পদ্মা নদীতে স্পীডবোটে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে দেশীয় অস্ত্রসহ আটক-৫

নিজস্ব প্রতিনিধি ॥

চাঁদপুরের পদ্মা নদীতে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে দেশীয় অস্ত্রসহ ৫ ডাকাতকে আটক করেছে চাঁদপুর নৌ- পুলিশ। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে পদ্মা নদীতে অভিযান চালিয়ে মুন্সিগঞ্জ এলাকা তাদেরকে আটক করা হয়।

এ সময় ডাকাতদের ব্যবহৃত স্পীডবোট তল্লাশি করে ও তাদের কাছ থেকে ২টি দেশীয় বন্দুক, বন্দুকের ৭ রাউন্ড গুলি, ৮টি রামদা, বিভিন্ন মডেলের ২০টি মোবাইল সেট, ১টি দা, ১টি স্ক্রুড্রাইভার, ১টি শাবল, ৫টি তেলের খালী ড্রাম, ১০লিটার পেট্রোল জব্দ করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলো- মুন্সিগঞ্জের ভাসানচর গ্রামের মৃত সেরু মাঝির ছেলে আক্তার হোসেন (৩০), কান্দিপাড়া গ্রামের ইলিয়াস মুন্সির ছেলে ইকবাল মুন্সি ওরফে সুমন (২৮), কালিরচর গ্রামের গিয়াস উদ্দিনের ছেলে আবুল বাশার (২২), সোমা ঢালিকান্দি গ্রামের মোখলেছ দেওয়ানের ছেলে শাকিল দেওয়ান (২১), পিড়িঙ্গি বাজার কুটিপাড়া গ্রামের ইয়াছিনের ছেলে ইয়ামিন (১৯)।

চাঁদপুর নৌ- পুলিশ সুপার কামরুজ্জামান তার কার্যালয়ে শুক্রবার দুপুরে প্রেস বিফ্রিং করে এসব তথ্য সাংবাদিকদের জানান। তিনি আরো বলেন, চাঁদপুরের পদ্মা নদীতে ডাকাতি হতে পারে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পদ্মা নদীতে চাঁদপুর নৌ- পুলিশের একটি অভিযানিক দল আভিযান চালায়। আভিযানিক দলটি ঘটনাস্থলে পৌঁছলে স্পীডবোটে থাকা ১২/১৩ জন নৌ ডাকাতকে দেখতে পায়। আভিযানিক দলটি ডাকাতদের ধরতে ধাওয়া করে। ধাওয়া খেয়ে ডাকাতদল পুলিশকে লক্ষ করে কয়েক রাউন্ড গুলি ছুড়ে। পুলিশ ও আত্মরক্ষার্থে শর্টগান হতে ফাঁকা ফায়ার করে। এক পর্যায়ে ডাকাত দল মুন্সিগঞ্জ জেলার লৌহজং থানার গাঁওদিয়া বাজার সংলগ্ন নদীর পাড়ে ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত স্পীডবোটটি রেখে লাফিয়ে তীরে নেমে এবং দৌড়িয়ে পার্শ্ববর্তী পাটক্ষেতে আত্মগোপন করে। পরে ডাকাতদল তীরে স্পীডবোট রেখে পালিয়ে গেলে রাতব্যাপী অভিযান চালিয়ে অস্ত্রসহ ডাকাতদের আটক করে। আটককৃতদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় একাধিক ডাকাতি মামলা রয়েছে।

শেয়ার করুন: