চাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের নিয়ে আইনশৃঙ্খলা সভা

আনোয়ারুল হক:

আসন্ন চাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের নিয়ে আইনশৃঙ্খলা সভা করেছে জেলা প্রশাসন। শুক্রবার দুপুরে সদর উপজেলা পরিষদের হল রুমে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপ্রধান এবং সঞ্চালনায় ছিলেন জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান খান।

সভার শুরুতে উপস্থাপনা করেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ জামাল হোসেন। এরপর নির্বাচনী আচরণবিধি এবং নানা বিষয়ে তথ্যমূলক বক্তব্য উপস্থাপন করেন জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও এ নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার মোঃ তোফায়েল হোসেন।

সভায় প্রতিদ্বন্দ্বী তিনজন মেয়র প্রার্থী এবং সাধারণ ওয়ার্ড ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থীসহ অর্ধশতাধিক প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী উপস্থিত ছিলেন। তাঁদের মধ্য থেকে বক্তব্য রাখেন ২৭ জন।

প্রার্থীদের মধ্য থেকে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী অ্যাডঃ জিল্লুর রহমান জুয়েল, বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী আক্তার হোসেন মাঝি ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত প্রার্থী মামুনুর রশিদ বেলাল। সাধারণ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থীদের মধ্যে অ্যাডঃ মোঃ হেলাল হোসাইন, আব্দুল মালেক শেখ, সিদ্দিকুর রহমান ঢালী, মোঃ সোহেল রানা, জিয়া প্রধানিয়া, মক্কু ছৈয়াল, আসলাম গাজী, মাঈনুল ইসলাম পাটোয়ারী, অ্যাডঃ কবির চৌধুরী, আলমগীর গাজী, সংরক্ষিত ওয়ার্ডে খালেদা বেগম, ফরিদা ইলিয়াস প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

বক্তাদের প্রায় সবাই এখনো পর্যন্ত চাঁদপুরে নির্বাচনকালীন আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি ভালো আছে বলে মন্তব্য করেন। এছাড়া দু-একজন কাউন্সিলর প্রার্থী তাদের প্রচারণা কাজ নির্বিঘেœ করতে পারছেন না বলে অভিযোগ করেন। তবে অধিকাংশ প্রার্থী ভোটারদের কেন্দ্রে আসা নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেন। একই সাথে এই শঙ্কা দূর করতে প্রশাসন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এবং প্রার্থীদের ভূমিকা রাখার ব্যাপারেও তারা মতামত ব্যক্ত করেন। আর ভোটাররা ভোট কেন্দ্রে এসে নির্বিঘেœ যাতে নিজের ভোট নিজে দিতে পারেন সে ব্যাপারেও কোনো কোনো প্রার্থী নিশ্চয়তা চান।

বক্তাদের বক্তব্যের আলোকে পুলিশ সুপার মোঃ মাহবুবুর রহমান তাঁর বক্তব্যে বলেন, একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর যা যা করণীয় প্রয়োজন তাই করবে। এর বিন্দুমাত্র ব্যত্যয় ঘটবে না, কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। প্রতিটি কেন্দ্রে পুলিশের পাশাপাশি আনসার সদস্যরা থাকবে। আর র‌্যাব এবং বিজিবি স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে থাকবে। ভোট কেন্দ্রের আশপাশে কোনো ধরনের গোলযোগের ঘটনা শোনামাত্র স্ট্রাইকিং ফোর্স কেন্দ্রে ছুটে যাবে। পুলিশ সুপার বলেন, নির্বাচনের দুইদিন আগে, নির্বাচনের দিন এবং পরের দিন এই চারদিন সব কিছু আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে যে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে, তা বাস্তবায়নে আমরা কঠোর অবস্থানে থাকবো।

র‌্যাব-১১, কুমিল্লার কমান্ডার মেজর তালুকদার নাজমুছ সাকিব তাঁর বক্তব্যে বলেন, নির্বাচনকালে র‌্যাবের উপর স্পেশালী একটা দায়িত্ব থাকে। এর বাইরেও জেলার আইনশৃঙ্খলা নজরদারিতে রাখতে র‌্যাব-১১’র দায়িত্ব রয়েছে। নির্বাচনের দিন আমরা স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে থাকবো। কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলাকে আমরা প্রশ্রয় দেবো না। র‌্যাবকে যাতে তার আসল রূপ দেখাতে না হয় সে সহযোগিতা সকলের কাছে প্রত্যাশা করছি।
বিজিবি, কুমিল্লার উপ-অধিনায়ক মেজর আব্দুল্লাহ আল ফারুকী তাঁর বক্তব্যে বলেন, নির্বাচনের দুদিন আগ থেকেই র‌্যাব ও বিজিবি চাঁদপুরে চলে আসবে। নির্বাচনের পরদিন পর্যন্ত মাঠে সক্রিয়ভাবে থাকবে। কোথাও আইনশৃঙ্খলার কোনো ধরনের অবনতির সংবাদ পাওয়ামাত্র আমরা অ্যাকশানে যাবো। আরো বক্তব্য রাখেন আনসার ও ভিডিপির জেলা কমান্ড্যান্ট মোঃ ইব্রাহিম খলিল।

জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান খান সকলের বক্তব্য শুনে সমাপনী বক্তব্য রাখেন। তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, চাঁদপুর পৌরসভার নির্বাচনটি আমরা খুবই গুরুত্বের সাথে নিয়েছি। এ পৌরসভাটিও খুবই গুরুত্বপূর্ণ পৌরসভা। প্রার্থী এবং জনগণ যেটি চাচ্ছে যে, উৎসবমুখর পরিবেশে একটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হোক; আমরা সেটাই করবো। সকলের সহযোগিতায় একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন করতে আমরা বদ্ধপরিকর। এ ব্যাপারে কোনো ছাড় নেই।

সভায় উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কানিজ ফাতেমা, সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃ দেলোয়ার হোসেন, এনএসআইর উপ-পরিচালক মোঃ এমরান হোসাইন, ডিজিএফআইর কর্মকর্তা মোঃ সফিউর রহমান, কোস্টগার্ড চাঁদপুরের স্টেশন কমান্ডার মোঃ ইসহাক, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি গিয়াস উদ্দিন মিলন, সাধারণ সম্পাদক এএইচএম আহসান উল্লাহ, টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি আল ইমরান শোভন, সাধারণ সম্পাদক রিয়াদ ফেরদৌস, ফটোজার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি একে আজাদ, সাধারণ সম্পাদক তালহা জোবায়ের প্রমুখ।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *