কচুয়ায় ব্যবসায়ীকে মারধর ও মুক্তিপন দাবির অভিযোগ

কচুয়া প্রতিনিধি ॥

কচুয়া উপজেলার উজানী গ্রামে এক কাচাঁমাল ব্যবসায়ীকে সুকৌশলে ডেকে নিয়ে আটকিয়ে রেখে মারধর করে মুক্তিপন দাবি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থ ও হামলার শিকার করইশ গ্রামের অধিবাসী মনির হোসেন বাদী হয়ে সোমবার উজানী এলাকার মাসুদ,তার স্ত্রী পারভীন বেগমসহ ৫জনকে আসামী করে কচুয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

বাদীর লিখিত অভিযোগ ও স্থানীয় এলাকাসূত্রে জানা গেছে, কচুয়া পৌরসভাধীন করইশ গ্রামের মৃত সামাদ মিয়ার ছেলে মনির হোসেন কচুয়া বাজারসহ বিভিন্ন এলাকায় ভ্যারাইটিজ মালামালের ব্যবসা করে আসছেন। তুলপাই আল ফাতেহা মাদ্রাসার ক্যান্টিনে মালামাল দেয়ার সুবাধে একই এলাকার উজানী গ্রামের জনৈক সালমা বেগমের সাথে তার পরিচয় হয়।

পরবর্তীতে ওই পরিচয়ের সুবাধে মনির হোসেন, সালমা বেগমের মেয়ে পারভীন আক্তারকে মালামাল বকেয়া দেয়া-নেয়াসহ বিভিন্ন সময় ২৫ হাজার টাকার মালামাল বকেয়া ও ৩৫ হাজার টাকা ধার দেন। এক পর্যায়ে ২ নভেম্বর মনির হোসেনকে পাওনা টাকা এবং বকেয়া টাকা ফেরত দেয়ার কথা বলে পারভীন বেগম মোবাইলে তাদের বাড়িতে ডেকে নিয়ে কৌশলে হাত পা বেধে আটকে রেখে ব্যাপক মারধর করে এবং মিথ্যা অপবাদ দিয়ে ২লক্ষ টাকা মুক্তিপন দাবি করে। এক পর্যায়ে তার পরিবার ৬০ হাজার টাকা পরিশোধ করলে ২দিন পর রাতে তাকে কুমিল্লা এলাকায় অজ্ঞাত স্থানে ছেড়ে দেয়।

খবর পেয়ে তার পরিবার মনির হোসেনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে কচুয়া হাসপাতালে ভর্তি করে এবং অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কচুয়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এব্যাপারে কচুয়া থানার এসআই আবু বকর সিদ্দিক জানান, বাদীর লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে দায়ীদের বিরুদ্ধে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেয়ার করুন: