চাঁদপুর-শরীয়তপুর টানেল নির্মাণ হলে দেশের যোগাযোগ ক্ষেত্রে তা গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে:শিক্ষামন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার:

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপি বলেছেন, চাঁদপুরের উন্নয়নে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা একের পর এক বরাদ্দ দিয়ে চলেছেন। তাঁর কাছে আমাদের অশেষ কৃতজ্ঞতা। এছাড়া আরো অনেক গুরুত্বপূর্ণ সমস্যার সমাধান এবং উন্নয়ন প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এর মধ্যে চট্টগ্রামের কর্ণফুলী নদীর তলদেশে নির্মিতব্য বঙ্গবন্ধু টানেলের আদলে চাঁদপুর-শরীয়তপুর নৌ-রুটে নদীর তলদেশ দিয়ে টানেল নির্মাণের পরিকল্পনা চলছে। এটি নির্মিত হলে দেশের যোগাযোগ ক্ষেত্রে তা গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে।

ডা. দীপু মনি মঙ্গলবার রাতে চাঁদপুর প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দের সাথে শুভেচ্ছা বিনিমিয়কালে এসব কথা বলেন। ঢাকার হেয়ার রোডস্থ শিক্ষামন্ত্রীর সরকারি বাসভবনে দীর্ঘ সময় ধরে সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত শুভেচ্ছা বিনিময়ে চাঁদপুরের সমস্যা-সম্ভাবনা ও উন্নয়ন নিয়ে ব্যাপক আলোচনা হয়।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর প্রেসক্লাব সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটওয়ারী, সাধারণ সম্পাদক রহিম বাদশা, সদ্য বিদায়ী ভারপ্রাপ্ত সভাপতি গিয়াসউদ্দিন মিলন, সদ্য বিদায়ী সাধারণ সম্পাদক এএইচএম আহসান উল্লাহ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুল আউয়াল রুবেল, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান সুমন, কার্যকরী সদস্য রোকনুজ্জামান রোকন। এছাড়া কেন্দ্রীয় যুবলীগের কার্যনির্বাহী সদস্য জাফর ইকবাল মুন্না উপস্থিত ছিলেন।
মন্ত্রী বলেন, চাঁদপুর শহরকে মেঘনার ভাঙন থেকে রক্ষায় জরুরী ভিত্তিতে স্বল্পমেয়াদী প্রকল্প এবং দীর্ঘমেয়াদী স্থায়ী প্রকল্প গ্রহণের কাজ চলছে। চাঁদপুর নৌ-বন্দর নির্মাণ কাজও সহসা শুরু হবে। তাছাড়া চাঁদপুর মেডিক্যাল কলেজ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব ক্যাম্পাস স্থাপনের সার্বিক প্রস্তুতি এগিয়ে চলছে। তবে এ জন্য কিছুটা সময় লাগতে পারে। চাঁদপুর সদরের মেঘনার চরে আন্তর্জাতিক মানের পর্যটন কেন্দ্র স্থাপনের সম্ভাব্যতা যাচাই করা হচ্ছে।

চাঁদপুর শহরকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন সুন্দর শহরে রূপদানে আশাবাদ ব্যক্ত করে ডা. দীপু মনি বলেন, পৌরবাসী সহযোগিতা করলে পৌর মেয়র জিল্লুর রহমান জুয়েল এই শহরকে একটি পরিচ্ছন্ন শহরে রূপদান করতে পারবেন। চাঁদপুর শহরের লেক ও এসবি খাল সংস্কার করে তা পর্যটন এবং শহরবাসীর সহজ নৌযোগাযোগের মাধ্যম হতে পারে। এ ক্ষেত্রে পৌর মেয়রের যে কোনো উদ্যোগে তার আন্তরিক সহযোগিতা থাকবে জানান চাঁদপুর সদর আসনের এই সংসদ সদস্য।

অনুষ্ঠানে সম্প্রতি অনুষ্ঠিত চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপিকে প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে অভিনন্দনপত্র, উত্তরীয় ও উপহার প্রদান করেন উদযাপন পরিষদের আহ্বায়ক গিয়াসউদ্দিন মিলন ও সদস্য সচিব এএইচএম আহসান উল্লাহ।
অনুষ্ঠানের শুরুতে চাঁদপুর প্রেসক্লাবের নবনির্বাচিত কমিটির পক্ষ থেকে ডা. দীপু মনি এমপিকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটওয়ারী ও সাধারণ সম্পাদক রহিম বাদশার নেতৃত্বে কমিটির নেতৃবৃন্দ। ডা. দীপু মনি প্রেসক্লাবের নবনির্বাচিত কমিটির সকল নেতৃবৃন্দকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়ে তাদের মিষ্টিমুখ করান এবং প্রেসক্লাব তথা সাংবাদিকদের উন্নয়নে সর্বাত্মক সহযোগিতা অব্যাহত রাখার আশ্বাস প্রদান করেন।

এ সময় মহান মুক্তিযুদ্ধে অনন্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ চাঁদপুর প্রেসক্লাব প্রদত্ত মরণোত্তর সংবর্ধনা ক্রেস্ট তার ছেলে জাফর ইকবাল মুন্নার হাতে তুলে দেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপি। এছাড়া চাঁদপুর প্রেসক্লাবের নবনির্বাচিত কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান সুমন ও কার্যকরী সদস্য রোকনুজ্জামান রোকনকে অভিষেক অনুষ্ঠানের ক্রেস্ট প্রদান করেন ডা. দীপু মনি।

Recommended For You

About the Author: News Room

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *