চাঁদপুরে ৭,১৭,২৫ ও ২৬ মার্চ উদযাপন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

চাঁদপুরে ঐতিহাসিক ৭মার্চ, ১৭মার্চ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্মশতবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস, ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস এবং ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এ সভার আয়োজন করা হয়। সভায় সভাপতির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ।

তিনি বলেন, আজকের সভাটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এ মাসটি আমাদের অনেক স্মৃতিবহন করে। আমরা যেসব কর্মসূচি হাতে নিয়েছি, তা’ সকলে যথাযথ মর্যাদায় পালন করবো।

তিনি বলেন,এ দিবসে সকলকে মিলেই এ অনুষ্ঠানগুলো করতে হবে। সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে অনুরোধ করব যেন এ অনুষ্ঠানগুলো পালন করে। আপনাদের আলোচনা সভা গুলোতে মুক্তিযোদ্ধাদের অতিথি হিসেবে আনবেন। কারণ, আমাদের সন্তানদের জানতে হবে,মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন প্রেক্ষাপট। তাহলেআমাদের সন্তানরা বুঝতে পারবে কি কষ্টের মধ্য দিয়ে আমরা স্বাধীনতা পেয়েছি। আমরা চাই যথাযোগ্য মর্যাদায় সকলে মিলে এ প্রোগ্রাম গুলো উদযাপন করবো। মনে রাখতে হবেএ প্রোগ্রাম গুলো কারো একার নয়।

জেলা প্রশাসক ৭,১৭ এবং ২৬ মার্চের প্রোগ্রামসূচির নির্দেশনা দিয়ে আরো বলেন, জাতীয় পতাকাগুলো পরিস্কার পরিচ্ছন্ন থাকতে হবে এবং জাতীয় পতাকার যেন কোনরূপ অবমাননা না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। শ্রদ্ধা নিবেদনের সময় মাস্ক পরিহিত অবস্থায় সংগঠন প্রতি ৫জন আসতে হবে । ২৫ মার্চ রাতে ৯টায় ১ মিনিট বিদ্যুৎ বন্ধ রাখা হবে। ১৭মার্চ জাতির পিতাকে সম্মান জানানোর জন্যে সেদিন জন্ম নেয়া একটি শিশুকে উপহার প্রদান করা হবে।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. ইমতিয়াজ হোসেন এর সঞ্চালনায় আরো বক্তব্য রাখেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও প্রশাসন) সুদীপ্ত রায়, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান, প্রেসক্লাবের সভাপতি গিয়াসউদ্দিন মিলন,ফরিদগঞ্জ পৌরসভার মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়ের,মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ ওয়াদুদ, জেলা শিল্পকলা একাডেমীর নির্বাহী সদস্য শহিদ পাটোয়ারী প্রমূখ।

এ সময় সকল সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন: