ফরিদগঞ্জে ইউপি নির্বাচনে ৭৪৫ প্রার্থীর মনোনয়ন বৈধ : বাতিল ২

নিজস্ব প্রতিবেদক:

পঁচিশ বছর পূর্ণ না হওয়ায় তথা বয়স জনিত কারণে ফরিদগঞ্জে সংরক্ষিত আসনের এক প্রার্থী ও সাধারণ আসনের এক প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল করেছেন রির্টানিং অফিসার এবং দুই চেয়াম্যান প্রার্থীর বিরুদ্ধে অভিযোগ।

৫ম ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী ১২ ডিসেম্বর রোববার যাচাই বাছাই কালে সংশ্লিষ্ট রির্টানিং অফিসার এই আদেশ দেন। এদিকে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব ত্যাগ করে আমেরিকার নাগরিকত্ব গ্রহণ করেছেন এমন অভিযোগে এক চেয়ারম্যান প্রার্থীর বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেছেন অপর প্রার্থী। এছাড়া চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করা প্রার্থী ই-টিন জমা দেয়ার কথা থাকলেও এক প্রার্থী তা জমা দেননি বলে অভিযোগ করেছেন আরেক প্রার্থী।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, ১২ ডিসেম্বর রোববার উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নের যাচাই বাছাই কালে সংরক্ষিত আসনের একজন এবং সাধারণ আসনের একজনসহ মোট ২জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল হয়।

ফলে নির্বাচনে মোট মোট বৈধ প্রার্থী ৭৪৫জন। এদের মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ১০৫জন, সংরক্ষিত আসনের ১২৪জন এবং সাধারণ আসনের ৫১৪জন প্রার্থী নির্বাচনের লড়াইয়ে টিকে রইল। মনোনয়ন বাতিল হওয়া প্রার্থীরা হলেন ৫নং গুপ্টি পুর্ব ইউনিয়নের সংরক্ষিত আসন ২নং ওয়ার্ডের রেহেনা আক্তার (বর্তমান বয়স ২২ বছর ৫ মাস ) এবং ১০ নং গোবিন্দপুর দক্ষিণ ইউনিয়নের সবুজ গাজী (বর্তমান বয়স ২২ বছর)।

এদিকে ৫নং গুপ্টি পুর্ব ইউনিয়নের সংরক্ষিত আসন ২নং ওয়ার্ডের দুই প্রার্থীর মধ্যে বয়স জনিত কারণে একজনের মনোনয়ন বাতিল হওয়ায় বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় নির্বাচিত হওয়ার পথে অপর প্রার্থী পলি রানী।

চেয়ারম্যান পদে ৫নং গুপ্টি পুর্ব ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল গনি বাবুল পাটওয়ারী অপর চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহজাহান পাটওয়ারী বাংলাদেশের নাগরিকত্ব ত্যাগ করে আমেরিকার নাগরিকত্ব গ্রহণ করেছেন বিষয়ে অভিযোগ তুলে রির্টানিং অফিসার ও জেলা নির্বাচন অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন।

এছাড়া চরদুঃখিয়া পশ্চিম ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. শাহজাহান অভিযোগ করেছেন চেয়ারম্যান প্রার্থীদের ই-টিনসহ ট্যাক্স বিষয়ে কাগজপত্র জমাদানের নিয়ম থাকলে ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী মিজানুর রহমান স্বপন ভূঁইয়া এই সংক্রান্ত কোন কাগজপত্র জমা দেননি। যার কারণে তিনি বৈধ প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ গ্রহণের অযোগ্য। কিন্তু নির্বাচন অফিসার তথা রির্টানিং অফিসার অজ্ঞাত কারণে সেটি দেখেও না দেখার কাজ করেছেন। ওদিকে চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. শাহজাহান যাচাই বাছাই কালে তাকে অপর এক চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রকাশ্যে হুমকি দিয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন। তিনি এই বিষয়ে জিডি করবেন বলে জানিয়েছেন।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *