চাঁদপুর প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদকের পিতার দাফন সম্পন্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক॥

চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক রিয়াদ ফেরদৌসের পিতা ও চাঁদপুর জেলা বস্ত্র ব্যবসায়ী সমিতির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি হাবিব উল্লাহ খানের নিজ বাড়িতে দাফন সম্পন্ন হয়েছে। মরহুমের প্রথম জানাজা চাঁদপুর শহরের হাসান আলী হাই স্কুল মাঠে বেলা ১১টায় এবং বাদ যোহর মরহুমের গ্রামের বাড়ি রঘুনাথপুরের আদম খান বাড়িতে ২য় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

দুটি জানাযার পূর্বে মরহুমের জীবনের স্মৃতিচারণ করে বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ওসমান গনি পাটওয়ারী, চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র জিল্লুর রহমান জুয়েল, চাঁদপুর প্রেসক্লাব সভাপতি গিয়াসউদ্দিন মিলন, মরহুমের একমাত্র ছেলে চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক রিয়াদ ফেরদৌস ,সহ-সভাপতি এএইচএম আহসান উল্লাহ, শিক্ষা প্রকৌশলী অধিদপ্তরের প্রকল্প পরিচালক মোঃ আবুল হাসেম, চাঁদপুর টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি আল ইমরান শোভন, এডভোকেট জসিম উদ্দিন পাটওয়ারী, চাঁদপুর জেলা বস্ত্র ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আনোয়ার হোসেন বাবুল, জেলা ফটোজার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের কোষাধক্ষ্য মাওঃ মোঃ আবদুর রহমান গাজী, মাওঃ অলিউর রহমান, মরহুমের জেঠাতো ভাই মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল আজিজ খান, ছোট ভাই মোঃ আকরাম খান প্রমুখ।

মরহুমের দ্বিতীয় জানাজায় ইমামতি করেন ছারছীনা দরবারের জেলা প্রতিনিধি ও জেলা ইমাম সমিতির সভাপতি মাওঃ মোঃ সাইফুদ্দিন খন্দকার। প্রথম জানাজায় ইমামতি করেন আলী রাজা জামে মসজিদের খতিব হাফেজ মাওলানা মোঃ ইসমাইল হোসেন।

আলহাজ্ব হাবিবউল্লাহ খান চাঁদপুর শহরের শহীদ মুক্তিযোদ্ধা সড়কস্থ (মিশন রোড) উলফত কটেজ নামের নিজস্ব বাড়িতে বসবাস করতেন। তিনি চাঁদপুর শহরের পালবাজার এলাকার হাবিব ক্লথ স্টোরের স্বত্বাধিকারী ছিলেন। চাঁদপুরের ঐতিহাসিক বেগম জামে মসজিদের কমিটির এক সময়ে সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন।

এছাড়াও তিনি ছারছীনা শরিফের হযরত পীর ছাহেব কেবলার একজন মুরিদ ছিলেন। চাঁদপুরের বিভিন্ন মসজিদ মাদ্রাসার খেদমতে মধ্যে নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন। তাঁর মৃত্যুতে চাঁদপুরে বিভিন্ন মহলে গভীর শোকের ছায়া নেমে আসে।

এদিকে চাঁদপুর জেলা বস্ত্র ব্যবসায়ী সমিতির নেতৃত্বে অস্ত্র ব্যবসায়ীরা মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে মরহুমের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।
অপরদিকে মরহুমের মৃত্যুর খবর শুনে চাঁদপুর ছারছীনা পীর ছাহেবের প্রতিষ্ঠিত চাঁদপুর দারুচ্ছুন্নাত দীনিয়া মাদ্রাসায় মাগফিরাত কামনা করে কোরআন খতম ও দোয়া মোনাজাত করা হয়।
উল্লেখ্য,আলহাজ্ব হাবিব উল্লাহ খান সোমবার (৭ ফেব্রুয়ারী) সোমবার রাত সোয়া দশটায় ঢাকা বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তিনি এক ছেলে তিন মেয়েসহ বহু স্বজন এবং অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

শেয়ার করুন: