গরু চুরির অপবাদ দিয়ে কচুয়ায় সিএনজি চালককে মারধর

কচুয়া প্রতিনিধি:

চাঁদপুরের কচুয়ার রঘুনাথপুর বাজার সংলগ্ন কাদলা গ্রামে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে গরু চুরির মিথ্যা অপবাদ দিয়ে কাউছার আলম (২৮) নামের এক নিরীহ সিএনজি চালক মধ্যযুগীয় কায়দায় মারধরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় মারধরের শিকার সিএনজি চালক কাউছার আলমের মা আরবের নেছা বাদী হয়ে একই গ্রামের জহিরুল ইসলাম,শাহ আলম,শাহ জালাল ও জুয়েলকে আসামী করে কচুয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এছাড়া শনিবার অভিযুক্তদের শাস্তির দাবিতে রঘুনাথপুর বাজারে বিক্ষোভ প্রতিবাদ মিছিল করেছে স্থানীয় এলাকাবাসী।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার ভোর রাতে জহিরুল ইসলামকে ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এলাকায় সন্দেহভাজন ঘুরাফেরা দেখতে পেয়ে কাউছার আলম ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে মারধর করে টেনে হেচঁড়ে মিথ্যা চুরির অপবাদ দিয়ে জহিরুল ইসলামের ঘরের বিল্ডিং এর সাথে বেধেঁ রাখে বলে অভিযোগে উল্লেখ করেন।

কাউছার আলমের স্ত্রী তানিয়া আক্তার,স্থানীয় কবির হোসেন,জিসানসহ একাধিক লোকজন জানান, কাউছার আলম একজন নিরীহ ব্যক্তি। এলাকায় তার কোনো অপবাদ নেই। তার উপর যে জুলুম অত্যাচার করা হয়েছে এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। কাউছার আলম বর্তমানে কুমিল্লা মেডিকেল হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে বলে তারা জানান।

এদিকে অভিযুক্ত জহিরুল ইসলাম বলেন, কাউছার আলম আমাদের গরু চুরি করতে চেষ্টা করায় তাকে মারধর করা হয়েছে।

ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম বলেন, সিএনজি চালক কাউছার আলম খুবই ভালো ছেলে তার উপর অন্যায় ভাবে নির্যাতন করা হয়েছে।

ওসি মো. মহিউদ্দিন জানান, কাদলা গ্রামের মারধরের বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনাটি তদন্ত চলছে।

শেয়ার করুন: