চাঁদপুর সদরে একই ইউপিতে চাচা ভাতিজা চেয়ারম্যান প্রার্থী

আনোয়ারুল হক:

সারাদেশে আগামী ১১ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে দ্বিতীয় ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। চাঁদপুর সদর উপজেলার ১০টি ইউনিয়নে এই ধাপে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। সদর উপজেলা ৬নং মৈশাদী ইউনিয়নেও এই দ্বিতীয় ধাপে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

মৈশাদী ইউনিয়নে সাধারণ ভোটারদের মাঝে নির্বাচনের তেমন কোন প্রতিক্রিয়া না থাকলেও প্রার্থীরা চষে বেড়াচ্ছেন ভোটারদের দ্বারপ্রান্তে । চায়ের ষ্টলে নির্বাচনের তেমন কোন প্রভাব না থাকলেও কয়েক জনের সাথে আলাপ করলে তারা জানায়, সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলে চাচা ভাতিজার মধ্যেই লড়াই হবে।

ইতোমধ্যে প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। গুটি কয়েজন বাদে প্রায় সকল প্রার্থীরই মনোনয়নপত্র বৈধ বলেও নির্বাচন কমিশন ঘোষণা করেছেন।

মৈশাদী ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৪ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন এবং সকলেরই মনোনয়পত্র বৈধ বলে ঘোষণা করেছেন নির্বাচন কমিশন।

প্রার্থীরা এখন অপেক্ষায় রয়েছেন তাদের পছন্দমতো প্রতীকে সবুজ সংকেতের অপেক্ষায়। দ্বিতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনে বিএনপি নির্বাচনে অংশ না নেওয়ায় দলীয় প্রতীকে কেবল ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও ইসলামী আন্দোলন তাদের দলীয় প্রতীকে নির্বাচন করছেন।

মৈশাদী ইউনিয়নে ইতোমধ্যে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন ও যাদের নাম বৈধ বলে ঘোষণা করা হয়েছে তারা হচ্ছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ মনিরুজ্জামান পাটোয়ারী মানিক, আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করছেন চাঁদপুর জেলা পরিষদের সাবেক সদস্য ও মৈশাদী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মোঃ নুরুল ইসলাম পাটোয়ারী, সতন্ত্র প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান আবু জাফর সালেহ মোহাম্মদ আলী পাটোয়ারী, ইসলামী আন্দোলন হাতপাখায় নির্বাচন করছেন মোঃ আজহারুল ইসলাম।

বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ মনিরুজ্জামান মানিকের সাথে। বিগত নির্বাচনে তিনি বিএনপি’র মনোনীত প্রার্থী হিসেবে ধানের শীষ প্রতীকে নির্বাচন করলেও বর্তমানে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করছেন।

তিনি জানান, কেন্দ্রীয়ভাবে বিএনপি নির্বাচনের পক্ষে না, বর্তমান ইউপি নির্বাচনের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে। কিন্তু এই ইউনিয়নে যেহেতু আমি এখনো চেয়ারম্যান পদে বহাল রয়েছি, জনগণের আশা-আকাঙ্ক্ষা আমার প্রতি রয়েছে,সে দিক থেকে দল থেকে নির্বাচনের বিপক্ষে অবস্থান নিলেও, জনগনের আশা-আকাঙ্খার কারণে আমি মনোনয়নপত্র উত্তোলন করি ও জমা দেই এবং ইতিমধ্যে নির্বাচন কমিশন আমার মনোনয়ন পত্রটি বৈধ বলে ঘোষণা দিয়েছেন।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ থেকে নৌকা প্রতীকে মনোনীত প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছেন জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও মৈশাদী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মোঃ নুরুল ইসলাম পাটোয়ারী। নির্বাচনে বর্তমান চেয়ারম্যান ভাতিজা মোঃ মনিরুজ্জামান পাটোয়ারী নির্বাচনে অংশগ্রহণ করলেও জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী বলে নিজের অভিমত ব্যক্ত করেন।

তিনি জানান, এটা আমার চতুর্থ নির্বাচন। আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে এ ইউনিয়নে আমরা ৪ জন প্রার্থী। আশা এবার আমি জয় লাভ করব।

এ দিকে বিএনপির আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান আবু জাফর মোহাম্মদ সালেহ , বাংলাদেশ ইসলামী আন্দোলনের হাতপাখা প্রতীকে প্রার্থী হয়েছেন আজহারুল ইসলাম।

এদিকে প্রশাসন ও সকল প্রার্থীর কাছে ইউনিয়নের সাধারণ মানুষ আগামী ১১ নভেম্বর একটি সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের জোর দাবি জানান। ভোটারা যাতে নির্বিঘ্নে ভোট কেন্দ্রে যেতে পারে এজন্যও সকল প্রার্থী প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *