ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ের প্রভাবে চাঁদপুরে বৈরী আবহাওয়া

জেলা প্রতিনিধি, চাঁদপুুর ॥

ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ের প্রভাবে চাঁদপুরে বৈরী আবহাওয়া বিরাজ করছে। ২৩ অক্টোবর রবিবার বিকেল থেকেগুড়ি গুড়ি বৃষ্টি হচ্ছে।এদিকে যে কোন ধরনের পরিস্থিতি মোকাবেলায় সতর্ক অবস্থানে রয়েছে চাঁদপুর জেলা প্রশাসন।

চাঁদপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, সব ধরনের প্রস্তুতি গ্রহণ করা হচ্ছে। প্রত্যেকটি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে সতর্ক অবস্থানে থাকার জন্য।

চাঁদপুর নদী বন্দর কর্মকর্তা মো:শাহাদাত হোসেন জানান, সিত্রাংয়ের মোকাবেলায় চাঁদপুর নদী বন্দর এলাকায় জন্য একটি কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। আমাদের কর্মকর্তা -কর্মচারীরা সমন্বয় করবে। অবস্থান বুঝে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। আজকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত দুই নম্বর সতর্ক সংকেত ছিল। এখন রাত ১টা পর্যন্ত এক নম্বর সতর্ক সংকেত থাকবে । বৈরী আবহাওয়া পরিস্থিতিতে আমাদের পর্যবেক্ষণ রয়েছে এবং এখন পর্যন্ত পরিস্থিতি স্বাভাবিক।

চাঁদপুর আবহাওয়া অধিদপ্তরের ওয়্যারলেস সুপারভাইজার মো: সোয়েব জানান, ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ের চাঁদপুরে বৃষ্টি পাতের পরিমান ৩৫.৬। আপাতত ৪ নম্বর সতর্ক সংকেত অব্যাহত রয়েছে। গভীর নিম্নচাপটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নেওয়ার পর বন্দরগুলোতে সতর্ক সংকেত বাড়িয়ে দেওয়া হবে। ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে ৩ থেকে ৫ ফুট উচ্চতার জলোচ্ছ্বাস সৃষ্টি হতে পারে । তাছাড়া আগামী ২৫ অক্টোবর সকালে উপকূলীয় এলাকা অতিক্রম করতে পারে। এর প্রভাবে সোমবার রাতে ভারী বৃষ্টি হতে পারে।

ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ের বিষয়ে রাজরাজেশ্বর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হযরত আলী বেপারী জানান, জেলা প্রশাসন ও উপজেলা প্রশাসনের নির্দেশনা অনুযায়ী আজ বিকালে ইউনিয়নের সকল মসজিদে, বাজারে ও এলাকায় মাইকিং করে লোকজনকে ঘূর্ণিঝড় সম্পর্কে সতর্ক করে দেয়া হয়েছে। সকলকে নিরাপদে থাকার জন্য বলা হয়েছে।

চাঁদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত)হেলাল চৌধুরী জানান,ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ের প্রভাবে চাঁদপুর সদরের নদী উপকূলীয় এলাকাসহ উপজেলার ৭৮টি আশ্রয় কেন্দ্র ও সাইক্লোন সেন্টার প্রস্তুত করা হচ্ছে। সকল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানদেরকে সতর্ক থাকার জন্য নির্দেশ দিয়েছি। প্রশাসনের সাথে জনপ্রতিনিধিদের সার্বক্ষনিক যোগাযোগ রয়েছে।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ইমতিয়াজ হোসেন জানান, ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ের বিষয়ে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রালয়ের আমাদের মিটিং করা হয়েছে। আমরা ইউএনওদের নির্দেশা দিয়েছি। তারা আগামীকাল জনপ্রতিনিথিদের সাথে মিটিং করবে। নৌযান চলাচলের ব্যপারে বিআইডব্লিউটিএ কর্মকর্তাদের নিদেশা দিয়েছি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য। এছাড়া চাঁদপুর সদর ও হাইমচরে নদীর র্তীরভর্তি চরাঞ্চল এলাকার মানুষদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে আনার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।

শেয়ার করুন: