জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভা

মাসুদ রানা:

চাঁদপুর জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৮ জানুয়ারি রোববার সকালে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে সভায় সভাপতিত্ব করেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এএসএম মোসা।

সভার আলোচ্য বিষয়বস্তু ছিল বিগত সভার পর্যালোচনা ও অনুমোদন,সড়ক দূর্ঘটনা প্রতিরোধ ও নিরাপদ সড়ক আইন বাস্তাবায়ন সংক্রান্ত, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে মাস্ক পরিধান সংক্রান্ত, নিয়মিত আইন-শৃঙ্খলা পর্যালোচনা ও মোবাইল কোর্ট পরিচালনা সংক্রান্ত, মাদক দ্রব্য ও চোরাচালান সংক্রান্ত, মানবপাচার সংক্রান্ত, বাজার মনিটরি সংক্রান্ত,নারী নির্যাতন ও ইভটিজিং সংক্রান্ত, পরিবেশ সংরক্ষণ, দূষন প্রতিরোধে পলিথিন ও ইটভাটা নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রম, গ্রাম আদালত কার্যক্রম পরিচালনা ও বিবিধ। তবে সভায় বিষয়বস্তুর আলোকে অনেক দপ্তরের প্রধান বা প্রতিনিধি কেউই উপস্থিত না থাকায় সভাপতি দপ্তরের নাম ডেকেও কাউকে পাওয়া যায়নি।

সভাপতির বক্তব্যে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এ.এস.এম মোসা বলেছেন, জাতীয় নির্বাচন সামনে রেখে এই বছরটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ বছর। নির্বাচনে জয়ের জন্য অনেকে নানা ছক তৈরি করবেন। নির্বাচনে অনেক প্রার্থীর মধ্যে মাত্র একজন জয়লাভ করেন। আর বাকিরা পরাজিত হবেন। সুষ্ঠু ও স্বাভাবিক জীবন মান রক্ষায় সকলকে সচেতন হতে হবে।

তিনি বাজার অস্থিতিশীলতার বিষয়ে বলেন, আমাদের বাণিজ্যমন্ত্রী বলেছেন আসন্ন রমজান উপলক্ষে রমজান সংক্রান্ত যেসব নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র আছে সে সকল জিনিসপত্রের আগাম সম্পূর্ণ মজুদ আছে। কিছু অসাধু ব্যবসায়ীরা আছে কৃত্রিম সংকট করে বাজারকে অস্থিতিশীলতা করে তুলতে পারে। গুজবে কান না দিয়ে কেউ যেন বাজার অস্থিতিশীল না করতে পারে বিষয়টি ইউএনওরা নজরদারি করবেন। বাজার মনিটরিং ব্যবস্থা করতে হবে।

করোনা মহামারির সম্পর্কে তিনি বলেন, আপনারা ইতিমধ্যেই জেনেছেন মহামারি করোনা ভাইরাসের আরেকটি ঢেউ আসছে। সেই দিকে লক্ষ্য রেখে আমাদের সকলকে সচেতনতা অবলম্বন করতে হবে। সবাইকে মাক্স পড়ার পরামর্শ দিতে হবে। ৬০ বছরের উর্ধ্বে যারা আছে তাদের সবাইকে চতুর্থ ডোজ নেওয়ার জন্য বিনীতভাবে অনুরোধ করা যাচ্ছে। আমার মনে হয় কোভিড প্রটোকল মেনে চলার সময় আমাদের চলে এসেছে। আগামীতে আমরা কোভিডের প্রটোকল টি যথাযথভাবে মেনে চলবো এবং আমরা যারা তৃতীয় এবং চতুর্থ ডোজের টিকাটি নেইনি। তারা আমরা পরবর্তী ডোজের টিকাগুলো নিয়ে নেব।

তিনি বলেন, চাঁদপুরে অটো ও সিএনজির ডান পাশে লোক উঠানামার জন্য নিষেধ করা হলেও অটো ও সিএনজি চালকরা সেটা মানছে না। শীতকাল আসলে আমরা কাঁচা খেজুরের রস খাওয়ার জন্য অতি উৎসাহিত হয়ে পড়ি, আসলে কাঁচা খেজুরের রস খাওয়া ঠিক নয় এতে যে কোন ভাবে নিপা ভাইরাস ঢুকে যেতে পারে, যদি কোন ভাবে কোন ব্যক্তির শরীরে নিপা ভাইরাস প্রবেশ করে ফেলে তাহলে তার মৃত্যুর ৮০% সম্ভাবনা থাকে। সেই ক্ষেত্রে আমরা কাঁচা খেজুরের রস নিজেও খাব না, তার পাশাপাশি আমরা সাধারণ জনগণ ও আমাদের আশেপাশের লোকদেরকেও কাঁচা খেজুরের রস না খাওয়ার জন্য সচেতন করব।

অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট বলেন, চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা সহজে জামিন নিয়ে বের হয়ে পুনরায় একই অপরাধ করছেন। বিষয়টি পিপি আদালতের বিচারকদের সাথে সমন্বয় করবেন। শীতের মৌসুমে কেউ কাঁচা খেজুরের রস খাবেন না। স্বাস্থ্য বিষয়ে সকলকে সচেতন থাকতে হবে।

বিগত সভার কার্য বিবরণী পাঠ করেন এনডিসি এ.আর.এম জাহিদ হাসান।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুদিপ্ত রায় তার বক্তব্যে বলেন, বিগত কয়েক মাসের তুলনায় চাঁদপুরের আইন-শৃঙ্খলা ভাল রয়েছে। সকলের অবস্থান থেকে এই ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে হবে। সামনে জাতীয় সংসদ নির্বাচন। অনেকে চাইবে দেশকে অস্থিতিশীল করতে। পুলিশবাহিনী সজাগ রয়েছে। চাঁদপুর সদরসহ কয়েকটি উপজেলায় মামলা হয়েছে। কেউ যেন বিশৃঙ্খল না করতে পারে সেই জন্য আপনারা আমাদেরকে সহযোগীতা করবেন। মাদকের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর জিরো ট্রলারেন্স বাস্তবায়নে চাঁদপুর জেলা পুলিশ কাজ করছে। উগ্র কোন কিছুই ভাল না। জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে পুলিশসহ বিভিন্ন বাহিনীর সদস্যরা কাজ করছে। আপনার এলাকায় কাউকে সন্দেহ হলে আমাদেরকে জানাবেন। আমাদের গোয়েন্দা নজরদারি রয়েছে। তারপরও সকলে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় আমাদেরকে সহযোগিতা করবেন।

সভায় আরোও বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নাছির উদ্দিন আহমেদ, সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ শাহাদাত হোসেন, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা এম এ ওয়াদুদ, স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত নারী মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ সৈয়দা বদরুন্নাহার চৌধুরী, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি এএইচএম আহসান উল্লাহ, চাঁদপুর নৌ অঞ্চলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বেলায়েত হোসেন শিকদার, এনএসআই চাঁদপুরের উপ-পরিচালক শেখ মোঃ আরমান, ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ মাহবুবুর রহমান, জেলা মৎস্য কর্মকর্তা গোলাম মেহেদী হাসান,মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মোঃ ইমদাদুল ইসলাম।

এসময় বিভিন্ন দপ্তরের প্রধানগণ, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও নির্বাহী কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন: