তিন মাসের মধ্যে চাঁদপুরে তৃণমুলের সম্মেলন করা নির্দেশ

মেঘনা বার্তা ডেস্ক ॥

দলীয় কোন্দল নিরসনে এবং তৃণমুল পর্যায়ে সম্মেলনকে সামনে রেখে রাজধানী ঢাকায় চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাংগঠনিক নেতৃবৃন্দ ও চাঁদপুর জেলা আ’লীগের নেতাদের দুইদিনব্যাপী বৈঠক সম্পন্ন হয়েছে। সভায় কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ বলেছেন, ৩ মাসের মধ্যে চাঁদপুরে তৃণমুলের সম্মেলন করে বিতর্কিতদের বাদ দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

বৃহষ্পতিবার ( ৩ মার্চ) ২য় দিনের বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলতে গিয়ে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, কাউকে চোর বলার আগে নিজেদের চেহারাটা আয়নায় একবার দেখুন ।

মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, নির্বাচন কমিশনের সমালোচনা করে বিএনপির নেতারা বলেছেন এ চোর ও চোর। কাউকে চোর বলার আগে নিজেদের চেহারাটা আয়নায় একবার দেখুন, আপনাদের মধ্যে চোরের প্রতিচ্ছবি দেখা যায় কি না। কারণ, আপনাদের নেত্রী খালেদা জিয়াকে এতিমের টাকা চুরির দায়ে জেলে যেতে হয়েছে। তারপর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দয়ালু ও মহানুভবতায় বাসায় থাকার সুযোগ পেয়েছে।

আওয়ামী লীগের এই যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপির আরেক দন্ডপ্রাপ্ত নেতা তারেক রহমান, সে তো বড় সন্ত্রাসী ও চোর, চোর হিসেবে আদালতে প্রমাণিত হয়েছে। সেই চোরের দলের নেতারা আবার কিভাবে অন্যদের নিয়ে কথা বলে। আসলে চোরের মায়ের বড় গলা, সেটা হলো বিএনপি।

তিনি বলেন, জাতীয় সংসদ নির্বাচনের বিজয়ী হওয়ার আগে আমাদের (আওয়ামী লীগ) অনেক পথ পাড়ি দিতে হবে। দেশে এখন শান্তি বজায় আছে, এ কারণেই শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের উন্নয়ন হচ্ছে। কিন্তু এই উন্নয়ন-অগ্রগতি একটি দলের ভালো লাগে না। জিয়াউর রহমান তথাকথিত মুক্তিযোদ্ধা হলেও ভেতরে ভেতরে তার কর্মকান্ড ছিল পাকিস্তানি ভাবধারায়।

হানিফ বলেন, পাকিস্তানের চেয়ে বাংলাদেশ উন্নয়নে অনেক দূর এগিয়ে গেছে। এটা বিএনপির পছন্দ হয় না, ভালো লাগে না। শেখ হাসিনার উন্নয়ন কর্মকান্ড তাদের গা জ্বালার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিএনপি হচ্ছে পাকিন্তানের ভাবনার সৃষ্টি। বিএনপি দলটি ছিল পাকিন্তানের একমাত্র পরিচালিত দল।যারা পাকিন্তানের পক্ষ নিয়ে আমাদের স্বাধীনতার বিরোধিতা করেছিল,সেই রাজাকার,আল শামস, আলবদরদের আশ্রয়স্থল পাকিন্তান। স্বাধীনতার ৫০ বছর পরও বিএনপি জামায়াত পাকিন্তান থেকে সরে আসতে পেরেছে? তারা কিন্তু এখনও পাকিস্তানের ভাবধারায় আছে। বির্তকিতদের পরিবর্তে পরিচ্ছন্নদের দিয়ে তিনমাসের মধ্যে তৃণুমলের কমিটি গঠনের নিদের্শনা।
প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক(চট্টগ্রাম বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত) মাহবুব-উল আলম হানিফ এমপি,বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীব বিক্রম, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ডা: দীপু মনি এম পি।

অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক (চট্টগ্রাম বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত) আবু সাঈদ আল মাহমুদ(স্বপন)এমপি।

উপস্থিত ছিলেন ড.মহীউদ্দিন খান এমপি, মেজর (অব:) রফিকুল ইসলাম বীব উত্তম এমপি, সাংবাদিক মুহম্মদ সফিকুর রহমান এমপি , ত্রাণ ও দুযোগ ব্যবস্থাপনা সম্পাদক সুজিত রায় নন্দি,তথ্য ও গবেষনা বিষয়ক সম্পাদক ড.সেলিম মাহমুদ, সাবেক সংসদ সদস্য জননেতা আলহাজ্ব ড. মোহাম্মদ শামছুল হক ভূঁইয়া ,চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাছির উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম পাটওয়ারী দুলাল,পৌর মেয়র জিল্লুল রাহমান জুয়েল, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ চাঁদপুরের বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ।

শেয়ার করুন: