চাঁদপুরে ফলের আড়তে আগুন

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

চাঁদপুর শহরের চৌধুরীঘাট এলাকায় জেলার সর্ববৃহৎ ফলের আড়তে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে আড়ত মার্কেটের একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পুড়ে ছাই হয়ে যায় । এছাড়াও পার্শ্ববর্তী আরো চারটি দোকান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সোমবার (২১ মার্চ) দুপুরে এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।
স্থানীয় ব্যবসায়ী এবং শ্রমিকরা মিলে প্রায় আধা ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে পাশ্ববর্তী ডাকাতিয়া নদী থেকে পানি ছিটিয়ে আগুন অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে আনেন।

পরবর্তীতে খবর পেয়ে চাঁদপুর ফায়ার সার্ভিসের ৪টি ইউনিটের দমকলবাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে। এতে অল্পের জন্য প্রায় অর্ধ শতাধিক ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান অগ্নিকাণ্ড থেকে রক্ষা পায়।

আগুনে সম্পূর্ণ পুড়ে যাওয়া প্রতিষ্ঠানটি হলো মো. সহিদ খান এন্ড সন্স। এছাড়া ক্ষতিগ্রস্ত প্রতিষ্ঠানগুলো হলো, ইউনুস মাঝি এন্ড সন্স, আমানত ট্রেডার্স, গাজি এন্টারপ্রাইজ।
চৌধুরীঘাট ব্যবসায়ী সমিতির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ মাসুদুর রহমান বেপারী জানান, দুপুরে হঠাৎ করেই মার্কেটের পেছন ধোঁয়ার কুণ্ডলী দেখতে পান। চোখের পলকেই সেখানে আগুনের লেলিহান শিখা দাউ দাউ করে জ্বলতে থাকে। তাৎক্ষণিক তিনিসহ অনন্য ব্যবসায়ী ও শ্রমিকরা ছুটে গিয়ে দেখেন, সহিদ খানের আড়তের গোডাউনে আগুণ জ্বলছে। সাথে সাথে তারা সবাই মিলে আধঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক হারুন হাওলাদার জানান, সহিদ খানের মালিকানাধীন আড়তের গোডাউনে প্লাস্টিকের কেরেট রাখা ছিল। সেখানে আগুনের সূত্রপাত হয়। আমাদের ব্যবসায়ী ও শ্রমিকরা প্রায় আধা ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হই। পরবর্তীতে ফায়ারসার্ভিসের দমকল বাহিনী এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে।

তিনি আরো জানান অগ্নিকান্ডে একটি দোকান সম্পূর্ণ পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এছাড়া আরো বেশ কয়েকটি দোকান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আল্লাহর অশেষ মেহেরবানিতে আমরা অনেক বড় ধরনের দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেয়েছে।

চাঁদপুর ফায়ার সার্ভিসের উপ-পরিচালক মোঃ শহিদুল ইসলাম জানান, অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে আমাদের ৪টি ইউনিট দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। এরপর স্থানীয় ব্যবসায়ী ও শ্রমিকদের সহযোগিতায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছি।

তিনি আরো জানান, অগ্নিকাণ্ডে একটি দোকান সম্পূর্ণ পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। পাশাপাশি আরো কয়েকটি দোকান কিছু ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আগুনের সূত্রপাত কি কারনে সেটি এখনো নিশ্চিত হতে পারেনি। তবে ধারণা করা হচ্ছে সিগারেটের আগুণ থেকেই অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published.