দুর্নীতির বিরুদ্ধে নিজ নিজ অবস্থান থেকে এগিয়ে আসতে হবে :অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক

নিজস্ব প্রতিবেদক :

কমিউনিটির জনগোষ্ঠীকে সম্পৃক্ত করে সেবাদাতা ও সেবাগ্রহীতাদের মধ্যে যোগসূত্র স্থাপনের মাধ্যমে কার্যকর ও টেকসই দুর্নীতিবিরোধী সামাজিক আন্দোলনকে আরও বিস্তৃত করার লক্ষ্যে টিআইবি’র নতুন প্রকল্প ‘পার্টিসিপেটরি অ্যাকশন এগেইনস্ট করাপশন : টুওয়ার্ডস ট্রান্সপারেন্সি অ্যান্ড অ্যাকউন্টেবিলিটি (প্যাকটা)’ শীর্ষক অবহিতকরণ সভা জেলা প্রশাসন, চাঁদপুরের সহযোগিতায় ও সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক) চাঁদপুরের আয়োজনে জেলা প্রশাসক, চাঁদপুর মহোদয়ের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়।

সনাক সভাপতি শাহানারা বেগমের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ইমতিয়াজ হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আসিফ মহিউদ্দিন পিপিএম ও ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে তত্ত্বাবধায়ক একেএম মাহবুবুর রহমান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ইমতিয়াজ হোসেন বলেন, দুর্নীতির বিরুদ্ধে সবাইকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে এগিয়ে আসতে হবে। তিনি সবাইকে দুর্নীতির বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়ার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, আন্তরিকতা না থাকলে দুর্নীতি রোধ করা সম্ভব নয়। আজ গুরুত্বপূর্ণ একটা বিষয় নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। আগামিতে প্যাক্টা প্রকল্পের মাধ্যমে টিআইবি-সনাক দুর্নীতিবিরোধী সামাজিক আন্দোলন এগিয়ে নেবে। এক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন বলে তিনি জানান। তিনি বলেন, দেশকে এগিয়ে নিতে হলে সর্বপ্রথম যে জিনিসটা প্রয়োজন তা হলো সমাজ থেকে দুর্নীতি নির্মূল করা। তিনি বলেন, জাতীর জনকের দুর্নীতির বিরুদ্ধে যে অবস্থান ছিলো তারই ধারাবাহিতকায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেছেন। সরকার দুর্নীতির বিরুদ্ধে বেশ কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। যার ফলে মানুষের মধ্যে দুর্নীতির বিরুদ্ধে সচেতনতা তৈরি হয়েছে। তিনি আরও বলেন, টিআইবি বেশ কিছু ভালো কাজ করেছে বলেই সরকারের কয়েকটি আইন তৈরি করতে সহজ হয়েছে। দেশের অনেকগুলো ভালো কাজের পিছনে টিআইবির অবদান আছে। সরকার যে শুদ্ধাচার নীতিমালা তৈরি করেছে তার পিছনেও টিআইবির ভূমিকা রয়েছে। ভবিষ্যতে স্কুল ও কলেজ পর্যায়ে দুর্নীতিবিরোধী বিভিন্ন কার্যক্রম পালন করার জন্য টিআইবির প্রতি আহ্বান জানান। যার ফলে তরুণরা দুর্নীতি প্রতিরোধে ভূমিকা পালন করতে পারবে। তিনি বলেন, আজকের এই অনুষ্ঠানে সুন্দর একটি আলোচনা হয়েছে। তিনি অনুষ্ঠানে উপস্থিত হওয়ার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ জানান।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চাঁদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আসিফ মহিউদ্দিন পিপিএম বলেন, বঙ্গবন্ধুর দুর্নীতিবিরোধী স্বপ্নকে বাস্তবায়নের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দুর্নীতির বিরুদ্ধে বেশ কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন। টিআইবিকে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, ভূমি, পরিবেশ ও নির্মাণের পাশাপাশি আইনশৃঙ্খলা নিয়েও কাজ করার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, সমাজের প্রত্যেকটি সেক্টরে দুর্নীতি রয়েছে। শুদ্ধাচারের বিষয়ে আগে নিজেকে ও নিজের পরিবার দিয়ে শুরু করতে হবে। তিনি আরও বলেন, দুর্নীতি কেবল আর্থিক লেনদেন নয়। দুর্নীতি হলো নীতির ব্যত্যয় ঘটানো। একটি দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে হলে আমাদেরকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে দুর্নীতির বিরুদ্ধে এগিয়ে আসতে হবে। আমরা নিজ নিজ দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করবো এবং সুন্দর একটি বাংলাদেশ বিনির্মাণে কাজ করবো। তিনি বলেন, আজ আমরা টিআইবির প্যাক্টা প্রকল্প সম্পর্কে অনেক কিছু জানতে পারলাম। আশা করছি আগামিতে আমরা দুর্নীতিবিরোধী আন্দোলনে অনেক সহযোগিতা করতে পারবো। এমন একটি অনুষ্ঠান আয়োজন করার জন্য সনাক-টিআইবিকে ধন্যবাদ জানান।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে তত্ত্বাবধায়ক একেএম মাহবুবুর রহমান বলেন, মুক্তিযুদ্ধের যে মূল চেতনা ছিল তা ছিল দুর্নীতির বিরুদ্ধে। দুর্নীতি সমাজের সকল স্থানেই আছে। দুর্নীতি প্রতিনিয়ত আমাদের উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করছে। দুর্নীতির প্রতি উদাসীনতা ও সহনশীলতার কারনেই প্রতিনিয়ত দুর্নীতি বাড়ছে। আমাদের নিজ নিজ অবস্থান থেকে প্রতিরোধ গড়ে তুললেই দুর্নীতি রোধ করা সম্ভব। সনাক-টিআইবি দুর্নীতির বিরুদ্ধে যে কার্যক্রম করছে আমি সবসময় তাঁদের এই দুর্নীতিবিরোধী আন্দোলনকে স্বাগত জানাই। সনাক-টিআইবির দুর্নীতির বিরুদ্ধে যে অবস্থান তা আমি সবসময় সহায়ক হিসেবে মনে করি। আমরা পূর্বে টিআইবিকে সহযোগিতা করেছি, আগামীতেও অব্যাহত থাকবে। তিনি দুর্নীতির বিরুদ্ধে সাধারণ মানুষকে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানান।

সনাক সদস্য অধ্যক্ষ মোঃ মোশারেফ হোসেনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সনাকের সহ-সভাপতি ডাঃ পীযূষ কান্তি বড়ুয়া। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বক্তব্য রাখেন পুরান বাজার ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ রতন কুমার মজুমদার। পার্টিসিপেটরি অ্যাকশন অ্যাগেনইস্ট করাপশন : টুওয়ার্ডস ট্রান্সপারেন্সি অ্যান্ড অ্যাকাউন্টেবিলিটি (প্যাকটা) প্রকল্প বিষয়ক পরিচিতি তুলে ধরেন টিআইবির ক্লাস্টার কো-অর্ডিনেটর মোঃ জসীম উদ্দীন। এই প্রকল্পের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে আইনী, নীতিগত এবং প্রাতিষ্ঠানিক সংস্কারের মাধ্যমে সুশাসনের সক্ষমতা ও চর্চার উন্নয়ন ঘটানো, সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানসমূহে অংশগ্রহণমূলক এবং কার্যকর সুশাসন নিশ্চিত করা, অনিয়ম ও দুর্নীতি হ্রাস করে তৃণমূল পর্যায়ে সেবা প্রদান ব্যবস্থার উন্নয়ন ঘটানোর লক্ষ্যে জাতীয় পর্যায়ে খাতভিত্তিক গবেষণা ও প্রমাণ নির্ভর অ্যাডভোকেসি করা। তিনি বলেন, প্রকল্পের আওতাভুক্ত সেবাখাতগুলো হলো : শিক্ষা, স্বাস্থ্য, ভূমি, পরিবেশ এবং নির্মাণ। এছাড়া সরকারের সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচিসমূহও প্রকল্প কার্যক্রমের আওতাভুক্ত থাকবে। মুক্ত আলোচনা ও প্রশ্নোত্তর পর্ব পরিচালনা করেন সনাকের সাবেক সভাপতি ও সদস্য কাজী শাহাদাত। প্রশ্নোত্তর পর্বে অংশগ্রহণ করেন চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক রিয়াদ ফেরদৌস, পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর, চাঁদপুর-এর উপ-পরিচালক ডাঃ মোঃ ইলিয়াছ ও আত্মনিবেদিতা মহিলা সংস্থার নির্বাহী পরিচালক ডাঃ মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান।

সভাপতির বক্তব্যে সনাক সভাপতি শাহানারা বেগম বলেন, সকলের সহযোগিতায় একদিন দুর্নীতি দূর হবেই। সবার একই চাওয়া সমাজ থেকে দুর্নীতি দূর করা। তিনি আরও বলেন, দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাতির জনক অবস্থান নিয়েছেন বলেই আমরা আজ আলাদা একটা ভূখণ্ড পেয়েছি। তিনি অনুষ্ঠানে উপস্থিত হওয়ার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ জানান। অনুষ্ঠানে প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ, বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিবৃন্দ, ব্যবসায়ী প্রতিনিধিবৃন্দ, সনাক-চাঁদপুরের সদস্য, এসিজি সদস্য ও ইয়েস গ্রুপের সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন: