চাঁদপুরসহ সারাদেশে ১৭ হাজার ৫টি বাসগৃহ উদ্বোধন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন,আমাদের দেশে বন্যা হবে,খরা হবে,ঘূর্ণিঝড় হবে,জলোচ্ছ্বাস হবে,অগ্নিকান্ড হবে। সেসব প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলা করে আমাদের বাঁচতে হবে। প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষা করে দেশের সার্বিক উন্নয়ন করা এবং দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া সেটাই আমাদের লক্ষ্য।

১৩ অক্টোবর, মঙ্গলবার আন্তর্জাতিক দুর্যোগ ঝুঁকি হ্রাস দিবস ২০২০ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ডা.এনামুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান মো. এ বি তাজুল ইসলাম এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো.মহসিন বক্তব্য দেন।

অনুষ্ঠানে ডিজিটাল পদ্বতিতে ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরের গ্রামীন অবকাঠামো সংস্কার(কাবিটা) কর্মসূচির আওতায় নির্মিত দুর্যোগ সহনীয় চাঁদপুরসহ সারাদেশে ১৭ হাজার ৫টি বাসগৃহ উদ্বোধন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে ডা.এনামুর রহমান দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় বিশেষ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ৪২ জন পুরুষ এবং ৪২ জন নারীর মাঝে পদকও বিতরণ করেন।

এরপরই চাঁদপুরে‘দুর্যোগ ঝুঁকি হ্রাসে সুশাসন নিশ্চিত করবে টেকসই উন্নয়ন’এ প্রতিপাদ্য বিষয় নিয়ে চাঁদপুরে আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে চাঁদপুর জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে এ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন চাঁদপুর জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান খান।

তিনি বলেন আমরা দুর্যোগ থেক অনেক ভালো আছি। দুর্যোগকালীন সময়ে সরকারের তরফ থেকে ব্যাপক কাজ সম্পন্ন হয়েছে এবং আরো কাজ করতে হবে।

সভায় সভাপতিত্ব করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামান।বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,জেলা ত্রান ও পুর্নবাসন কর্মকর্তা কে,বি,এম জাকির হোসেন,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হেড কোয়ার্টার) মো: আসাদুজ্জামান।

আরও উপস্থিত ছিলেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইমরান মাহমুদ ডালিম,রেভিনিউ ডেপুটি কালেক্টর মোঃ উজ্জ্বল হোসেন, চাঁদপুর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপ-সহকারী পরিচালক মোঃ ফরিদ উদ্দিন,জেলা স্কাউটের সাধারণ সম্পাদক অজয় ভৌমিক প্রমূখ।

চাঁদপুর জেলায় ২০১৯-২০২০ অর্থবছরে গ্রামীন অবকাঠামো সংস্কার (কাবিটি)কর্মসূচির আওতায় নির্মিত দুর্যোগ সহনীয় বাসগৃহ ৩শ’৯১টি এর মধ্যে উপজেলা ভিত্তিক তথ্য হলো-চাঁদপুর সদর ৩৬টি,হাইমচর ৭২টি,হাজিগঞ্জ ৬১টি,কচুয়া ৪২টি,মতলব উত্তর ৪৮টি,শাহরাস্তি ৪৮টি,ফরিদগঞ্জ ৪২টি, মতলব দক্ষিণ ৪২টি। প্রতিটি ঘরের নির্মান ব্যয় ২ লাখ ৯৯ হাজার ৮৬০ টাকা।

Recommended For You

About the Author: News Room

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *