কচুয়ায় শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীদের শ্লীলতাহানীর অভিযোগ

কচুয়া প্রতিনিধি ॥

কচুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম সুমনের বিরুদ্ধে ছাত্রীদের শ্লীলতাহানীর অভিযোগ উঠেছে। ওই বিদ্যালয়ের বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থীর অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে (২৪ আগস্ট) বুধবার বিদ্যালয় পরিদর্শণ করেন উপজেলা শিক্ষা অফিসার এএইচএম শাহরিয়ার রসুল।

ওই বিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা জানান, সহকারী শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম সুমন প্রায়ই বিদ্যালয়ের কোমলমতি শিক্ষার্থীদের বিভিন্নভাবে উত্যক্ত করে আসছে। এ অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতিকে বিষয়টি প্রতিকার চেয়ে অবহিত করা হয়।

বুধবার বিদ্যালয়ের বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থীদের কাছে উত্যক্তের বিষয়ে জানতে চাইলে তারা জানান, সহকারী শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম সুমন প্রায়ই তাদের শরীরের বিভিন্ন স্থানে স্পর্শ করে উত্যক্ত করে আসছে। যার ফলে আমরা ওই শিক্ষকের কাছ থেকে নিরাপদ দুরে থাকার চেষ্টা করে আসছে। এরপরেও পড়া দেয়া নেয়াসহ বিভিন্ন অজুহাতে আমাদেরকে স্যারের নিকট যেতে বাধ্য করে আমাদের শরীরে স্পর্শ করে উত্যক্ত করে আসছে।

শিক্ষার্থীদের অভিভাবক মহলে বিষয়টি জানাজানি হলে, অভিভাবকগন তাদের সন্তানদের নিয়ে উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠায় রয়েছেন।

এব্যাপারে বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বলেন, গত ২১ আগস্ট শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে বিষয়টি শুনার পর ওই শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম সুমনকে এ ধরনের কর্মকান্ড পরিত্যাগ করতে বলেছি।

বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি জাকির হোসেন বাটা বলেন, বিষয়টি জানতে পেরে প্রতিকার চেয়ে আমি উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে অবহিত করি।

উপজেলা শিক্ষা অফিসার এএইচএম শাহরিয়ার রসুল বলেন, বিষয়টি জানতে পেয়ে আমি বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের জিজ্ঞাসাবাদের মাধ্যমে এ অভিযোগের সত্যতা পাই। সহকারী শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম সুমনকে ক্লাস করা থেকে বিরত থাকতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

শেয়ার করুন: