উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে একযোগে সবাইকে কাজ করতে হবে: অঞ্জনা খান মজলিশ

চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ বলেছেন, বিশ্ব এখন বাংলাদেশের উন্নয়নের দিকে তাকিয়ে আছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন এদেশের কেউ গৃহহীন থাকবে না, তা তিনি বাস্তবায়ন করছেন। পদ্মা সেতু, রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে নানা উন্নয়ন এখন দৃশ্যমান। এ উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে একযোগে সবাইকে কাজ করতে হবে।

রবিবার (২৮ মার্চ) বিকালে চাঁদপুর স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের এক অনন্য অর্জন স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ উপলক্ষে দেশব্যাপী উদযাপন অনুষ্ঠানের অংশ হিসেবে চাঁদপুরে ২ দিনব্যাপী উদযাপন মেলার সেমিনার, সাংস্কৃতিক ও সমাপনী অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

জেলা প্রশাসক আরো বলেন, বর্তমানে যুবকেরা কাজ করতে আগ্রহী। তাদের কাজের প্রতি আগ্রহের কারণে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এদেশের অগ্রযাত্রাকে ধরে রাখতে হলে সুশৃঙ্খল থাকতে হবে। যার যার অবস্থান থেকে নিজের দায়িত্ব পালন করতে হবে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কথা অনুসারে সত্যিই এদেশকে কেউ দাবায়ে রাখতে পারবে না।

জেলা প্রশাসক মেলার স্টলে অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠানকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, আপনাদের উন্নয়নের চিত্র জনসাধারণের মাঝে তুলে ধরতে হবে।

মঞ্চে আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চাঁদপুরের পুলিশ সুপার মোঃ মিলন মাহমুদ বিপিএম (বার)। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামান’র সঞ্চালনায় আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল, প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটওয়ারী,কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মোঃ জালাল উদ্দিন, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ শাহাবুদ্দিন প্রমূখ।

এসময় মঞ্চে অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) দাউদ হোসেন চৌধুরী, পুরান বাজার ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ রতন কুমার মজুমদার।

আলোচনা সভা শেষে আয়োজিত মেলার স্টলগুলোর মধ্য থেকে ৫টি স্টলকে পুরস্কৃত করা হয়। এছাড়াও সমাজসেবা অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে দুরারোগ্য ৯জন রোগীকে ৫০ হাজার টাকা করে চেক প্রদান করা হয়।

সমাপনী দিনে সকাল থেকেই চিত্রাঙ্কন, উপস্থিত কুইজ ও বিতর্ক প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়াও চাঁদপুরের বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের সমন্বয়ে মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।

Recommended For You

About the Author: News Room

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *