ফরিদগঞ্জের অটোরিকশা কেড়ে নিলো আকাশের প্রাণ

আবদুল কাদির:

মায়ের এক মাত্র ছেলে আকাশকে চিরতরে হারিয়ে ফরিদগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চত্তরে আহাজারি করতে দেখা গেছে। অটোরিকশা নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সাথে ধাক্কায় মৃত্যু হওয়া ফুটফুটে কিশোর আকাশের মা সহ পরিবারের কয়েকজন সদস্যদের।

ফরিদগঞ্জে ১৬ বছর বয়সী এক কিশোরের চালিত অটোরিশার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে অটোতে থাকা অপর কিশোর আকাশ (১৩) এর করুন মৃত্যু হয়েছে। ২৪ মে মঙ্গলবার সকালে উপজেলার গোবিন্দপুর (উত্তর) ইউনিয়নের হাঁসা আইলে রাস্তা এলাকায় দূর্ঘটনাটি ঘটে। দূর্ঘটনায় নিহত আকাশ উপজেলার ৯ নং গোবিন্দপুর ইউনিয়নের চর বাঘল গ্রামের সুমন মিয়ার একমাত্র ছেলে।

খবর পেয়ে সরেজমিনে ঘটনাস্থলে গিয়ে জানা যায়, এদিন সকাল আনুমানিক সাড়ে দশটায় সানাউল্যার ছেলে রাহাত (১৬) নিজে ব্যাটারিত চালিত অটোরিকশা চালিয়ে যাত্রী নিয়ে নয়ার হাট এলাকা থেকে আইলের রাস্তার উদ্দেশ্যে যাত্রী নিয়ে রওনা দেয়। তার অটোরিকশায় যাত্রী হিসেবে ছিলো নিহত আকাশ ও এক মহিলা, হাঁসা এলাকার আইলে রাস্তা অঞ্চলে এলে অটোরিক্সাটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের পাশে থাকা একটি গাছের সাথে সজোরে ধাক্কা খেয়ে অটোরিক্সা সহ রাস্তার পাশে দুই কিশোর পড়ে গেলে স্থানীয়রা আকাশ ও রাহাতকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে সিএনজি যোগে ফরিদগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হয়। হাসপাতালে আনার পর আহত দুজনকে পর্যবেক্ষন করে হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ কামরুল হাসান আকাশকে মৃত ঘোষণা করে। এবং অপর কিশোর অটো চালক রাহাতকে চিকিৎসা প্রদান করে। হাসপাতালে আসা নিহত আকাশের পরিবারিক সূত্রে জানা যায় যে,আকাশ ও রাহাত সম্পর্কে মামাতো-ফুফাতো ভাই। ফুটফুটে কিশোর আকাশের এমন অকাল মৃত্যুতে এলাকা জুড়ে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স’র আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডাঃ কামরুল হাসান ফরিদগঞ্জ সংবাদের এই প্রতিনিধিকে জানান, সকাল সাড়ে ১১ টায় ইমার্জেন্সি বিভাগে দূর্ঘটনায় আহত দু’জনকে নিয়ে আসলে আমরা তাৎক্ষনিক দুজনের পরীক্ষা করে আকাশকে মৃত পেয়েছি। অপর জনের মাথায় খানিকটা আঘাতের ফলে সেও আহত হওয়ায় তাকেও চিকিৎসা প্রদান করা হয়েছে। এই দূর্ঘটনার বিষয়ে কেউ কোন অভিযোগ করেছেন কি না? ফরিদগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ শহীদ হোসেন বলেন, অটোরিক্সাটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সাথে ধাক্কায় তারা আহত হয়।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি, বিষয়টি পুরোপুরি পর্যবেক্ষন করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published.