চাঁদপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাচন সম্পন্ন

আনোয়ারুল হক ॥

চাঁদপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার ইতিহাসে এই প্রথম ভোটের মাধ্যমে কার্যকরী পরিষদের নির্বাচন উৎসবমুখর পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১৬ মে সোমবার সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত চাঁদপুর স্টেডিয়ামের ভিআইপি প্যাভিলিয়ানে এ ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।

এ নির্বাচনে মোট ৫৭ জন ভোটার । ২৭ টি পদের বিপরীতে নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন ২৯ জন প্রার্থী। এর মধ্যে সাধারণ সম্পাদক পদে ২ জন এবং ১৪ টি সাধারণ সদস্য পদের বিপরীতে ১৫ জন প্রার্থী নির্বাচন করছেন। চিকিৎসাজনিত কারণে দেশের বাহিরে থাকায় ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাড. জাহিদুল ইসলাম রোমান তার ভোট দিতে পারেন নি।

চাঁদপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাচন কমিশনার ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. ইমতিয়াজ হোসেন দায়িত্ব পালন করছেন। বিকেল ৫ টায় ফলাফল ঘোষনা করেন প্রিজাইডিং কর্মকর্তা ও চাঁদপুর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ আবদুর রশিদ। এসময় রির্টানিং কর্মকর্তা রজত শুভ্র সরকার ও সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার মোঃ মনিরুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা যায়, চাঁদপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার কার্যকরী পরিষদের নির্বাচনে মোট ৫৭ জন ভোটারের মধ্যে একজন ভোটার দেশের বাহিরে অবস্থান করায় বাকি ৫৬ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।

নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদে সদস্য সাবেক সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা বাবুসহ তার পুরো প্যাণেল নির্বাচিত হয়েছে।

প্রাপ্ত তথ্যমতে, নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী গোলাম মোস্তফা বাবু ও তার প্যানেলের ১৪ জন কার্যনির্বাহী সদস্য পদপ্রার্থীসহ মোট ১৫ জন প্রার্থীর বিপরীতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন স্থানীয় একটি ক্লাবের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। আর সেই ক্লাবটি হচ্ছে শহরের কোড়ালিয়া আবাসিক এলাকার চাঁদপুর ইয়ুথ ক্লাব। মূলত চাঁদপুর ইয়ুথ ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক হচ্ছেন সাবেক ক্রিকেটার সফিউল আজম রাজন এবং গোলাম মোস্তফা বাবু হচ্ছেন সাবেক ফুটবলার ও পূর্ব শ্রীরামদী ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক।

অপরদিকে, ১৪ কার্যনির্বাহী সদস্য পদে প্যানেলের বিপরীতে একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছিলেন ওই ইয়ুথ ক্লাবেরি সভাপতি মোশারফ হোসেন পাটোয়ারী। তিনিও ৯ ভোট পেয়ে নির্বাচনে পরাজিত হয়েছেন। আর এই কার্যনির্বাহী সদস্য পদে ১৪ জনের জন্য প্রার্থী ছিলো মাত্র ১৫ জন। অর্থাৎ কার্যনির্বাহী সদস্য পদে মোশারফ হোসেন পাটোয়ারী ব্যাতীত অন্য সকল প্রার্থী ছিলো একই প্যাণেলের। মূলত এ নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদ নিয়েই নির্বাচনের প্রধান আকর্ষণ ছিলো।

নির্বাচনে অংশ নেয়া প্রার্থীদের মধ্যে সাধারণ সম্পাদক পদে গোলাম মোস্তফা বাবু ৪৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর প্রতিদন্দ্বি শফিউল আজম রাজন ৯ ভোট পেয়েছেন।

বিনা প্রতিদন্ধীতায় সহ-সভাপতি পদে আলহাজ্ব আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল, জাওয়াদুর রহিম (জে আর ওয়াদুদ টিপু), জাহিদুল ইসলাম রোমান ও নাছির উদ্দিন আহমেদ, অতিরিক্ত সাধারণ সম্পাদক পদে তাফাজ্জল হোসেন এসডু পাটওয়ারী, যুগ্ম-সম্পাদক পদে আবুল কাশেম আখন্দ ও সালাউদ্দিন আহমেদ, কোষাধ্যক্ষ পদে আবু নাছের পাটওয়ারী, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে মাসুদা নূর খান ও শিপ্রা দাস, উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার প্রতিনিধি পদে তপন চন্দ্র ও মোঃ নুরনবী নোমান বিজয় লাভ করেছেন।

সাধারণ সদস্য পদে জিল্লুর রহমান জুয়েল ৫৩ ভোট, মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ ৫৪ ভোট, ওমর পাটোয়ারী ৫৫ ভোট, আবু পাটোয়ারী ৫৩ ভোট, তমাল কুমার ঘোষ ৫৪ ভোট, ফেরদৌস মোরশেদ জুয়েল ৫৫ ভোট, মনোয়ার চৌধুরী ৫৩ ভোট, মিজানুর রহমান খান ৫৩ ভোট, আ: মোতালেব শেখ ৫৩ ভোট, মোশাররফ হোসেন পাটোয়ারী ৯ ভোট, শরীফ মো: আশরাফুল হক ৫৪ ভোট, শাহির হোসেন পাটোয়ারী ৫২ ভোট, সুভাষ চন্দ্র রায় ৫৩ ভোট, সেলিম আকবর ৫৩ ভোট ও হেলাল হোসাইন ৫২ ভোট পেয়েছেন। ১৪ টি পদে ১৫ জন প্রার্থীর মধ্যে মোশাররফ হোসেন পাটোয়ারী ৯ ভোট পাওয়ায় বাকি ১৪ জন সদস্য বিজয়ী হয়।

চাঁদপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার নব-নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা বাবু বলেন, ক্রীড়া সংস্থা এমন একটি জায়গা যেখানে সব গ্রুপ এক হয়ে কার্যকরী পরিষদের প্যানেল দিয়ে থাকেন এবং সেটাই হয়। ইতিমধ্যে সহ-সভাপতি পদে ৪ জন, সহ-সাধারণ সম্পাদক পদে ১ জন, যুগ্ম সম্পাদক পদে ২ জন, কোষাধ্যক্ষ পদে ১ জন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়ে গেছেন। বাকি পদগুলো জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপারসহ অন্যান্য কোটায় পদাধিকারবলে জেলা ক্রীড়া সংস্থার কার্যনির্বাহী পরিষদে অন্তর্ভুক্ত হবেন।

তিনি বলেন, দীর্ঘদিনের কাজের মূল্যায়ন হিসেবে আমাকে ভোটাররা পুনরায় নির্বাচিত করেছেন। আমি চেষ্টা করবো অতীতের ভুল-ত্রুটি বাদ দিয়ে নতুন করে এই ক্রীড়া সংস্থাকে এগিয়ে নিতে। তিনি সকলের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published.