চাঁদপুরসহ ৬ রুটে ফেরি ভাড়া বেড়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

জ্বালানি তেলের দাম বাড়ার পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) ফেরি ও যাত্রীবাহী জাহাজের ভাড়া ২০ শতাংশ বাড়িয়েছে। আগামী রোববার (১৯ জুন) থেকে বর্ধিত ভাড়া কার্যকর হবে।

বিআইডব্লিউটিসি’র চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত সচিব) আহমদ শামীম আল রাজী বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, জ্বালানি তেলের দাম বাড়ার পরিপ্রেক্ষিতে ফেরি এবং জাহাজের ভাড়া সমন্বয় করা হয়েছে। এটা আগামী রোববার থেকে কার্যকর হবে।

আহমদ শামীম আল রাজী বলেন, জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে ফেরি ও জাহাজ চালাতে গিয়ে গত ছয় মাসে অতিরিক্ত ২০ কোটি টাকা ব্যয় হয়েছে। ভাড়া বাড়িয়ে আমরা তেলের ক্ষেত্রে যাতে ব্রেক ইভেনে (আয়-ব্যয় সমান) থাকতে পারি, সেই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

বিআইডব্লিউটিসি’র চেয়ারম্যান বলেন, জ্বালানি তেলের দাম বাড়ার পর বাস-লঞ্চসহ অন্যান্য ক্ষেত্রে ভাড়া বেড়েছে। কিন্তু আমরা আমাদের (ফেরি-জাহাজের) ভাড়া বাড়াইনি। এখন বাড়ানো হলো।

বর্তমানে ছয়টি রুটে বিআইডব্লিউটিসি ফেরিতে গাড়ি পারাপার করছে জানিয়ে শামীম আল রাজী বলেন, এই রুটগুলোতে ফেরি পারাপারে রোববার থেকে বাড়তি ভাড়া দিতে হবে।

বিআইডব্লিউটিসি পরিচালিত ছয়টি ফেরি রুট হলো, পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া, আরিচা-কাজিরহাট, শিমুলিয়া-বাংলাবাজার/মাঝিরকান্দি, চাঁদপুর-শরীয়তপুর, ভোলা-লক্ষ্মীপুর এবং লাহারহাট-ভেদুরিয়া। এছাড়া ঢাকা-বরিশাল-মোরেলগঞ্জ, চট্টগ্রাম থেকে সন্দ্বীপ, হাতিয়া, দৌলতখান ও বরিশাল এবং ঢাকা-কালীগঞ্জ রুটে চলে সংস্থাটির বেশকিছু যাত্রীবাহী নৌযান। বর্তমানে সংস্থাটির বহরে ১০২টি ফেরি ও যাত্রীবাহী নৌযান রয়েছে।

পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া রুটে এক থেকে তিন টন পণ্যবাহী ছোট ট্রাক বা কাভার্ডভ্যানের ভাড়া ৭৪০ থেকে বেড়ে ৯০০ টাকা, ৩-৫ টনের ট্রাকের ভাড়া ৮৮০ থেকে বেড়ে ১ হাজার ১০০ টাকা হয়েছে।

৫-৮ টন পণ্যবাহী ট্রাক, লরি ও কাভার্ডভ্যানের ভাড়া এক হাজার ৬০ থেকে বাড়িয়ে এক হাজার ৩০০ টাকা এবং ৮-১১ টনের বড় ট্রাক ও লরির ভাড়া এক হাজার ৪৬০ থেকে বাড়িয়ে ১ হাজার ৮০০ টাকা করা হয়েছে।

এ রুটের মিনিবাস বা কোস্টার ৯০০ থেকে বেড়ে এক হাজার ৫০ টাকা, মাঝারি মাপের বাস দিনে এক হাজার ৫৮০ টাকার স্থলে এক হাজার ৮৩০ টাকা ও রাতে এক হাজার ৬২০ টাকার স্থলে এক হাজার ৮৭০ এবং বড় বাসে এক হাজার ৮২০ টাকার স্থলে দুই হাজার ১৬০ টাকা ভাড়া দিতে হবে। এছাড়া মাইক্রোবাস ও অ্যাম্বুলেন্সের ভাড়া ৮০০ টাকার স্থলে এক হাজার টাকা, পাজেরো ৭৩০ টাকার স্থলে ৯০০ টাকা, কার ও জিপ ৪৫০ টাকার স্থলে ৫৪০ টাকা, মোটরসাইকেল ৭০ টাকার স্থলে ৯০ টাকা দিতে হবে।

শিমুলিয়া-বাংলাবাজার বা মাঝিরকান্দি রুটে এক থেকে তিন টন পণ্যবাহী ছোট ট্রাক বা কাভার্ডভ্যানের ভাড়া ৯৮০ থেকে বাড়িয়ে এক হাজার ২০০ টাকা, ৩-৫ টনের ট্রাক এক হাজার ৮০ থেকে বেড়ে এক হাজার ৩০০ টাকা করা হয়েছে। এছাড়া ৫-৮ টন পণ্যবাহী ট্রাক, লরি ও কাভার্ডভ্যানের ভাড়া এক হাজার ৪০০ থেকে বেড়ে এক হাজার ৭০০ টাকা এবং ৮-১১ টনের বড় ট্রাক ও লরির ভাড়া এক হাজার ৮৫০ থেকে বেড়ে দুই হাজার ২২০ টাকা হয়েছে।

এ রুটের মিনি বাস বা কোস্টার এক হাজার ২০০ থেকে বেড়ে এক হাজার ৪০০ টাকা, মাঝারি মাপের বাস দিনে এক হাজার ৭৮০ টাকার স্থলে দুই হাজার ৮০ টাকা ও রাতে এক হাজার ৮২০ টাকার স্থলে দুই হাজার ১২০ টাকা করা হয়েছে। এছাড়া বড় বাসে এক হাজার ৯৪০ টাকার স্থলে দুই হাজার ২৬০ টাকা ভাড়া গুনতে হবে। এ রুটে মাইক্রোবাস ও অ্যাম্বুলেন্সের ভাড়া ৮৬০ টাকার স্থেেলএক হাজার ৫০ টাকা, পাজেরো গাড়ি ৮০০ টাকার স্থলে এক হাজার টাকা, কার ও জিপ ৫০০ টাকার স্থলে ৬০০ টাকা এবং মোটরসাইকেল ৭০ টাকার স্থলে ৯০ টাকা করা হয়েছে। একইভাবে অন্যান্য রুটের ভাড়া বেড়েছে।

রোববার থেকে বিআইডব্লিউটিসির লঞ্চ ও স্টিমারের বর্ধিত ভাড়া কার্যকর হবে। জ্বালানি তেলের দাম বাড়ার পর লঞ্চভাড়া প্রথম ১০০ কিলোমিটার পর্যন্ত এক টাকা ৭০ পয়সার পরিবর্তে দুই টাকা ৩০ পয়সা এবং ১০০ কিলোমিটারের পরে প্রতি কিলোমিটার এক টাকা ৪০ পয়সা থেকে বাড়িয়ে দুই টাকা নির্ধারণ কর হয়। সর্বনিম্ন ভাড়া ১৮ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৩০ টাকা করা হয়। এই ভাড়া এখন বিআইডব্লিউটিসির নৌযানেও প্রযোজ্য হবে।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published.