জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন সম্পর্কে সেমিনার

নিজস্ব প্রতিবেদক॥

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ অবহিতকরণ ও বাস্তবায়ন বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। চাঁদপুর জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের আয়োজনে ও জেলা প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় বুধবার সকাল সাড়ে ১০ টায় চাঁদপুর জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে এ সেমিনারের আয়োজন করা হয়।

সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, আমাদের কাজ হচ্ছে শাস্তি দেওয়া নয়, মানুষকে সচেতন করা। নিয়ম মেনে সবাই যেন কাজ করে। মানুষের মধ্যে সচেতনা তৈরী করাই হচ্ছে মূল উদ্দেশ্য। ক্লোজডোরে সেমিনার করে সীমাবদ্ধ না থেকে মার্কেটগুলোতেও সচেতনাতামূলক প্রচারণা করতে হবে। এই আইনের আরেকটি বিষয় হচ্ছে যিনি অভিযোগকারী তিনি তার অভিযোগের ভিত্তিতে জরিমানার ২৫ শতাংশ টাকা উপহার পাচ্ছেন।

জেলা প্রশাসক আরো বলেন, আমরা হরহামেশাই প্রতারিত হচ্ছি। প্রায় সেক্টরেই এ অবস্থা। একেকজন একেকরকম সেবা দিচ্ছে ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ক্লিনিকগুলোতে।এতো এতো টেষ্ট দিচ্ছেন রোগিদের। কোন কোন ডাক্তার প্রয়োজনের অতিরিক্ত টেষ্ট করাচ্ছেন। এতে মানুষ আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ডাক্তারদের চেম্বারগুলোতে একটি নির্ধারিত ফি নির্ধারণ করে দেয়া উচিত। নির্দিষ্ট নিয়মের মধ্যে নীতিমালা করা উচিত। সার্বিকভাবে আমরা ভোক্তারা সচেতন হলে সিন্ডিকেট ভেঙ্গে যেতে বাধ্য।

তিনি বলেন, ভোক্তাদের সুবিধার জন্য আইন করা হয়েছে। সেই আইন যথাযথভাবে প্রয়োগ করতে হবে। এক্ষেত্রে আইনের বিষয়টি ভোক্তার পাশাপাশি বিক্রেতারও জানা দরকার।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ইমতিয়াজ হোসেনের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, চাঁদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সানজিদা শাহনাজ, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটওয়ারী, স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত নারী মুক্তিযোদ্ধা ডা. সৈয়দা বদরুন্নাহার চৌধুরী, জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের সহকারি পরিচালক মিয়া আহম্মেদ ফিরোজ খান, ক্যাব এর সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মোশাররফ হোসেন, দোকান মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম ভূঁইয়া প্রমূখ। ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারি পরিচালক মো. নূর হোসেন ভোক্তা অধিকার সম্পর্কিত ডকুমেন্টারি উপস্থাপন করেন।

শেয়ার করুন: