চাঁদপুর আইসোলেশনে ১জনসহ করোনা উপসর্গে ৪ জনের মৃত্যু

আনোয়ারুল হক:

চাঁদপুরে জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে আইসোলেশনে ১জনসহ জেলায় করোনা উপসর্গে ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার জেলার হাজীগঞ্জে ২জন, শাহরাস্তিতে ১জন ও মতলব উত্তরে ১জনের মৃত্যু হয়।

চাঁদপুর সদর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশনে মৃত্যু হয় মতলব উত্তর উপজেলার কালিকাপুর গ্রামের বাসিন্দা জয়নাল আবদীন(৮২) প্রদানের। সোমবার বেলা ১১টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় জ্বর ও শ্বাসকষ্টে তার মৃত্যু হয়।

শাহরাস্তি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আরএমও অচিন্ত রায় জানান, শাহরাস্তি পৌর ভূমি অফিসের কর্মচারী আবদুস সালাম (৪৮) বিকেল ৪টায় মারা যায়। নিজমেহার গ্রামে করোনা উপসর্গ জর, সর্দি ও কাশি তার মৃত্যু হয়। উপজেলা টেকনোলজিস্ট তার নমুন সংগ্রহ করেছে।

হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সেনেটারী কর্মকর্তা মো. জসিমউদ্দিন জানান, রোববার রাত সাড়ে ৯টায় ও সাড়ে ১০টায় হাজীগঞ্জে করোনা উপসর্গ নিয়ে আরো ২জনের মৃত্যু হয়েছে।

রাত সাড়ে ৯টায় উপজেলার হাটিলা পশ্চিম ইউনিয়নের পাতানিশ গ্রামের খোরশেদ আলম (৫৫) ও ২নং বাকিলা ইউনিয়নের খলাপাড়া পাটওয়ারী বাড়ীল জামাল পাটওয়ারী (৫৮) রাত সাড়ে ১০টায় করোনাভাইরাসের লক্ষণ জর, সর্দি ও কাশি নিয়ে মারা যান। এর মধ্যে খোরশেদ আলমের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। আর জামাল পাটওয়ারীর মৃত্যুর খবর পরে জানানোর কারণে সময় অতিবাহিত হওয়ায় তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়নি।

এ নিয়ে হাজীগঞ্জ উপজেলায় মোট ৪৪জন করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যান। পরে নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষায় তাদের মধ্যে ১২ জনের রিপোর্ট করোনা পজেটিভ আসে।

করোনা উপসর্গে নিহত এসব ব্যক্তিদের উপজেলা দাফন কমিটি স্বাস্থ্যবিধি মেনে দাফন কার্য সম্পাদন করেছেন।

চাঁদপুর জেলায় এ পর্যন্ত ৩৮জন করোনায় মারা গেছেন। জীবিত অবস্থায় তাদের কারোই করোনা শনাক্ত হয়নি। মৃত্যুর পর নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠানো হলে পরবর্তীতে তাদের রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

চাঁদপুর জেলায় সোমবার পর্যন্ত ৪৬৪ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *