চাঁদপুরে হরিজন সম্প্রদায়ের ২৪২ পরিবার পেল প্রধানমন্ত্রীর উপহার

চলমান কঠোর লকডাউনের কর্মহীন মানুষের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে খাদ্য সহায়তা অব্যহত রেখেছে চাঁদপুরের জেলা প্রশাসন। প্রতিদিন বিভিন্ন শ্রেণী পেশা এবং সম্প্রদায়ের মানুষদের মাঝে এ খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে।

এছাড়াও হটলাইনে ফোন কলের মাধ্যমে স্বেচ্ছাসেবীদেরর দিয়েও বাড়ি বাড়ি এই উপহার পৌঁছে দিচ্ছেন জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ। একইভাবে জেলার সকল উডজেলায় উপজেলা নির্বাহী অফিসারগণ প্রধানমন্ত্রীর উপহার বিতরণ করছেন।

১০ জুলাই শনিবার দুপুরে লকডাউনের ১০ম দিনে হরিজন সম্প্রদায় ২৪২টি পরিবারের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর উপহার বিতরণ করা হয়। চাঁদপুর স্টেডিয়ামে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এই খাদ্য সহায়তা (চাল) তুলে দেন জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ।

জেলা প্রশাসক বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে হচ্ছে এই দুর্যোগকালে দেশের কোন মানুষ যেন অনাহারে না থাকে। লকডাউনে এটিই প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ। তিনি আপনাদের কষ্টের কথা চিন্তা করে এই উপহার পাঠিয়েছেন। আমরা সে উপহার আপনাদের হাতে তুলে দিলাম।

জনপ্রতিনিধিদের উদ্দেশ্য অনুরোধ জানিয়ে জেলা প্রশাসক বলেন, আপনাদের এলাকায় কেউ যেন অনাহারে না থাকে। আমরা যে বরাদ্দ পেয়েছি তা ইতোমধ্যে সকল উপজেলা, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে পৌঁছে দেয়া হয়েছে। অতি দ্রুত অসহায়, দুস্থ ও কর্মহীন লোকদের কাছে এই সহায়তা বিতরণ করবেন। সরকারের পাশাপাশি সমাজের বিত্তবানদেরও অসহায় মানুষের পাশে এসে দাঁড়ানোর অনুরোধ জানান তিনি।

এসময় বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ইমতিয়াজ হোসেন, পৌরসভার সচিব আবুল কালাম ভুঁইয়া, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী, সহ-সভাপতি সোহেল রুশদী ও এএইচএম আহসান উল্যাহ।

এসময় উপস্থিত ছিলেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইবনে আল জায়েদ হোসেন, কাজী মো. মেশকাতুল ইসলাম ও এআরএম জাহিদ হাসান প্রমূখ।

প্রসঙ্গত, সরকার ঘোষিত লকডাউনের শুরু থেকে জেলা প্রশাসনের হটলাইনে ফোন করে আবেদনকারী ৫শ’ পরিবারকে তাদের বাড়িতে প্রধানমন্ত্রীর উপহার পৌঁছে দেয়া হয়েছে।

একই সাথে কর্মহীন ইজিবাইক ও অটোরিকশা চালক,বেদে ও হিজড়া সম্প্রদায়সহ দুস্থ্য সহস্রাধিক পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা বিতরণ করা হয়।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *