চাঁদপুর স্টেডিয়াম আধুনিকায়নে ২৪ কোটি টাকা দেয়া হবে : যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী

মনিরা আক্তার মণি ॥

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল এমপি বলেছেন, দেশে আজ উন্নয়নের জোয়ার বইছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যুগান্তকারী পদক্ষেপে বাংলাদেশ উন্নত দেশে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। দেশে খাদ্যের সংকট নেই, বিদ্যুৎ ঘাটতি নেই, উন্নয়নের বাজেট ঘাটতি নেই। প্রধানমন্ত্রী মুখে যা বলেন কাজেও তাই করেন। বর্তমানের বাংলাদেশ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে এক বদলে যাওয়া বাংলাদেশ। সফল জাতি গঠনে ক্রীড়ার বিকল্প নেই। মাদক ও অপসংস্কৃতি থেকে সমাজকে দূরে রাখতে ক্রীড়ার কোনো বিকল্প নেই। ক্রীড়া শক্তিকে আমরা যতটা বিকশিত করতে পারব, আমাদের ততটাই উন্নয়ন হবে।

বুধবার (২৫ মে) বিকালে চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদের মাঠে আয়োজিত বঙ্গবন্ধু টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা শেষে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, ক্রীড়াবান্ধব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাষ্ট্র পরিচালনাকালেই বাংলাদেশ ক্রীড়াঙ্গনের সবচেয়ে বড় অর্জনগুলো স্পর্শ করেছে।

তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন পদ্মা সেতু করবেন, তিনি করে দেখিয়েছেন। তিনি বলেছেন বাংলাদেশের মানুষ না খেয়ে থাকবে না। তিনি বলেছিলেন বাংলাদেশ উন্নত দেশে পরিণত হবে, তাই হয়েছে। তাই বর্তমান আওয়ামী লীগ জনগণের প্রিয় সরকার হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।
তিনি আরও বলেন, চাঁদপুর স্টেডিয়াম আধুনিকায়নে ২৪ কোটি টাকা দেয়া হবে। জেলার বাকি ৭ টি উপজেলাতে স্টেডিয়াম নির্মাণ করা হবে। সারাদেশে উপজেলাগুলোতে শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম হবে। এসব উন্নয়নের রুপকার মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর সহ সকল শহীদদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন।

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বলেন,আমরা সৌভাগ্যবান যে একজন ক্রীড়াবান্ধব প্রধানমন্ত্রী পেয়েছি। আমার জানা নেই, বিশ্বের আর কোনো দেশের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার মতো এতোটা ক্রীড়া অন্তপ্রাণ কিনা!

প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে জাহিদ আহসান রাসেল বলেন, প্রধানমন্ত্রীর সার্বিক পৃষ্ঠপোষকতায় দুর্বার গতিতে এগিয়ে চলছে আমাদের ক্রীড়াঙ্গন। ক্রিকেট, আর্চারি, শ্যুটিং, হকি, দাবা, সুইমিং ও ফুটবলসহ সব খেলায় আমাদের খেলোয়াড়রা জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে একের পর এক সাফল্য নিয়ে আসছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সুখে-দুঃখে সবসময় আমাদের খেলোয়াড়দের পাশে ছায়ার মতো থাকেন। স্পোর্টসের উন্নয়নে বা যেকোন ক্রীড়াবিদ বা ক্রীড়া সংগঠকের যেকোন সমস্যায় তিনি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন।

খেলার পৃষ্ঠপোষকতায় ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, চাঁদপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আলহাজ্ব অ্যাড. নুরুল আমিন রুহুল, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুস। সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার গাজী শরিফুল হাসান।
বঙ্গবন্ধু টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল ম্যাচে ছেংগারচর সরকারি মডেল উচ্চ বিদ্যালয় বনাম নাউরী আহম্মাদীয়া উচ্চ বিদ্যালয় অংশগ্রহণ করে। আবহাওয়া অনুকূলে না থাকায় ১৫ ওভার করে খেলা হয়। চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ছেংগারচর সরকারি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়।

উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক একে আজাদের সঞ্চালনায় আরো বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের সাবেক চেয়ারম্যান কবির আহমেদ খান, উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মনজুর আহমদ, উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান, সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ছেঙ্গারচর পৌরসভার প্রশাসক মো. হেদায়েত উল্লাহ প্রমুখ।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published.