নাশকতার মামলায় চাঁদপুর জেলা বিএনপি সভাপতি কারাগারে

নিজস্ব প্রতিবেদক :

চাঁদপুর শহরের কালিবাড়ী কোর্ট স্টেশন এলাকায় ২০১৮ সালের নির্বাচনকালীন সময়ে রেল লাইন তুলে নেয়ার অভিযোগে পুলিশের দায়ের করা নাশকতার মামলায় জেলা বিএনপির সভাপতি শেখ ফরিদ আহমেদ মানিক এর জামিন না মঞ্জুর কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

রোববার (১০ এপ্রিল) সকালে চাঁদপুর জেলা ও দায়রা জজ এস এম জিয়াউর রহমান এর আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করেন মানিকের আইনজীবীরা। বিচারক তার জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণ করার নির্দেশ দেন।

পরে দুপুর ১২টায় তাকে প্রিজন ভ্যানে করে কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। বিষয়টি জানতে পেরে আদালত প্রাঙ্গন ও জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সম্মূখে চাঁদপুর-কুমিল্লা আঞ্চলিক মহাসড়কে নেতা-কর্মীরা তাৎক্ষনিক বিক্ষোভ করে এবং বিএনবি’র অনেক নেতা-কর্মী সড়কে শুয়ে পড়েন। এর ফলে সড়কে যান চলাচলে কিছুটা বিঘ্ন ঘটে।

চাঁদপুর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. সেলিম উল্ল্যাহ সেলিম জানান, ২০১৮ সালের নির্বাচন বানচালের জন্য বিএনপির বিরুদ্ধে গায়েবী মামলা করা হয়। কালীবাড়িতে ঘটনার দিন তিনি হাজারো নেতা-কর্মী নিয়ে রেললাইন উত্তোলন করেছেন মর্মে পুলিশ বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। যার নং জিআর ৫৬১, এসটিসি ১/২২। তিনি এ গায়বী মামলার কোন আসামী ছিলেন না। নতুন করে তার নাম চার্জশীটে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। সেই প্রেক্ষিতে আজকে তিনি আদালতে আত্মসমর্পণ করতে এসেছেন। আমি এ মামলার প্রধান আসামী। এ মামলার সকল আসামী জামিনে রয়েছেন। আমরা এ গায়েবী মামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী হলেন অ্যাড. রনজিৎ রায় চৌধুরী এবং আসামী পক্ষের আইনজীবী ছিলেন এটিএম মোস্তফা কামাল।

প্রসঙ্গত, গত ২ এপ্রিল চাঁদপুর জেলা বিএনপির দ্বিবার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতি নির্বাচিত হন শেখ ফরিদ আহমেদ মানিক এবং সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সলিমউল্লাহ সেলিম।

শেয়ার করুন: