চাঁদপুরে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যে ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উদযাপিত

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উদযাপিত হয়েছে। দিনটি উপলক্ষে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের সঙ্গে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল,জিকির-আজকার, মোনাজাত, মিছিল, শোভাযাত্রা ও সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষে চাঁদপুর শহরসহ জেলার সকল উপজেলায় বিশাল শান্তি সমাবেশ ও শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়।

ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উদযাপন করতে জেলার বিভিন্ন মসজিদে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলসহ ১৫ দিনব্যাপী নানা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন।
রাষ্ট্রীয়ভাবে এ দিবস পালনে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন। পত্রিকায় ক্রোড়পত্র প্রকাশিত হয়েছে এবং টেলিভিশনে অনুষ্ঠানমালা সম্প্রচারিত হচ্ছে।
হিজরি রবিউল আউয়াল মাসের ১২ তারিখে জন্মগ্রহণ করেছিলেন সারাবিশ্বের রহমত হিসেবে প্রেরিত মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)। তার ওফাত বার্ষিকীও একই দিনে। হিজরি ক্যালেন্ডার অনুযায়ী এ দিনটিকেই ঈদে মিলাদুন্নবী পালন করে থাকেন বাংলাদেশের মানুষ। সরকারি ছুটিও থাকে এদিন।

দিনটিতে দেশের সব হাসপাতাল, কারাগার, সরকারি শিশুসদন, বৃদ্ধ নিবাস, মাদকাসক্তি নিরাময়কেন্দ্রে বিশেষ খাবারের ব্যবস্থা করা হয়।

৫৭০ খ্রিষ্টাব্দে আরবের মক্কা নগরীর কুরাইশ বংশে জন্মগ্রহণ করেছিলেন সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ মহামানব হজরত মুহাম্মদ (সা.)। ৬৩ বছর বয়সে তিনি আরবের মদিনায় ওফাত গ্রহণ করেন।
বাংলাদেশ ছাত্র হিযবুল্লাহ চাঁদপুর সদর ও শহর শাখার যৌথ উদ্যোগে স্বাগত মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রোববার (৯ অক্টোবর) সকালে ডিসি অফিসের সম্মুখে হতে স্বাগত মিছিল বের হয়ে শহরের বঙ্গবন্ধু সড়ক হয়ে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক পদক্ষিণ করে ওয়্যারলেছ মুন্সি বাড়ি সংলগ্ন খানকায়ে ছালেহিয়া মোহেব্বীয়া কমপ্লেক্সে মাঠে গিয়ে শেষ হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে দোয়া মোনাজাত করেন জেলা জমইয়াতে হিযবুল্লাহর সভাপতি মাওঃ মোঃ সাইফুদ্দিন খন্দকার।

উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর শহর শাখার সভাপতি মুফতি জিয়াউদ্দিন খন্দকার ও সাধারণ সম্পাদক মাওঃ মোঃ আবদুর রহমান গাজী। আইম্মায়ে হিযবুল্লাহ চাঁদপুর শহর শাখার সাধারণ সম্পাদক মুফতি মোঃ মহিউদ্দিন জাফরী, যুব হিযবুল্লাহর চাঁদপুর শহর শাখার আহ্বায়ক হাফেজ মাওঃ মোঃ হাবিবুর রহমান, মাওঃ মোঃ শফিকুল ইসলাম গাজী, চাঁদপুর দারুচ্ছুন্নাত দীনিয়া মাদ্রাসার সিনিয়র শিক্ষক মাওঃ মোঃ ফারুকুল ইসলাম মিজি প্রমুখ।

ছাত্র হিযবুল্লাহর চাঁদপুর সদর উপজেলা শাখার সভাপতি মোঃ মাঈনুদ্দিন ছালেহীর সভাপতিত্বে ও চাঁদপুর শহর শাখার সভাপতি মোঃ জয়নাল আবেদীনের সঞ্চালনায় কোরআন তিলাওয়াত, হামদ- নাত ও গজল পরিবেশন করে জুলফিকার হামদ- নাত ও গজল পরিবেশক দলের সদস্যবৃন্দ।

মিছিলে অংশ নেন ছাত্র হিযবুল্লাহর সাবেক সভাপতি মাওঃ মোঃ মজিবুর রহমান, সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাফেজ মাওঃ মাসুম বিল্লাহ, হাফেজ মাওঃ মোঃ দ্বীন ইসলাম, বর্তমান চাঁদপুর সদর উপজেলা সাধারণ সম্পাদক হাফেজ মোঃ আশরাফ, চাঁদপুর শহর শাখার সাধারণ সম্পাদক মোঃ জাহিদুল ইসলাম, ছাত্র নেতা হাফেজ মাওঃ মোঃ সিদ্দিকুর রহমান সহ চাঁদপুর সদর উপজেলার ইউনিয়ন সভাপতি, চাঁদপুর পৌরসভার ওয়ার্ড ও স্কুল- কলেজ শাখার বিভিন্নস্হরের নেতৃবৃন্দ।

এদিকে চাঁদপুরের ইচলী খানকায়ে চিশতীয়া রাহমানিয়া দরবার শরীফের আয়োজনে ঈদে মিলাদুন্নবী (স.) উপলক্ষে জসনে জুলুশ বের করা হয়েছে। রোববার (৯ অক্টোবর) সকালে বাগাদী রোডের হযরত মোশারফ হোসেন চিশতী (রা.) মশু বাবার দরবার শরীফ থেকে শত শত ভক্ত, মুরিদ ও মুসল্লিদের অংশ গ্রহনে জুলুশটি বের করা হয়।

পুরো শহর প্রদক্ষিণ করে পুনঃ রায় হযরত মোশারফ হোসেন চিশতী (রা.) মশু বাবার দরবার শরীফে গিয়ে শেষ হয়। শিশু-কিশোরসহ সব বয়সীদের হাতে ছিল বিভিন্ন রঙয়ের পতাকা ব্যানার ও জাতীয় পতাকায় শোভিত ও মাথায় হলুদ কাপড়ের পাগরীতে সজ্জিত ছিলেন জুলুশে অংশগ্রহণকারীরা। আর তাদের কণ্ঠে ছিল নবীজীর নাম ও ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষে সবার প্রতি শুভেচ্ছার শ্লোগান।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন মোঃ আব্দুল হান্নান চিশতী, মশু চিশতীর জামাতা মোঃ ইউসুফ পাটওয়ারী রিপন, , জামাতা অ্যাডঃ হাসান উল্লাহ পাটওয়ারী, ছাত্তার চিশতী,কাশিম চিশতী, মাও. মিজানুর রহমান চিশতী,মাওঃমোহাম্মদ আলী আল কাদেরী, মাওঃ মোঃ আলী আরশাদ আল কাদেরী, সামু চিশতী, মাহফুজুর রহমান টুটুল চিশতী, মাও. জামাল পাটওয়ারী, রফিকুল ইসলাম চিশতী,স্বপন পাটওয়ারী, গিয়াস উদ্দিন ভোলা,মনির হোসেন মান্না চিশতী, লোকমান চিশতী, হাবু চিশতী, ডা. গিয়াস উদ্দিন স্বপন, ইব্রাহিম চিশতী,রতন গাজীসহ অসংখ্য মুরিদ।

উল্লেখ্য, প্রায় ১ হাজার ৪শ’ বছর আগে আরবের মরু প্রান্তরে মা আমেনার কোল আলো করে জন্ম নিয়েছিলেন বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ (স)। একই দিনে তিনি পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করেছিলেন। তিনি পৃথিবীতে এসে শান্তির ধর্ম ইসলাম প্রচার করেছেন। তার আভির্ভাব ও ইসলামের শান্তির বাণী প্রচার সারা বিশ্বে আলোড়ন সৃষ্টি করেন। তার জন্ম ও উফাত দিবস ১২ রবিউল আউয়াল মুসলমানদের কাছে এক পবিত্র দিন। মুসলিম সম্প্রদায় এই দিনটিকে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী হিসেবে পালন করে থাকেন।

শেয়ার করুন: