নিখোঁজের জিডি করতে থানায় এসে স্ত্রীর মরদেহ পেলেন স্বামী

নিজস্ব প্রতিবেদক:

চাঁদপুর সদর উপজেলার কালু বেপারীর স্ত্রী নিখোঁজ হয়েছিলেন। তিনি এ ঘটনায় সাধারণ ডায়রি (জিডি) করতে যান সদর মডেল থানায়। সেখানে গিয়ে তিনি তার স্ত্রী তৈয়মুন্নেছার (৬০) মরদেহ পান।

কালু বেপারী উপজেলার লক্ষ্মীপুর মডেল ইউনিয়নের দোকানঘর পশ্চিম রামদাসদী গ্রামের বাসিন্দা।

চাঁদপুর সদর মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ আব্দুর রশিদ জানান, শুক্রবার (১৬ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে সদর উপজেলার বিষ্ণুপুর ইউনিয়ন থেকে স্থানীয়দের মাধ্যমে অজ্ঞাত নারীর মরদেহ পড়ে আছে বলে জানতে পারেন তিনি। পরে উপজেলার দনপর্দি গ্রামের ঘটনাস্থল থেকে ওই নারীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। দুপুরে ওই নারীর স্বামী থানায় জিডি করতে আসলে উদ্ধারকৃত নারীর মরদেহ দেখালে কালু বেপারী তার স্ত্রী বলে দাবি করেন। 

তিনি নিহতের পরিবারের বরাত দিয়ে আরো জানান,তার স্ত্রীর মানসিক সমস্যা ছিল। বৃহস্পতিবার (১৫ ডিসেম্বর) দুপুরের দিকে তৈয়মুন্নেছা কাউকে কিছু না জানিয়ে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান। রাতে ফিরে না আসায় তাকে বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করেন। মাঝে মধ্যে প্রায়ই কাউকে কিছু না বলে তিনি বিভিন্ন স্থানে বেরিয়ে যেতেন এবং ভিক্ষা করতেন বলে জানান কালু বেপারী। নিহত নারীর পরিবারের কোনো অভিযোগ নেই। তারা অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট বরাবর আবেদন করায় আইনি প্রক্রিয়া শেষে মরদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে।

শেয়ার করুন: