চাঁদপুরে ভ্রাম্যমান আদালতে ৫৭ হাজার টাকা জরিমানা

আনোয়ারুল হক:

সাতদিনের লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে সরকারি নির্দেশনা ও স্বাস্থ্যবিধি না মানায় চাঁদপুরে ৬৬ মামলায় ৫৭ হাজার ২৫০ টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও),সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটগণ পৃথক ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন। রাতে চাঁদপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয় থেকে এসব তথ্য গনমাধ্যমকে নিশ্চিত করা হয়।

প্রাপ্ত তথ্যে জানাগেছে, চাঁদপুর শহরে ভ্রাম্যমান আদালতে ২৯টি মামলায় ৯ হাজার ৪শ’ টাকা জরিমান আদায় করেন। সকাল থেকে দুপুর এবং দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত এসব ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন চাঁদপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. উজ্জ্বল হোসেন, আবিদা সিফতা, ইবনে আল হোসেন জায়েদ ও দেবযানী কর।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দেবযানী কর বলেন,শহরের ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে একটি টেইলার্স খোলা রাখায় এবং স্বাস্থ্য বিধি না মানায় ৭জনকে ১হাজার ৫শ’৫০ টকা জরিমানা করে সতর্ক করে দেয়া হয়।

শাহরাস্তিতে অপ্রয়োজনে ঘর হতে বের হওয়া ও মাস্ক পরিধান না করা এবং সরকারি আদেশ অমান্য করায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ৮ জনকে ১১শ’টাকা অর্থদন্ড প্রদান করা হয়েছে।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উম্মে হাবিবা মীরা বলেন,কোনভাবেই বিনা প্রয়োজনে ঘর হতে বের হওয়া যাবে না। মাস্ক বিহীন কাউকে পেলেই ব্যবস্থা নেয়া হবে। করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে নিজে সচেতন হতে হবে,অন্যকে সচেতন করতে হবে। লকডাউন মেনে চলতে হবে।

এদিকে হাজীগঞ্জ শহরে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে ১২ মামলায় ২১ হাজার ৯’শ টাকা জরিমানা আদায় করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।

হাজীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোমেনা আক্তার বলেন, সারাদেশে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ায় ৭ দিনের কঠোর লকডাউন সঠিকভাবে পালনে প্রশাসনের কঠোর নজরদারী রয়েছে।

তিনি বলেন, আমাদের বাঁচতে হবে, পাশা-পাশি ব্যবসা বাণিজ্যও করতে হবে। তবে আগে জীবন পরে জীবিকা। এ দিকে লক্ষ রেখে সবাইকে সাবধানে এবং স্বাস্থ্য সম্মতভাবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলাচল করা উচিত।

শেয়ার করুন: