চাঁদপুর প্রেসক্লাবের শোকসভা

নিজস্ব প্রতিবেদক॥

চাঁদপুর প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য বাবু শংকর চন্দ্র দে, প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদকের পিতা আলহাজ¦ হাবিব উল্লাহ খান এবং প্রবীণ সাংবাদিক মিয়া মোঃ আবদুল খালেকের মৃত্যুতে শোকসভা করেছে চাঁদপুর প্রেসক্লাব।

প্রেসক্লাব সভাপতি গিয়াসউদ্দিন মিলনের সভাপ্রধানে সভাটি পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক রিয়াদ ফেরদৌস।

বক্তব্য রাখেন সাবেক সভাপতি কাজী শাহাদাত, অধ্যক্ষ জালাল চৌধুরী, শহীদ পাটোয়ারী, শরীফ চৌধুরী, ইকবাল হোসেন পাটওয়ারী। সাবেক সাধারণ সম্পাদক রহিম বাদশা, সোহেল রুশদী, লক্ষ্মণ চন্দ্র সূত্রধর, এএইচএম আহসান উল্লাহ, ক্লাবের প্রবীণ সদস্য অধ্যাপক দেলোয়ার আহমেদ, ফারুক আহমদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আল ইমরান শোভন, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহাদাত হোসেন শান্ত, প্রেসক্লাবের কার্যনির্বাহী সদস্য অধ্যাপক মোশাররফ হোসেন লিটন, কাদের পলাশ, একে আজাদ, প্রেসক্লাবের সিনিয়র সদস্য ফণী ভূষণ চন্দ, শওকত আলী, ক্লাবের সদস্য মিজানুর রহমান, এম আর ইসলাম বাবু, এস এম মোরশেদ সেলিম, আজীবন সদস্য এম আই মমিন খান। চাঁদপুর জেলা বস্ত্র ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আনোয়ার হোসেন বাবুল। প্রয়াত শংকর চন্দ্র দে’র ছোট ছেলে পার্থ প্রতিম দে, মরহুম মিয়া মোঃ আবদুল খালেকের ছেলে শফিকুল ইসলাম। শোক সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন এম আই মমিন খান। গীতা পাঠ করেন লক্ষ্মণ চন্দ্র সূত্রধর। এরপর, প্রয়াত ব্যক্তিদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

সভায় বক্তারা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদকের পিতা মরহুম আলহাজ¦ হাবিব উল্লাহ খানকে একজন সৎ, আদর্শ ব্যবসায়ী এবং ভালো মানুষ হিসেবে মূল্যায়ন করেন। তারা বলেন, হাবিব উল্লাহ খানের জীবদ্দশায় তিনি মসজিদ, মাদ্রাসা এবং আলেম উলামাদের সাথে সুসম্পর্ক রেখে গেছেন। বক্তারা মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

শোক সভায় বক্তারা বলেন, প্রয়াত সাংবাদিক শংকর চন্দ্র দে এবং মিয়া মোঃ আবদুল খালেক জীবদ্দশায় সৎ এবং নির্ভীক সাংবাদিক ছিলেন। দুজনেই ছিলেন, সত্য ও ন্যায়ের প্রতিক। বর্তমান প্রজন্মের সাংবাদিকরা তাদের আদর্শ অনুকরণ, অনুসরণ করলে সঠিক সাংবাদিকতা কখনো দিক হারাবে না। সভায় প্রয়াত এই দুই সাংবাদিকের আত্মার শান্তি কামনা করে শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

শেয়ার করুন: