চাঁদপুরের কণ্ঠ শিল্পী তাহমিনা হারুনের দাফন সম্পন্ন

চাঁদপুরের সাবিনা ইয়াসমিন খ্যাত কণ্ঠ শিল্পী ও চাঁদপুর মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা এবং চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠনের মহাসচিব হারুন আল রশীদের সহধর্মীনি তাহমিনা হারুন আর নেই।

তিনি মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) দিনগত রাত ৩ টা ১০ মিনিটের সময় মধ্য ইচুলি নিজ বাড়িতে শেষ নিঃস্বাস ত্যাগ করেছেন। তাহমিনা হারুন দীর্ঘ দিন ধরে ডায়াবেটিস,কিডনি ও চোখের সমস্যার রোগে ভুগছিলেন।মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৫ বছর।

স্বামী, দু পুত্র, নাতিসহ বহু শুভাকান্খি রেখে গেছেন।বাদ জোহর তাহমিনা হারুনের জানাজার নামাজ নিজ বাড়ি প্রাঙ্গনের নুরে বেপারী জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়। তাহমিনা হারুনের বড় ভাই মাওঃ আবু জাফর মোঃ মাইনুদ্দিন জানাজায় ইমামতি করেন। পরে তাকে পারিবারিক কবরস্হানে দাফন করা হয়।

তাহমিনা হারুনের অকাল মৃত্যুতে চাঁদপুরের সাংস্কৃতিক অঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।তিনি ১৯৭৮ – ৭৯ সালে সংগিত নিকেতনে সংগিতের তালিম নেন। ১৯৭৯-৮৪ সাল পর্যন্ত তিনি কঁচিকাচার মেলা ও ৮৪-৮৫ সালে বনানী খেলাঘর আসরের সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন। তাহমিনা হারুন কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডের সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় গোল্ড ম্যাডেল অর্জন করেন।জাতীয় পর্যায়ে দেশাত্ববোধক সংগিতে জাতীয় পুরুস্কার অর্জন করেন। তাহমিনা হারুন মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশ ভুক্ত অনন্যা নাট্য গোষ্ঠির ও চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথে জরিত ছিলেন। তাহমিনা হারুন কে চাঁদপুরের সাংস্কৃতিক অঙ্গনে সবাই সাবিনা ইয়াসমিন বলে ডাকা হতো। তিনি সাবিনা ইয়াসমিনের কন্ঠে গান করতেন।

তাহমিনা হারুনের কফিনে শেষ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন চনঁদপুর জেলা শিল্পকলা একাডেমী, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, চাঁদপুর থিয়েটার ফোরাম, চাঁদপুর সাংস্কৃতিক চর্চা কেন্দ্র, চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠন ও জীবন দ্বিপ। তাহমিনা হারুনের মৃত্যুর খবর শুনকে পেয়ে তাকে শেষ বারের মতো দেখতে ছুটে যান শহীদ পাটোয়ারী, লিটন ভূইয়া, শরীফ চৌধূরী, কাজী শাহাদাত, অজয় ভৌমিক, কৃষ্ণা সাহা, অজিত সাহা, অ্যাডঃ বদিউজ্জামান কিরন, তপন সরকার, রুমা সরকার, গবিন্দ মন্ডল,অ্যাডঃ বিনয় ভূষণ মজুমদার সহ আরো অনেকে।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *