কচুয়ায় মাদ্রাসা ছাত্র ধর্ষণের ঘটনায় শিক্ষক আটক

আরমগীর তালুকদার:

কচুয়া উপজেলার গোহট উত্তর ইউনিয়নের সাতবাড়িয়া তালিমুল ক্বওমী মাদ্রাসার ছাত্রকে বলৎকারের ঘটনায় ওই মাদ্রসার শিক্ষক মো:ওমর ফারুকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ।

জানাগেছে ওই মাদ্রাসার নাজেরা বিভাগের ১৪ বছরের আবাসিক ছাত্রকে সোমবার শিক্ষকদের ব্যবহৃত বাথরুমে জোরপূর্বক ডেকে নিয়ে শিক্ষক ওমর ফারুক বলৎকার করে। মঙ্গলবার বিকেলে কৌশলে ছাত্রটি পালিয়ে বাড়িতে গিয়ে তাকে জোরপূর্বক বলৎকারের কথা তার বাবা ও মাকে জানায়।

স্থানীয়রা জানতে পেরে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মাদ্রাসা ঘেরাও করে ও মাদ্রাসার জানালা ভাংচুর করে।এ সময় উত্তেজিত জনতা উপজেলার আকিয়ারা গ্রামের মোবারক হোসেনের পুত্র মাদ্রাসার শিক্ষক ওমর ফারুকের মাধা ন্যাড়া করে দেয় এবং বিক্ষোভ মিছিল করে ধর্ষক ওমর ফারুকের দৃষ্টন্তমূলক শাস্তির দাবী জানায় ।

সংবাদ পেয়ে কচুয়া থানার এসআই মকবুল হোসেন সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ওমর ফারুককে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। রাতে মাদ্রাসার ছাত্রের পিতা পিতা তৌহিদুল ইসলাম ওমর ফরককে বিবাদী করে কচুয়া থানায় নারী ও শিশু ধমন আইনে মামলা দায়ের করে। বুধবার ধর্ষক ওমর ফারুককে চাঁদপুরের বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করে।মাদ্রাসার শিক্ষক ওমর ফারুক বলেন ছাত্রকে মারধর করায় ষড়যন্ত্র করে আমাকে ফঁসানো হয়েছে।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *