করোনা উপসর্গ নিয়ে চাঁদপুরে ১২ ঘন্টার ব্যবধানে ৫ জনের মৃত্যু

মেঘনাবার্তা ডেস্ক :

চাঁদপুরের করোনা উপসর্গ নিয়ে ১২ ঘন্টার ব্যবধানে ৫ জন মৃত্যুবরণ করেছে। রাতে সদর হাসপাতালের আইসোলেশনে চাঁদপুর সদর উপজেলার কল্যান্দি ইউনিয়নের ১ জন মারা গেছেন। তার ননাম আব্দুর রাজ্জাক (৭০), তিনি ভর্তি হয়েছে গত রাতে। অন্যজন লাকী বেগম (৩৪), কল্যান্দী।তিনি ভর্তি হয়েছে সকালে। সকালেই মারা গেছেন।

মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টায় উপজেলার হাটিলা পূর্ব ইউনিয়নের বলিয়া গ্রামে মজিবুর রহমান নামে (৭০) বছরের এক বৃদ্ধা বুধবার সকাল সাড়ে ৮টায় মারা যায়। একই গ্রামের হাজীগঞ্জ বাজারের ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর আলম (৬০) রাতে মারা যায়।

বুধবার রাত আড়াই টায় চাঁদপুর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে করোনা উপসর্গ নিয়ে চাঁদপুরের সদরের বাগাদী ইউনিয়নের আবু তাহের ভূইয়া (৬০) নামের এক ব্যক্তি করোনা উপসর্গ নিয়ে নিহত হয়।

পারিবারিক ও হাসপাতাল সূত্রে জানাযায়, হাজীগঞ্জের বলিয়া গ্রামের নিহত মজিবুর রহমানের ছেলে মনির হোসেন মুঠো ফোনে জানান, আমার বাবা কয়েকদিন দিন ধরে জ¦র, সর্দি, কাশিসহ আরো নানান রোগে ভূগছিলেন। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টায় নিহত হয়।

এলাকার কোন লোকই আমাদের সহযোগিতা করেনি বরং সবাই পালিয়ে যায়। পরে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আফাজাল স্যারের সাথে যোগাযোগ করি। স্যার নিজেই এসে উপজেলা দাফন কাফন কমিটির সহযোগিায় বুধবার সকাল সাড়ে ৭টায় দাফন সম্পন্ন করি।

অপর দিকে বুধবার সকাল সাড়ে ৮টায় নিহত একই গ্রামের বাসিন্দা হাজীগঞ্জ বাজারের ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর আলম (৬০)কেও ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের টিম দাফন কাফনের ব্যবস্থা করেন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আফজাল হোসেন জানান, হাজীগঞ্জের বলিয়ায় নিহত মজিবুর রহমানের মৃতদেহ রাতে বাড়ীতে পড়ে থাকলেও এলাকার কোন জনপ্রতিনিধি এগিয়ে আসেনি। ভোরে আমি নিজে গিয়ে তাদেরকে ফোন করি তবুও তারা আসেনি। পরবর্তীতে রিপোর্ট করার কথা বললে তারা এগিয়ে আসে।

তিনি বলেন, যারা মৃত্যুবরণ করেন, তাদের দাফন কাপনে এগিয়ে আসা সামাজিকভাবে সবার কর্তব্য। অবহেলা করে দূরে থাকা অন্যদেরকে দাফন কাপনে আসতে বারণ করা এটা সমাজের প্রতি একটি অনিহা। এদেরকে সামাজিকভাবে চিহ্নিত করতে হবে।

বুধবার রাত সাড়ে ২টা ৪০ মিনিটে চাঁদপুর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে করোনা উপসর্গে নিহত চাঁদপুরের সদরের ইউনিয়নের বাগাদী ইউনিয়নের পশ্চিম বাগাদী গ্রামের ভূইয়া বাড়ীল নিহত আবু তাহের ভূইয়া (৬০)। এর দাফন সকালে জেলা ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের টিম দাফন সম্পন্ন করেছে।

হাসপাতাল সূত্রে জানাযায়, বুধবারই শ্বাস কষ্ট নিয়ে আবু তাহের সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়। রাতেই মৃত্যুবরণ করেন।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *