চাঁদপুরে গ্যাস দুর্ভোগে ভুক্তভোগীদের বিক্ষোভ

প্রতিবেদক:

চাঁদপুর শহরের বিভিন্ন আবাসিক এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে গ্যাস সংকটে চরম দুর্ভোগে অতিষ্ঠ হয়ে ব্যাংক কলোনী এলাকার গ্রাহকরা ক্ষিপ্ত হয়ে চাঁদপুর বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন বিক্রয় ও বিতরণ কার্যালয়ে অবস্থান করে বিক্ষোভ করেছেন।

২৯ নভেম্বর রোববার সকাল থেকে দুপুর সাড়ে ১২ টা পর্যন্ত চাঁদপুর শহরের ব্যাংক কলোনি এলাকার ভুক্তভোগী গ্রাহকরা গ্যাস অফিসে গিয়ে তাদের লিখিত অভিযোগ প্রদান করেন। এ সময় প্রায় ৪০/৫০ জন গ্যাস গ্রাহক সেখানে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করে তাদের ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

জানা যায়,চাঁদপুর পৌরসভার ১৫নং ওয়ার্ডের ব্যাংক কলোনীতে প্রায় এক বছর ধরে চরম গ্যাস সংকট দেখা দিয়েছে। ওই এলাকায় গত ৮/৯ মাস যাবত সকাল ৭টা থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত আবসিক গ্যাস বন্ধ থাকে। যার কারণে শত শত পরিবারের রান্না না করতে পেরে চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

এ বিষয়ে তারা গ্যাস অফিসে এমন দুর্ভোগের কথা উল্লেখ করে একাধিক বার লিখিত অভিযোগ করেও কোন সমাধান পাননি। তাই তারা গ্যাস সংকটে চরম দূর্ভোগে অতিষ্ঠ হয়ে আজ সকালে চাঁদপুর শহরের ওয়ারলেস এলাকায় বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন বিক্রয় ও বিতরণ কার্যালয়ে অবস্থান করেন।

এসময় তারা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আমরা প্রায় দীর্ঘ এক বছর যাবৎ গ্যাসের চরম সংকটে রয়েছি। আমাদের ব্যাংক কলোনি এলাকায় প্রতিদিন সকাল সকাল ৬ টা থেকে ৭ টা পর্যন্ত গ্যাস থাকলেও তারপর গ্যাস চলে গেলে তা ফিরে আসে রাতে।

এ বিষয়ে আমরা সকল গ্রাহকরা এমন দুর্ভোগের কথা তুলে ধরে একাধিকবার চাঁদপুর বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ লিখিত অভিযোগ করেও কোন সমাধান পায়নি। এজন্য তারা অতিষ্ঠ হয়ে একাধিক গ্রাহকরা একত্রিত হয়ে গ্যাস অফিসে এসে অবস্থান করেছি। আমরা আবারো গ্যাস অফিসের কর্তৃপক্ষের কাছে লিখিত অভিযোগ নিয়ে এসেছি। আমরা এর স্থায়ী সমাধান চাই। গত এক বছর ধরে আমরা যে গ্যাস দুর্ভোগে ভুগছি তা থেকে আমরা মুক্তি চাই।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর ব্যাংক কলোনি এলাকার গ্রাহক ওমর ফারুক, অবসরপ্রাপ্ত ব্যাংকার জয়নুল আবেদীন, আমিনুল ইসলাম, আবুল হোসেন, আলীম চৌধুরী, সেলিম জাহাঙ্গীর, হুমায়ুন কবির, মিজানুর রহমান, আব্দুল কুদ্দুস মিয়া, অ্যাডভোকেট হেদায়েতুল্লাহ, মফিজুর রহমান মিয়াজী, আমেনা বেগম, নাসরিন বেগম, শাহানারা আক্তার, তানজিলা আক্তার, শামিমা ইসলাম, খালেদা আক্তার, শামসুন্নাহার বেগম, আয়েশা বেগম সহ ব্যাংক কলোনী এলাকার অন্যান্য গ্রাহকরা।

ব্যাপারে বাখরাবাদ গ্যাস ডিষ্ট্রিবিউশন কোম্পানী লিমিটেড চাঁদপুর বিতরণ কার্যালয়ের ম্যানেজার মহিবুর রহমান রতন জানান, গ্রাহক বৃদ্ধির কারণেই ব্যাংক কলোনি এলাকায় গ্যাসের সমস্যা দেখা দিয়েছে। এর মূল কারণ হলো দেখা গেছে ১৯৮৯ সালে যে পাইপ দিয়ে গ্যাসের লাইন টানা হয়েছে, এখনও পর্যন্ত সেই পাইপ দিয়ে একই পরিমাণ গ্যাস সরবরাহ হয়ে থাকে।

এতে গ্রাহক বাড়ছে কিন্তু গ্যাসের পাইপ এর চাহিদা বাড়েনি। তাই ওই এলাকায় এই সমস্যাটা দেখা দিয়েছে। তবুও জিটি রোড সহ যেসব স্থানে গ্যাসের সমস্যা রয়েছে, তার কিছু কিছু জায়গায় আমরা কাজ করেছি। যেসব গ্রাহকরা গ্যাস অফিসে অভিযোগ করেছেন। আমি তাদেরকে বিষয়টি বুঝিয়ে বলেছি এবং আগামি কয়েক মাসের মধ্যে সেই সমস্যা অনেকটা সমাধান হবে বলে তাদেরকে আশ্বস্ত করে দিয়েছি।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *