করোনা প্রতিরোধে ২৪ ঘন্টা’ই ডা. সাগরের ফ্রি মোবাইল চিকিৎসা

নিজস্ব প্রতিবেদক :

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে বিনামূল্যে জনগণকে ২৪ ঘন্টা’ই চিকিৎসা ও সচেতনতামূলক পরামর্শ দিচ্ছেন চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক এবং জেলা বিএমএ’র সাবেক সভাপতি ডা. হারুন-অর-রশিদ (সাগর)।

করোনা আতঙ্কে যখন কোনো কোনো চিকিৎসাকর্মী ও সমাজকর্মী নিজেকে গুটিয়ে রেখেছেন তখন ডা. হারুন অর রশিদ সাগর সার্বক্ষণিক নিজেকে মানবসেবায় নিয়োজিত রাখার ঘোষণা দিয়েছেন। গত ১৭ মার্চ থেকে তিনি তার নিজ চেম্বারে এবং ২৫ মার্চ থেকে নিজের মোবাইল ফোন নাম্বারের (০১৭২৭২৩৬১০১) মাধ্যমে জনসাধারণকে স্বাস্থ্যসেবামূলক পরামর্শ দিচ্ছেন।

তিনি জানান, প্রতিদিন প্রচুর ফোন আসছে তার কাছে। সবচেয়ে বেশি ফোন আসছে চাঁদপুর শহর, সদর ও ফরিদগঞ্জ থেকে। তিনি সবাইকে পরামর্শ দিচ্ছেন এবং ঔষধের নাম বলে দিচ্ছেন এবং যারা নাম লিখতে পারেন না তাদেরকে মেসেজে, ইমুতে, মেসেঞ্জা, হোয়াটসঅ্যাপে লিখে দিচ্ছেন। এতে হাসপাতালে না এসেই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের বিনামূল্যে সেবা পাচ্ছেন সব শ্রেণির মানুষ।

তিনি এই প্রতিবেদককে জানান, দলমত নির্বিশেষে সবার জন্য আপনার মোবাইল ফোন ২৪ ঘন্টা’ই খোলা। চিকিৎসা সংক্রান্ত প্রয়োজন হলে যে কেউ ফোন করতে পারেন। আমি দিন-রাত সব সময় ফোন রিসিভ করার জন্য প্রস্তুত। জরুরী কোনো কারণে যদি কারো ফোন রিসিভ করতে না পারি তবে পরে ফোন ব্যাক করি।

চট্টগ্রাম মিডিকেল কলেজ ছাত্রসংসদের এই সাবেক ভিপি বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আমি নিজ চেম্বারে ফ্রি রোগী দেখা শুরু করি এবং আমার বেলভিউ হসপিটালে (তিনি এই হাসপাতালের এমডি) আগত সকল ধরনের রোগী চিকিৎসা সেবা নিচ্ছেন ৩০-৪০ শতাংশ কম খরচে। কিন্তু করোনা ভাইরাস বর্তমানে বিশ্বে মহামারী পরিস্থিতি তৈরি করেছে, তাতে করে বাংলাদেশ সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন, তার মূল কথা হলো সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলা, আর এই মুহূর্তে গণপরিবহন বন্ধ থাকায় সাধারণ মানুষ ঘর থেকে বের হতে পারে না। তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একজন ক্ষুদ্র কর্মী হিসেবে মানুষের পাশে থাকার চেষ্টায় আমার এই প্রয়াশ।

তিনি আরো বলেন, যতদিন যাবৎ করোনাভাইরাসের সমস্যা থাকবে ততদিন আমি এই ফোনে চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাবো। তিনি জেলাবাসীর উদ্দেশ্য বলেন, আপনারা ঘরে থাকুন, সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলুন। দিনে কয়েকবার সাবান দিয়ে হাত ২০-৩০ সেকেন্ড ধরে ধুয়ে নিন। তবেই আপনি নিজে, পরিবার, সমাজ এবং দেশ ভালো থাকবে। পাশাপাশি সরকারি নির্দেশ মেনে সবাই ঘরে থাকুন।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *