চাঁদপুরে গৃহকর্মীকে ধর্ষণের ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর মা আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক:

চাঁদপুরে গৃহকর্মীর ইচ্ছার বিরুদ্বে এক বছর ধরে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী আমজাদ মাহমুদ নিলয় (২১) কর্তৃক গৃহকর্মীকে ধর্ষন করার অভিযোগে পাওয়া গেছে। চাঁদপুরের পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ এর নির্দেশে এ ঘটনার আলোকে চাঁদপুর সদর মডেল থানায় শিক্ষার্থী,তার বাবা ও মায়ের বিরুদ্বে একটি ধর্ষন মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এ ঘটনায় পুলিশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর মা’শাহনাজ বেগমকে গ্রেফতার করেছে। এ ঘটনার প্রধান আসামী আমজাদ মাহমুদ নিলয় ও তার বাবা আব্দুল মাজেদ মামলার পর থেকে পলাতক রয়েছেন।গ্রেফতারকৃত শাহনাজ বেগমকে পুলিশ আদালতে পাঠালে আদালত তার জামিন নামঞ্জুর করে তাকে জেলা কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে।

এ ধর্ষণের ঘটনায় গৃহকর্মী এ বিষয় নিয়ে পারিবারিকভাবে নির্যাতনের শিকার হয়ে গৃহকর্মী বিচার না পেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। তাৎক্ষনিক বিষয়টি চাঁদপুরের পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ জানতে পেরে চাঁদপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জকে বিষয়টি সঠিক ভাবে তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহন করার নির্দেশ দেন।

এ ব্যাপারে চাঁদপুর জেলা পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ জানান, গৃহকর্মীকে যৌন নির্যাতনের ঘটনায় জড়িত যেই হোক না কেন তাদের ছাড় দেওয়ার সুযোগ নেই। এই জন্য পুলিশকে কঠোর অবস্থানে থাকার নির্দেশ দিয়েছি।

জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষার্থী আমজাদ মাহমুদ নিলয় (২১),তার বাবা-মায়ের অনুপস্থিতিতে বাসায় একা পেয়ে এক বছর যাবত গৃহকর্মীকে যৌন হয়রানি করতেন। আর এই নিয়ে নির্যাতিতা নিলয়ের মা-বাবাকে অভিযোগ দিলে তার ওপর তারা চালাতো অমানবিক নির্যাতন। ফলে প্রতিকার না পেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে গৃহকর্মী ২৪ বছর বয়সি এ নারী।

গৃহকর্মী প্রাণে বেঁচে যাওয়ায় পুরো ঘটনাটি প্রকাশ পায়। এমন ঘটনার পর অভিযুক্তসহ তার বাবা ও মাকে আসামি করে চাঁদপুর মডেল থানায় মামলা করা হয়েছে।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা গেছে, শহরের ওয়ারলেস এলাকার বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজ বরকন্দাজের বাড়ির ভাড়াটিয়া চাঁদপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২তে কর্মরত আব্দুল মাজেদ ও শাহনাজ বেগম দম্পতি। তাদের বড় ছেলে আমজাদ মাহমুদ নিলয় রাজধানী ঢাকার একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত। সে ২০২০ সাল থেকে করোনা মহামারির কারণে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকায় বাবা-মায়ের বাসায় চাঁদপুরে অবস্থান করেন। তাদের বাসায় গৃহকর্মীর কাজ করেন এক যুবতী। নিলয়ের বাবা-মা’ যখন কর্মস্থলে থাকেন, তখন যৌন নির্যাতনের শিকার হতে হতে গত এক বছর ধরে চলে গৃহকর্মী (২৪)এর উপর এ নির্যাতন।

কোন প্রতিকার না পেয়ে গত ২৬ এপ্রিল পূনরায় ধর্ষণের শিকার হয় গৃহকর্মী (২৪)। এ বিষয়টি নিলয়ের বা-মাকে জানিয়ে অপবাদের মুখে পড়ে মারধরের শিকার হন গৃহকর্মী। নির্যাতনের শিকার হয়ে গত ৩০ এপ্রিল বাসা থেকে পালিয়ে চাঁদপুর-কুমিল্লা মহাসড়কে সে আত্মহত্যার চেষ্টা করে গৃহকর্মী (২৪)। সেখান থেকে এলাকাবাসী তাকে উদ্বার করে। পরক্ষনে বিষয়টি চাঁদপুর জেলা পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদের কর্নগোচরে আসে।

চাঁদপুর সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুর রশিদ জানান, এই ঘটনায় গৃহকর্মীর কাছ থেকে বিস্তারিত শুনে ওই পরিবারের তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা গ্রহণ করা হয়েছে। নির্যাতিতা গৃহকর্মী (২৪)কে চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালে ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়। এ ঘটনায় শনিবার রাতে নিলয়ের মা শাহনাজ বেগমকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পরে রোববার তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়। এ ঘটনার মূল আসামী আমজাদ হোসেন নিলয় ও তার বাবা আব্দুল মাজেদ পালিয়ে বেড়াচ্ছে। পুলিশ তাদেরও আটকের চেষ্টা করে যাচ্ছে।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *