চাঁদপুরে একটি আন্তর্জাতিক নৌ-বন্দর নির্মাণ করবো : নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী

চাঁদপুর প্রতিনিধি:

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এম.পি বলেছেন, যুদ্ধবিধস্থ বাংলাদেশের মাত্র সাড়ে তিন বছরে বঙ্গবন্ধু সরকারের যে সফলতা; ৫০ বছরে কোন সরকার সে সফলতা দেখাতে পারেনি। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত‍্যার মধ‍্য দিয়ে বাংলাদেশকে হত‍্যা করতে চেয়েছিল। সেই কলঙ্কিত অধ্যায় ও রাজনৈতিক পট পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে দেশ অন্ধকার ও দুর্নীতির যুগে প্রবেশ করে। ২০০৯ সালের শুরুতে বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আসীন হওয়ার পর পরই নেওয়া হয়েছে নানাবিধ উদ্যোগ। বিলুপ্ত ও বেদখল হওয়া নদীগুলোকে পুনরুদ্ধার করে খননের মাধ্যমে প্রবাহমান করা এবং নৌপরিবহন ব্যবস্থার উন্নয়নের কঠিন কাজে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নিজেই নেতৃত্ব দিচ্ছেন। হারিয়ে যাওয়া নৌপথ উদ্ধার ড্রেজার সংগ্রহের ওপর গুরুত্ব দিয়েছেন। নৌপথের নাব্যতা বজায় রাখার লক্ষ্যে স্বাধীনতার পর বঙ্গবন্ধু সাতটি ড্রেজার সংগ্রহ করেছিলেন। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর আর কোন ড্রেজার সংগ্রহের উদ্যোগ নেয়া হয়নি। আওয়ামী লীগ সরকার এ পর্যন্ত ৪০টি ড্রেজার সংগ্রহ করেছে;আরো ৩৫টি ড্রেজার সংগ্রহের কাজ চলমান রয়েছে। আওয়ামী লীগের নির্বাচনী মেনিফেস্টা অনুযায়ী ১০,০০০ কিলোমিটার নৌপথ খননের মধ‍্যে ৭,০০০ কিলোমিটার নৌপথ খনন হয়েছে; বাকি কাজ চলমান রয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ হিমালয়ের চূড়ায় অবস্থান করছে। বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল। আগামী ২৫ জুন প্রধানমন্ত্রী বিশ্ববাসীকে তাক লাগিয়ে দিবেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণ করব। সেক্ষেত্রে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় একটি বিশেষ ভূমিকায় থাকতে চায়।

প্রতিমন্ত্রী আজ চাঁদপুরে শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে ‘নৌ নিরাপত্তা সপ্তাহ-২০২২’ উদযাপন উপলক্ষ‍্যে সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
“প্রশিক্ষিত জনবল ও নিরাপদ জলযান, নৌ নিরাপত্তায় রাখবে অবদান ” এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে ১৯মে থেকে দেশব্যাপী নৌ নিরাপত্তা সপ্তাহ ২০২২ শুরু হয়।

নৌপরিবহন অধিদফতরের মহাপরিচালক কমডোর এ জেড এম জালাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন‍্যান‍্যের মধ‍্যে বক্তব‍্য রাখেন নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো: মোস্তফা কামাল, জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ, নৌযান মালিক মাহবুব উদ্দিন আহমেদ বীর বিক্রম, নৌযান মালিক আব্দুর রব ভূইয়া,বাংলাদেশ কার্গো ভেসেল ওনার্স এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মো: নুরুল হক, বাংলাদেশ কোস্টাল শিপ ওনার্স এসোসিয়েশনের চেয়ারম‍্যান শেখ মাহফুজ হামিদ এবং নৌপরিবহন অধিদফতরের চীফ ইঞ্জিনিয়ার এন্ড শিপ সার্ভেয়ার মো: মনজুরুল কবীর।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, চাঁদপুরে আন্তর্জাতিক মানের নদীবন্দর স্থাপন করা হবে। তিনি বলেন, আমাদের বালু দরকার; তবে অপরিকল্পিতভাবে নয়। অবৈধ ও অপরিকল্পিতভাবে বালু উত্তোলনকারীরা যত শক্তিশালী হোক না তাদের বিরুদ্ধে প্রশাসন যথাযথ ব‍্যবস্থা নিবে। তিনি বলেন, চাঁদপুরে নৌপরিবহন অধিদফতরের অফিস খোলা হয়েছে। নৌযানের ফিটনেস ও নৌযান সংক্রান্ত কোন কাজের জন‍্য ঢাকায় যেতে হবেনা। সেবা মানুষের দোড়গোঁড়ায় পৌঁছে যাবে।

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, নদীর প্রবাহ বজায় রাখতে হবে। নতুবা নদীমাতৃক বাংলাদেশকে রক্ষা করা যাবেনা। প্রশিক্ষিত নৌযান শ্রমিক তৈরিতে সরকার কাজ করছে। পাঁচটি মেরিন একাডেমী প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। প্রতিটি বিভাগীয় শহরে মেরিন একাডেমী প্রতিষ্ঠা করা হবে। নৌযান নাবিকদদের প্রশিক্ষিত করতে মাদারীপুরে ন‍্যাশনাল মেরিটাইম ইন্সটিটিউট(এন এম আই) এবং নৌযান শ্রমিকদের প্রশিক্ষিত করে তুলতে বরিশাল ও মাদারীপুরে শিপ পার্সোনেল ট্রেনিং সেন্টার (এসপিটিসি) প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। কুড়িগ্রামে এন এম আই প্রতিষ্ঠা করা হবে।

প্রশিক্ষিত নৌযান শ্রমিকদের জাহাজে নিয়োগ দিতে প্রতিমন্ত্রী নৌযান মালিকদের প্রতি আহবান আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, যতদিন পর্যন্ত প্রশিক্ষিত জনবল ও নিরাপদ নৌযান প্রতিষ্ঠিত হবে ততদিন পর্যন্ত নৌ নিরাপত্তা সপ্তাহের স্লোগান থাকবে “প্রশিক্ষিত জনবল ও নিরাপদ জলযান, নৌ নিরাপত্তায় রাখবে অবদান।”

অনুষ্ঠানে ‘আধুনিক যাত্রীবাহী নৌযান ডিজাইন’ এবং ‘ অভ‍্যন্তরীণ নৌযান নাবিক প্রশিক্ষণ, পরীক্ষা গ্রহণ, সনদায়ন’ বিষয়ক দুটি উপস্থাপনা করা হয়। ‘জীবন রক্ষা এবং অগ্নিনির্বাপনকারী সরঞ্জাম ব‍্যবহার’ সংক্রান্ত একটি ভিডিও প্রদর্শন করা হয়। নৌ নিরাপত্তা-২০২২ উপলক্ষ‍্যে ‘সুবর্ণতরী’ নামক প্রকাশনার মোড়ক উন্মোচন করেন প্রতিমন্ত্রী।
শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

উল্লেখ্য, নৌপথে চলাচলরত নৌযান ও নৌযানে চলাচলকারী যাত্রীসাধারণের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে এবং নৌপথকে দূষণমুক্ত রাখার উদ্দেশ্যে সংশ্লিষ্ট সকলকে উদ্বুদ্ধকরণের জন্য প্রতিবছর নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সার্বিক তত্ত্বাবধানে নৌপরিবহন অধিদপ্তরের উদ্যোগে নৌ নিরাপত্তা সপ্তাহ পালন করা হয়ে থাকে।

প্রতিমন্ত্রী পরে মুন্সিগঞ্জের গজারিয়ায় মাঝনদীতে বিআইডব্লিউটিএ আয়োজিত “নৌদুর্ঘটনা কবলিত নৌযান উদ্ধার মহড়া কার্যক্রম’ পরিদর্শন ও তিনদিনব‍্যাপি বার্ষিক মহড়া” ২০২২ এর সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে যোগ দেন।

শেয়ার করুন: