুরো টুর্নামেন্টে আমরা ভালো খেলেই টুর্নামেন্টের ফাইনালে এসেছি। আমরা বিশ্বাস করি দলের ডিফেন্ডাররা পুরো টুর্নামেন্টের মতো ভালো খেলতে পারলে টুর্নামেন্টের এই আসরটিতে আমরা চ্যাম্পিয়ন হবো।

সফলতম এই টুর্নামেন্ট আয়োজনের বিষয়ে এই টুর্নামেন্টের প্রধান উদ্যোগক্তা জিয়াউর রহমান জিয়া জানান, এই টুর্নামেন্ট আয়োজনে সকল ধোঁয়াশা কাটিয়ে আমরা সফলতার দ্বার প্রান্তে। ক্রীড়াঙ্গন সরব রাখতে সামনের দিনগুলোতে প্রতিবছর এমন আয়োজন করার উদ্যোগ নিবো, দর্শক এবং দল গুলোর প্রতি আমরা একান্ত কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি কারন ৩২টি দল ও দর্শকদের কারনে ফুটবলের এমন আয়োজনটি অসাধারণ হয়ে উঠেছে। এছাড়া এই আয়োজনের প্রধান স্পন্সর আহসান হাবীবের কাছে আমরা কৃতজ্ঞ কারন উপজেলার ক্রীড়াঙ্গনের সকল আয়োজনে তিনি পরম আন্তরিকতায় এগিয়ে আসেন।

ফাইনালে আয়োজনে চ্যাম্পিয়ন ও রানাসআপ দলকে চ্যাম্পিয়ন ও রানারআপ ট্রফি, প্রাইজমানি, এবং প্রত্যেক খেলোয়ারকে মেডেল প্রদান ছাড়াও পুরো টুর্নামেন্টের ম্যান অফ দ্যা টুর্নামেন্ট,
সেরা গোল রক্ষক,সেরা গোল দাতা, সেরা টিম ম্যানেজারদের হাতে পুরস্কার তুলে দেয়া হবে। পুরো টুর্নামেন্ট পরিচালনায় প্রধান রেফারি দায়িত্বে ছিলেন জিয়াউর রহমান জিয়া এবং আনোয়ার হোসেন সজিব ও সহকারী রেফারির দায়িত্বে ছিলেন গিয়াস উদ্দিন ও নোমান শান্ত।

শেয়ার করুন: