চাঁদপুরে প্রতারক চক্রের ৩ সদস্য আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক:

চাঁদপুর শহরের মরহুম আঃ করিম পাটোয়ারী সড়কস্হ চাঁদ নগর আবাসিক হোটেল থেকে চাকুরীর নামে ১৫ লাখ টাকা আত্মসাৎতের অভিযোগে প্রতারক চক্রের ৩ সদস্য কে আটক করেছে চাঁদপুর সদর মডেল থানা পুলিশ।

জানাযায়, নীলফামারী জেলার কিশোরগঞ্জ থানার কালিকাপুর গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে সজিব রানা (১৯) কে একই উপজেলার গাররা গ্রামের নুরুল ইসলামের পুত্র রেজাউল করিম (৩৮) বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে চাকুরী দেওয়ার নামে ১৫ লাখ টাকা চুক্তিবদ্ধ হয়।

পরবর্তীতে নগদ ১০ লাখ টাকা লেনদেন হয় এবং বাকী ৫ লাখ টাকা চাকুরী হওয়ার পর দেওয়া হবে এ মর্মে একটি স্টাম্পের মাধ্যমে লেখা হয়। এজন্য বাকী ৫ লাখ টাকার জন্য একটি চেক ও দেয়া হয়।

এক পর্যায়ে রেজাউল করিম সজিব রানা কে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর নিয়োগ পএ হাতে দিলে উক্ত নিয়োগ পএ নিয়ে সেনা অধিদপ্তরে যোগাযোগ করা হলে, সেটি ভুয়া বলে প্রমাণ হয়।

এরপর ও এ প্রতারক চক্র সজিব রানা কে বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশনের অধীনে চাঁদপুর কৃষি উন্নয়ন অধিদপ্তরে কম্পিউটার অপারেটর পদে অস্হায়ী ভিওিতে নিয়োগ দেওয়ার নামে পুনরায় আরো ৩ লাখ টাকা চুক্তি করে নগদ দেড় লাখ টাকা লেনদেন করে চাঁদপুরে আসে।

এ প্রতারক চক্রের আরো ২ জন সহ মোট ৩ জন চাঁদপুরে এসে শহরের আঃ করিম পাটোয়ারী সড়কস্থ চাঁদ নগর আবাসিক হোটেল উঠে।

শুধু তাই নয়, ১০ ফেব্রুয়ারী উক্ত নিয়োগ পত্র দেওয়া হবে এমন আশ্বাসের ভিওিতে সজিব রানা কে ও চাঁদপুরে নিয়ে আসে।

এক পর্যায়ে সজিব রানা সকালে দুপুরে হোটেল থেকে বের হয়ে হোটেল সন্মুখে জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর চাঁদপুর অফিসে গিয়ে যোগাযোগ করলে এই নিয়োগের বিষয়টিও ভুয়া বলে জানালে সজিব রানা আবাসিক হোটেল মালিকের সহযোগিতায় চাঁদপুর সদর মডেল থানার পুলিশ কে খবর দিয়ে এই প্রতারক চক্রের ৩ সদস্য কে আটক করে।

আটক ৩ প্রতারক সদস্যরা হলেন – রেজাউল করিম (৩৮) পিতা- নজরুল ইসলাম সাং গাররা গ্রাম, কিশোরগঞ্জ, নীলফামারী, জাহিদুল ইসলাম (৩২) পিতা- মঞ্জুর ইসলাম, সাররা গ্রাম, কিশোরগঞ্জ, নীলফামারী, শফিকুল ইসলাম (৩৪)পিতা- নাজিম উদ্দীন, সাং ধররোয়া, কাপাসিয়া, গাজীপুর।

শেয়ার করুন: