কোস্টগার্ডের অভিযানে ৩ লক্ষ ৭০ হাজার মিটার কারেন্ট জাল জব্দ

কোস্টগার্ড স্টেশান চাঁদপুর এবং মৎস্য অধিদপ্তরের যৌথ মা ইলিশ রক্ষা অভিযানে ৩ লক্ষ ৭০ হাজার মিটার জাল জব্দ।শনিবার সকাল ৮টা হইতে বিকেল ৫টা পর্যন্ত অভিযান চলাকালীন সময়ে চাঁদপুর আহনঘাঁট,হরিনা,
আলুবাজার,ঈসানবালা,কাটাখালী,চিলিরমোড়,হাইমচর,আমতলা,চরভৈরবি,আলতাফ মাস্টার ঘাঁট,রাইপুর,হিজলারচর,মাঝের চরসহ পাশবর্তী এলাকা সমূহ টহল কালীন সময় নদীতে পাতানো অবস্থায় ১ লক্ষ মিটার সুতার জাল সাথে ৪০ কেজি সমপরিমান মা ইলিশ এবং ০৩ টি ইন্জিন চালিত কাঠের নৌকা উদ্ধার করে কোস্টগার্ড স্টেশান চাঁদপুর।

উদ্ধার পরবর্তী কারেন্টজাল সমূহ আগুনে পুড়ে বিনষ্ট করা হয়। নৌকা সমূহ আইনি প্রক্রিয়ার জন্য মৎস অধিদপ্তরের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এবং মা ইলিশ সমূহ মৎস অধিদপ্তরের উপস্থিতিতে ০৩ টি মাদ্রাসা এবং এতিম খানায় বিতরন করে দেওয়া হয় । এ সময় উপস্থিত ছিলেন কোস্টগার্ড স্টেশান চাঁদপুরের স্টেশান কমান্ডার লেফটেন্যান্ট নাহিদ,(এক্স) বিএন, কন্টিনজেন্ট কমান্ডার মাইনুল, পিও (সিডি) এবং মৎস সম্প্রসারন কর্মকর্তা মাহবুব এবং তাজিরুল ইসলাম প্রমূখ ।

পৃথক পৃথক অভিযানে অদ্য সকাল ৬ টা হইতে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত কোস্টগার্ড আউটপোস্ট হাইমচর এবং মৎস্য অধিদপ্তর হাইমচর কর্তৃক অভিযান চলাকালীন সময় চাঁদপুর সদর উপজেলার অহনঘাঁট, হরিনা, আলুবাজার, গাজিপুর,চর কাটাখালি এবং পাশবর্তী এলাকা সমূহে নদীতে পাতনো অবস্থায় প্রায় ১লক্ষ ৫০ হাজার মিটার সুতার জাল এবং এ সময় জালের সাথে প্রায় ৫০ কেজি সমপরিমান মা ইলিশ এবং ০১ টি ইন্জিন চালিত কাঠের নৌকা উদ্ধার করতে সক্ষম হয় কোস্টগার্ড।

উদ্ধারকৃত জাল আগুনে পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়। জব্দকৃত মাছ স্থানীয় গরিব এবং দুস্ত মানুষের মধ্যে বিলি করে দেওয়া হয় । এসময় উপস্থিত ছিলেন কোস্টগার্ড হাইমচরের কন্টিনজেন্ট কমান্ডার শহিদুল,এমসিপিও(এক্স), মৎস্য সম্প্রসারন কর্মকর্তা মিজানুর রহমান প্রমুখ।

এছাড়া ও ভোর ৪ টা হইতে সকাল ৮ টা এবং ৯ টা ৩০ মিনিট থেকে বিকাল ৫ পর্যন্ত কোস্টগার্ড কন্টিনজেন্ট চরজালিয়া (রায়পুর) এবং মৎস অধিদপ্তরের যৌথ অভিযানে মেঘনা নদির সাজুমোল্লার ঘাঁট,কাটাখালি, চন্দ্রাখাল, মাঝের চর এবং পাশ্ববর্তী এলাকা সমূহে অভিযান পরিচালনা করে ৪০ হাজার মিটার কারেন্ট জাল এবং ৩০ কেজি সমপরিমাণ মা ইলিশ এবং ০১ টি ইন্জিন চালিত কাঠের নৌকা উদ্ধার করা হয়।

উদ্ধারকৃত মাছ সমূহ স্থানীয় এতিম খানায় বিলি করে দেওয়া হয়, জল পুড়িয়ে বিনষ্ট করা হয় এবং ইন্জিন চালিত কাঠের নৌকাটি মৎস অধিদপ্তরের কাছে আইনি প্রিক্রয়ার জন্য হস্তান্তর করা হয় ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন কোস্টগার্ড চরজালিয়ার কন্টিনজেন্ট কমান্ডার লুৎফর রহমান,সিপিও, মৎস্য কর্মকর্তা বেলায়েত হোসেন প্রমুখ।

এ ছাড়া ও বিসিজিএস রাঙ্গামাটি কর্তৃক সকাল ৮টা হইতে বিকাল ৫টা পর্যন্ত মোহনা, আনন্দবাজার, লালপুর, লগিমারার চর, রাজরাজেশ্বর এলাকায় টহল প্রদান কালে ৮০ হাজার মিটার কারেন্টজাল এবং ৫০ কেজি মা ইলিশ উদ্ধারে সক্ষম হয় কোস্টগার্ড জাহাজ রাঙ্গামাটি। জাল সমূহ কোস্টগার্ড স্টেশান চাঁদপুরের সমন্বয়ে এবং মৎস কর্মকর্তার উপস্থিতিতে পুড়িয়ে ফেলা হয়। এবং মাছ সমূহ স্থানীয় এতিম খানায় বিতরন করা হয়।

Recommended For You

About the Author: News Room

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *