চাঁদপুরে শব্দ দূষণ নিয়ন্ত্রণে সচেতনামূলক কর্মশালা

চাঁদপুরে পরিবেশ অধিদপ্তরের শব্দ দূষণ নিয়ন্ত্রণে সম্বন্ধিত ও অংশীদারিত্ব মূলক প্রকল্পের আওতায় সচেতনামূলক কর্মশালা বুধবার বিকাল সাড়ে ৩টায় চাঁদপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়েছে। দেশের ৬৪ জেলা শহরে শব্দের মাত্রা পরিমাপে জরিপের অংশ হিসেবে পরিবেশ অধিদপ্তর এ কর্মশালার আয়োজন করে।

ইকিউ এম এস কনসালটিং লিমিটেড এবং বায়ুমণ্ডলীয় দূষণ অধ্যয়ন কেন্দ্র (ক্যাপস) এর বাস্তবায়নে সভাপতির বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ ইমতিয়াজ হোসেন।

এসময় তিনি বলেন, শব্দ দূষণ প্রতিরোধে সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। আমরা যদি সচেতন হই তাহলে শব্দ দূষণ নিয়ন্ত্রণে আসবে। আমরা যদি সচেতন হই তাহলে আইন প্রয়োগ প্রয়োজন হয়না তাই আমাদের সকলকে সচেতন হতে হবে।

ইকিউএমএস কনসালটিং লিমিটেডের পরিবেশ পরামর্শক মাসুম রেজার পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন,জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটোয়ারী দুলাল, পরিবেশ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মোসাব্বের হোসেন মুহাম্মদ রাজিব, চাঁদপুর টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজের অধ্যক্ষ মাহবুবুর রহমান,ফায়ার সার্ভিসের উপ-পরিচালক মো:সাহদিুল ইসলাম,পরিবেশ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো:হান্নান ষোলঘর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোস্তফা কামাল, শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি বাবুল মিজি, জেলা পরিষদের প্রশাসনিক কর্মকর্তা শেখ মহিউদ্দিন রাসেল ট্রাফিক পুলিশের টি আই কামরুল হাসান প্রমুখ ।

কর্মশালায় সরকারী কর্মকর্তা,বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রধান,স্কুল-কলেজের শিক্ষক ,ছাত্র-ছাত্রী,সাংবাদিক ও পরিবহন সেক্টরের লোকজন অংশগ্রহণ করেন। একর্মশালায় চাঁদপুরের বিভিন্ন এলাকায় শব্দদূষণ পরিমাপ জরিপ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

হৃদরোগ, উচ্চ রক্তচাপসহ সারাবিশ্বে ৩০টি কঠিন রোগের অন্যতম কারণ শব্দদূষণ উল্লেখ করে কর্মশালায় জানানো হয়- ক্রমবর্ধমান যানবাহনে অহেতুক হর্ন, যত্রতত্র সাউন্ড বক্স, মাইকের মাধ্যমে উচ্চ শব্দ সৃষ্টি করে মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ব্যাহত করা হচ্ছে। আমাদের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নকে টেকসই করতে হলে অন্যান্য দূষণের পাশাপাশি শব্দদূষণের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ার এখনই সময়।

শেয়ার করুন: