চাঁদপুরে ৩১ জনের রিপোর্ট নেগেটিভ, আক্রান্ত বেড়ে ১৪

আনোয়ারুল হক:

করোনা ভাইরাসে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে সংগ্রহীত নমুনার মধ্যে ৩২ জনের রিপোর্ট এসেছে। এর মধ্যে ৩১ জনের করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এবং গত বৃহস্পতিবার উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করা ফরিদগঞ্জ উপজেলার শারমিন (১৪) এর রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে। পূর্বের আক্রান্ত ১৩ জনসহ জেলায় করোনায় আক্রান্ত সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৪জনে। ১৪ জনের মধ্যে চাঁদপুর সদরে ৭, মতলব উত্তরে ৩, ফরিদগঞ্জে ৩ ও হাইমচরে ১জন ১২ বছর বয়সী কিশোরী।

শনিবার (২৫ এপ্রিল) দুপুরে চাঁদপুরের সিভিল সার্জন ড. মো. সাখাওয়াত উল্যাহ এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

পজেটিভ রিপোর্ট আসা মৃত শারমিন ফরিদগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম লাড়ুয়া গ্রামের বাসিন্দা। সে করোনা ভাইরাস এর উপসর্গ নিয়ে গত বুধবার দিনগত রাত সাড়ে ১২টায় চাঁদপুর সদর হসপিটালের আইসোলেশনে ইউনিটে ভর্তি হয়। বৃহস্পতিবার দুপুরে তার মৃত্যু হয়। তার নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠানো হয়। দুই দিন পরে আজ রিপোর্ট আসলে নিশ্চিত হয় সে করোনায় আক্রান্ত ছিলেন।

আক্রান্ত ১৪ জনের মধ্যে মতলব উত্তর উপজেলার আরএমও ও প্রথম আক্রান্ত সুজন সুস্থ্য হয়েছেন। মারাগেছেনে শারমিন ও কামরাঙ্গা গ্রামের জামাই ফয়সাল। জামাই ফয়সালের মৃত্যুর পরে তার শ্বশুর ও শ্যালিকার রিপোর্ট পজেটিভ আসে। ওই পরিবারের ৯জনের নমুনা সংগ্রহ হয়। বাকীদের নেগেটিভ আসে।

চাঁদপুর সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী জেলায় আক্রান্ত সংখ্যা ১৪জন। আইসোলেশনে ইউনিটে আছেন ৩জন। পুরো জেলায় হোম কোয়ারেন্টিনে আছেন ৬৭১জন। হোম কোয়ারেন্টিন এর মেয়াদ শেষে ছাড়া পেয়েছেন ৪১৬জন। জেলা ও উপজেলা থেকে সর্বমোট ২৫৭টি করোনার নমুনা ঢাকায় প্রেরণ করা হয়। এর মধ্যে শনিবার পর্যন্ত রিপোর্ট এসেছে ২৩৯টি। অপেক্ষমান রয়েছে ১৮ জনের রিপোর্ট।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *