জুয়া খেলায় হারার কারণেই রেহান মিজিকে হত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক॥

চাঁদপুর শহরের নিউ ট্রাক রোডের খান সড়কে শারমিন ভিলার ৩য় তলার খুন হন রেহান মিজি। সে ওই ভবনের ভাড়াটিয়া ছিলেন। তিনি শরীয়তপুরের বাসিন্দা ড্রেজার ও বালু ব্যবসা করতো। সেই চাঞ্চল্যকর রেহান মিজি হত্যা মামলার চার্জশিট আদালতে দাখিল করেছে তদন্তকারী কর্মকর্তা।

জানা যায়,গত বছরের ২৪ জুন চাঁদপুর শহরের নিউ ট্রাক রোডের খান সড়কের শারমিন ভিলার ৩য় তলার ভাড়াটিয়া ড্রেজার ও বালু ব্যবসায়ী রেহান মিজি (৬০)কে হত্যার ঘটনার ৩ মাস পর গত বছরের নভেম্বর মাসের ২ তারিখে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা চাঁদপুর সদর মডেল থানার ইন্সপেক্টর ইন্টেলিজেন্স এন্ড অপারেশন এনামুল হক চৌধুরী দীর্ঘ তদন্ত শেষে উক্ত মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন বা চার্জশিট আদালতে দাখিল করেন ।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা চাঁদপুর সদর মডেল থানার ইন্সপেক্টর ইন্টেলিজেন্স এন্ড অপারেশন এনামুল চৌধুরী দীর্ঘ তদন্ত শেষে আদালতে দাখিলকৃত চার্জশিটে উল্লেখ করেন নিহত রেহান মিজি হত্যার পর তার মোবাইল কল লিস্ট এবং উক্ত সড়কের জনৈক বাসিন্দার বাসার সামনে স্থাপিত সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে মুলত আসামী শনাক্ত করে আটক করা হয়।

এরপর আটক আসামীর স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি থেকে জানা যায় রেহান মিজিকে হত্যার মুল রহস্য হচ্ছে জুয়া খেলাকে কেন্দ্র করে। মুলত রেহান মিজি প্রায়ই জুয়া খেলার কারণে তিনি জয়ী হতেন। তার সাথে প্রায়ই জুয়া খেলতেন এই মামলার একমাত্র আসামী এবং হত্যার পরিকল্পনাকারী মোঃ খোরশেদ আলম (২৭) পিতামৃত-মোস্তফা ভূঁইয়া, সাং শেফালী পাড়া, রামগঞ্জ, লক্ষীপুর জেলা। সে প্রায়ই নিহত রেহান মিজির সাথে জুয়া খেলায় প্রায়ই হেরে যায়। এজন্যে মনের ক্ষোভে সে নিজ থেকে নিজে একা হত্যার পরিকল্পনা করে তাঁকে জুয়া খেলার জন্যে বলে। সে মোতাবেক উক্ত খেলায় ঘাতক খোরশেদ পুনরায় ৫০ হাজার টাকা হেরে গিয়ে রেহান মিজির সাথে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে মৃত্যু নিশ্চিত করে উক্ত বাসা থেকে পালিয়ে যায়।

এদিকে ঘটনার পর রেহান মিজির স্ত্রী পারভীন বেগম বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করে। এ মামলায় হত্যার ঘটনা উদ্ঘাটনে পুলিশ উক্ত ঘাতক খোরশেদ আলম ছাড়াও আরো ৪ জনকে আটক করা হয়। এই মামলায় আটক ৪ জনকে আসামী করা হলেও তদন্তকারী কর্মকর্তার তদন্ত রিপোর্টে এবং ঘাতক খোরশেদের জবানবন্দির কারণে অন্য ৪ আসামীকে মামলা থেকে অব্যাহতি প্রদান করা হয়। ফলে এ ঘটনার মুল আসামী এবং একমাত্র আসামী ঘাতক খোরশেদ জেলহাজতে রয়েছেন।

শেয়ার করুন: