চাঁদপুর উদ্যমী নারী এসএমই মেলার সমাপনি

নিজস্ব প্রতিবেদক:

চাঁদপুর উইমেন চেম্বার অব কমার্সের আয়োজনে উদ্যমী নারী এসএমই মেলায় চমক দেখিয়েছে বিজয়ী’র নারী উদোক্তারা। ১০দিন ব্যাপী এই পণ্য মেলায় সর্বদিক থেকে সবচেয়ে বেশি আলো ছড়িয়েছে অদম্য নারী উদ্যোগতাদের এই সংগঠনটি। জেলার এক ঝাঁক পরিশ্রমি, কর্মদক্ষ এবং সৃষ্টিশীল চিন্তার অদম্য নারীদের সংগঠন বিজয়ী এবারের মেলায় ২টি নিয়েছিল।

তাদের স্টলগুলোর ডেকোরেশনের নান্দনিকতা-সৌন্দর্য দর্শনার্থীদের মুগ্ধ করেছে। বেচাবিক্রি দিক থেকেও সবচেয়ে এগিয়ে ছিল বিজয়ী। যার ফলে মেলার সমাপনী দিনে বিজয়ীর হাতে শোভা পায় বেস্ট সেলারের সনদপত্র।

বিজয়ীর স্টলে ছিলো- শিশু এবং নারীদের জন্য নিজস্ব তৈরি পোশাক, নকশী কাঁথাসহ ঘর সাজানোর বিভিন্ন দৃষ্টিনন্দন উপকরণ, পিঠা আচার তৈরি খাবার ইত্যাদি। মেলায় তারা বিক্রি করেছে দেড় লক্ষাধিক টাকা। এই অর্জনের মূল কারিগর ছিল বিজেপির প্রতিষ্ঠাতা পরিশ্রমী ও কর্মদক্ষ নারী উদ্যোক্তা শারমিন আক্তার জুই। যার নেতৃত্বে ২০২১ সালে প্রতিষ্ঠা করা হয় বিজয়ী।

এ বিষয়ে বিজয়ী’র প্রতিষ্ঠাতা প্রেসিডেন্ট শারমিন আক্তার জুঁই বলেন, বিজয়ী মূলত নারী উদ্যোক্তাদের কর্মদক্ষতা বৃদ্ধির প্রশিক্ষণ বিষয়ক একটি ফেইসবুক পেইজ। যা ২০২১ সালে আমি প্রতিষ্ঠা করেছিলাম। আমরা এই পেজের মাধ্যমে আমরা নারী উদ্যোক্তাদের কর্মদক্ষতা বৃদ্ধি সহ বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকি।

আমি চাঁদপুর উইমেন চেম্বার অব কমার্সের প্রেসিডেন্ট মনিরা আক্তার আপাসহ এসএমই মেলার আয়োজকদের ধন্যবাদ জানাই। কারণ তারা আমাদেরকে এসএমই মেলায় অংশগ্রহণে সার্বিকভাবে সহযোগিতা করেছেন। আমাকে অনুপ্রেরণা দিয়ে পাশে থাকায় প্রিয় ভাই আশিক খানের প্রতি ধন্যবাদ জানাই। বিশেষ কৃতজ্ঞতা, বিজয়ীর সকল সদস্যের প্রতি। তাদের অক্লান্ত পরিশ্রম, মেধা এবং দক্ষতায় আমাদের এই সাফল্য এনে দিয়েছে।

তিনি আরো বলেন, আমি স্বপ্ন দেখি চাঁদপুরে এমন কিছু অদম্য নারী সৃষ্টি হবে, যারা নিজেদের যোগ্যতায় সমাজে আলো ছড়াবে। আমি বিজয়ী নারী উদ্যোক্তাদের জন্য চাঁদপুরবাসীর কাছে দোয়া প্রার্থনা করছি।

উদ্যমী নারী এসএমই মেলা সমাপনী অনুষ্ঠানে বিজয়ীসহ সকল অংশগ্রহণকারী নারী উদ্যোক্তাদের হাতে সনদপত্র তুলে দেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র মোঃ জিল্লুর রহমান জুয়েল। শিল্পচুড়ার আহবায়ক মাহবুবুর রহমান সেলিমের সভাপতিত্বে এসময় বাবুরহাট স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ মোশারফ হোসেন, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি গিয়াসউদ্দিন মিলন, সাধারণ সম্পাদক রিয়াদ ফেরদৌস, সাবেক সভাপতি বিএম হান্নান, চাঁদপুর টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি আল ইমরান শোভন, চাঁদপুর চেম্বার অব কমার্সের প্রেসিডেন্ট মনিরা আক্তার, সেক্রেটারি পাপড়ি বর্মণসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

বিজয়ী স্টলের দায়িত্বে ছিলেন, তুহিস ক্রাফটের সাবিহা রহমান, সুরুজ কালেকশনের সুরাইয়া আহমেদ, নুহা এন্ড আয়মন্ড বেবী ড্রেস হাউসের নুহা তাসনিম, ফুড ফাউন্ডেশনের আমেনা বারী, ফেব্রিকস হাউসের মুসরাত মুন্নি, সৌখিন কর্নারের নুসরাত ইয়াসমিন, স্টেলিন সাহার আনন্দঘরের বাম্পী রায়, চাঁদপুরী ফুডির তানজিলাল ঝুম্মি, ফ্যাশন কর্নারের সোনিয়া রহমান, বেলিস কিচেন, আযমা আক্তার।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published.